ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ আষাঢ় ১৪২৬, ১৮ জুন ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

পথের সাথী নামে সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন

নাসির উদ্দিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-০৪ ৪:৪৬:৪৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-০৪ ৫:৪৩:১৭ পিএম
Walton AC 10% Discount

নিজস্ব প্রতিবেদক : নারী জাগরণ নারী জীবনের গতি বাড়াতে পথের সাথী নামের সেবা কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে।

শনিবার রাজধানীর লেডিস ক্লাবে এই সেবা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, ‘আমরা একা কেউ চলতে পারি না, নারী পুরুষ একজন আরেকজনের উপর নির্ভরশীল। তাই নারীকে চার দেয়ালের মাঝে বন্দি করে রাখলে চলবে না, তাদেরকে সামনে এগিয়ে যেতে পুরুষদেরই সহযোগিতা করতে হবে। বঙ্গবন্ধু নারীদের সমান অধিকার দিয়ে গেছেন কিন্তু আমাদের দূর্ভাগ্য যে তাকে আমরা বাঁচিয়ে রাখতে পারিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সহযোগিতা করার মাধ্যমেই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব।’

তিনি বলেন, ‘আমি যখন প্রতিমন্ত্রী ছিলাম তখন অনেকেই আসতো বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে, কেউ সেলাই মেশিন বা কেউ হাতের কাজের জন্য আসতো। তখন প্রধানমন্ত্রী বলতেন যে, এভাবে সেলাই মেশিন দিয়ে কী চলবে? এতে নারীরা তো ঘরেই বন্দি হয়ে রইলো। তখন আমরা নারীদেরকে সিএনজি চালনার মতোও ব্যবস্থা করেছি। আজকের এই ধরনের স্কুটি সার্ভিস প্রদক্ষেপ নারীদেরকে আরো চলমান করবে, এগিয়ে যেতে আরো উৎসাহ যোগাবে।’

চুমকি আরো বলেন,‌ ‘সমাজ নারীদেরকে বঞ্চিত করে রেখেছে এসব অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে হবে। নুসরাতকে আজ প্রতিবাদের কারণেই জীবন দিতে হয়েছে। কিন্তু তারপরও থেমে থাকলে চলবে না, অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে যেতেই হবে। কোন ধরনের লোভের কারণে অন্যায়কারীকে সহযোগিতা করা যাবে না। অনেক পুরুষের ধারণা, নারীদের এগিয়ে দিয়ে সমাজকে ধ্বংস করা হচ্ছে; এই ধরনের মন মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। আমদের দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করতে হবে।

মেয়ে শিশুদের কোনো কাজে দমিয়ে রাখলে চলবে না, তাদেরকে প্রতিভা বিকাশে সুযোগ দিতে হবে। তবেই দেশের উন্নয়ন সম্ভব। পুরুষদের শুধু পাওয়ার মানসিকতা বাদ দিয়ে দেয়ার মানসিকতাও তৈরি করতে হবে, নারীরা এখন আর পিছিয়ে নেই, তাদেরকে অনেক দূর্গম পথ পাড়ি দিতে হবে, তবেই দেশকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব।’

সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম বলেন, ‘সফল নারীগণ এখানে রয়েছেন; কেউ রাজনীতিতে, কেউ পর্যটনে, কেউ ব্যাংক খাতে আর আমি গানের মাধ্যমে বিচরণ করেছি। আমরা সবাই এখানে এসেছি তরুণ নারীদের অনুপ্রেরণা দিতে, তাদের সাহস যোগাতে। সবাইকে একটি কথাই বলতে চাই, সবাই মিলে আমরা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে কাজ করে যাব। পথের সাথীর এটি খুব ভালো উদ্যোগ, যার মাধ্যমে দেশের নারীরা আরো বেগবান হবে তাদের কর্মক্ষেত্রে। বেসরকারিভাবে এরকম আরো উদ্যোগ দেশের নারীদেরকে আরো সমৃদ্ধ করবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার গাওয়া লোকাল বাস গানটি অনেক জনপ্রিয় হয়েছে। আমি সব সময় ফোক ঘরানার গান করতাম, তার মাঝ থেকে এমন একটি গান গাওয়া সত্যিই অনেক সাহসী পদক্ষেপ ছিল আমার জন্য। অনেকেই বলেছেন মমতাজের এই গানটি গাওয়া ঠিক হচ্ছে না, তারপরও আমি সাহস নিয়ে গানটি গাই, যার ফলাফল আজকে আপনারা সবাই দেখতে পাচ্ছেন। তাই বলবো, এমন সাহসী পদক্ষেপই সবাইকে নিতে হবে যার যার কর্মস্থল থেকে। তাহলেই দেশে এগিয়ে যাবে। নারী পুরুষ সবাইকে ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে এক সাথে এগোতে হবে। তবেই দেশের উন্নয়ন সম্ভব। আমি আমার কষ্টের উপার্জনের টাকায় চক্ষু হাসপাতাল করেছি, আরো উন্নয়নমূলক কাজ করি। দিনে শেষে আমরা কেউই থাকবো না, আমাদের কাজগুলোই থাকবে।’

অনুষ্ঠানের আয়োজক প্রতিষ্ঠান মিহা.কম.বিডির পক্ষ থেকে জানানো হয়, শুধু নারীরা সহজ কিস্তিতে কোনো রকম জামানত ছাড়াই ভেসপার স্কুটি নিতে পারবেন পথের সাথী প্রকল্পের মাধ্যমে। আগামীতে শুধু নারীদের জন্য একটি রাইড শেয়ারিং অ্যাপের সেবাও চালু করা হবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৪ মে ২০১৯/নাসির/শাহনেওয়াজ

Walton AC
     
Walton AC
Marcel Fridge