ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৪, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

দেশে কোনো খাদ্য সংকট নেই : খাদ্যমন্ত্রী

ইয়াছিন মোহাম্মদ সিথুন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৫-১৭ ৬:৪২:৫৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৫-১৭ ৬:৪২:৫৯ পিএম

নীলফামারী প্রতিনিধি : দেশে কোনো খাদ্য সংকট নেই মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, ‘হাওরাঞ্চলসহ সারাদেশে ১২ লাখ মেট্রিক টন ধান নষ্টের সুবাদে সরকারের বিরুদ্ধে অবস্থানকারী কিছু অসাধু ব্যবসায়ী কৃত্রিম খাদ্য সংকট সৃষ্টি করে মানুষের মাঝে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে।’

বুধবার দুপুরে নীলফামারী জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসন ও জেলা খাদ্য বিভাগের আয়োজিত অভ্যন্তরীণ খাদ্যশস্য সংগ্রহ বিষয়ে মাঠ পর্যায়ে কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ সব কথা বলেন।

কামরুল ইসলাম বলেন,  ‘মাত্র ১২ লাখ মেট্রিন টন ধান নষ্ট হওয়ার ফলে দেশে গজব নেমে আসবে এমনটা আমি বিশ্বাস করি না।’

তিনি বলেন, ‘সরকারের খাদ্যভাণ্ডারে পর্যাপ্ত খাদ্য মজুদ রয়েছে। যদি মজুদ নাই থাকতো, তাহলে দুর্যোগ এলাকায় সরকারের মজুদ থেকে ত্রাণ দেওয়া হচ্ছে কিভাবে? আসলে সরকারের বিরুদ্ধে যারা বড়বড় কথা বলেন তারা তো মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসেন না।’

এ সময় তিনি তিলকে তাল করে অহেতুক প্রচারণা চালিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত না করার অনুরোধ জানান।

জেলা প্রশাসক খালেদ রহীমের সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নীলফামারী-৩ (জলঢাকা-কিশোরগঞ্জ আংশিক) আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপক গোলাম মোস্তফা, খাদ্য বিভাগের মহাপরিচালক বদরুল হাসান, রংপুর বিভাগের আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক  রায়হানুল কবীর, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন, পুলিশ সুপার জাকির হোসেন খান, নীলফামারী পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেওয়ান কামাল আহমেদ, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কাজী সাইফুদ্দিন অভি প্রমুখ।

নীলফামারী জেলায় এবার ১৫ হাজার ৯১৫ মেট্রিক টন চাল সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। পরে জেলার ২৫ জন মিল মালিকের সঙ্গে এই চাল সরবরাহের চুক্তি স্বাক্ষর হয়।



রাইজিংবিডি/নীলফামারী/১৭ মে  ২০১৭/ইয়াছিন মোহাম্মদ সিথুন/রুহুল

Walton Laptop