ঢাকা, শনিবার, ২ ভাদ্র ১৪২৫, ১৮ আগস্ট ২০১৮
Risingbd
শোকাবহ অগাস্ট
সর্বশেষ:

বেশি ঘুমালে, বেশি সুবিধা (শেষ পর্ব)

শাহিদুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৭-০১-১৫ ১১:৫০:৪৪ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০১-১৮ ৭:০০:২৬ পিএম
প্রতীকী ছবি

শাহিদুল ইসলাম : ব্যস্ত জীবনে অনেকেই প্রয়োজনের তুলনায় কম ঘুমিয়ে থাকেন। রাত জেগে কাজ করা, রাত জেগে টিভি দেখা কিংবা ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ে এখন অনেকেই অভ্যস্ত। ফলে পর্যাপ্ত পরিমান ঘুম দৈনন্দিন জীবনে প্রতিদিন হয়ে ওঠে না।

অপর্যাপ্ত ঘুমিয়ে অনেকে যে জীবনযাপন করেন, তার তুলনায় বেশি ঘুমালে জীবনযাপনে মিলবে আরো বেশি সুবিধা। পর্যাপ্ত ঘুমানোর ১৮ সুবিধা নিয়ে দুই পর্বের প্রতিবেদনের আজ শেষ পর্বে আরো ৯টি সুবিধা তুলে ধরা হল।

চিকিৎসা খরচ কমায়
আপনার ঘুম যদি পর্যাপ্ত না হয় তবে অন্যদের তুলনায় আপনার চিকিৎসার খরচ ১১ শতাংশ হারে বেড়ে যাওয়ার সম্ভবনা রয়েছে। নিদ্রাহীনতা এবং অনিদ্রা সমস্যায় যুক্তরাষ্ট্রে নাগরিকরা প্রতি বছর লাখ লাখ ডলার চিকিৎসা খরচে ব্যয় করছে।

মাদক থেকে দূরে রাখে
যুক্তরাষ্ট্রের ইনস্টিটিউট অব মেডিসিন পরিচালিত এক গবেষণায় উঠে এসেছে যে, যেসব কিশোরেরা পর্যাপ্ত ঘুমায় তাদের মাদকের ঝুঁকিতে পড়ার আশঙ্কা কম থাকে। বয়ঃসন্ধিকালে যাদের ঘুমের সমস্যা বেশি, অ্যালকোহলে ঝুঁকে পড়ার সম্ভাবনা তাদের বেশি থাকে।

ভালোভাবে কথা বলতে সাহায্য করে  
রাতে ঠিকমতো না ঘুমানোর পরিণতিতে শুধু ড্রাইভিংয়ের সময় তন্দ্রা, মনোযোগের অভাব, বিরক্তির কারণে মারাত্বক দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে তা নয়, এক গবেষণায় দেখা যায় ঘুম ঘাটতি আপনার বাচন ভঙ্গিতে যথেষ্ট প্রভাব ফেলে। যারা রাতে পর্যাপ্ত ঘুমায় না তাদের তুলনায় যারা পর্যাপ্ত ঘুমায় তাদের উপস্থাপনা দক্ষতা অনেক ভালো।

ঠান্ডাজনিত রোগ থেকে বাঁচায়
পর্যাপ্ত না ঘুমালে শরীরের ইমিউন সিস্টেম দুর্বল হয়ে যায়, ফলে ঠান্ডাজনিত ভাইরাসে সহজেই আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবানা থাকে। সাধারণ ঠান্ডাজনিত রোগ নিয়ে ১৫৩ জন লোকের মধ্যে পরিচালিত এক গবেষণায় দেখা যায়, যারা রাতে সাত ঘণ্টার কম ঘুমিয়েছিল, তাদের ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা তিনগুণ বেশি ছিল।

মাইগ্রেন ও অন্যান্য মাথাব্যথা প্রতিরোধ করে
আপনি যদি হঠাৎ মাথাব্যথার সমস্যায় ভোগেন, তাহলে আপনার ঘুমানোর রুটিন চেক করে নিন। একাধিক গবেষণার ফলাফলে বলা হয়েছে, যারা রাতে পর্যাপ্ত ঘুমান না, তাদের মধ্যে বেশিরভাগই মাইগ্রেন সমস্যায় ভোগেন।

বিরক্ত হওয়া থেকে বাঁচায়
যত কম ঘুমাবেন, তত বিরক্ত হবেন। একদিন রাতে কম ঘুমান, দেখবেন পরদিন সকালে ভালো কথাতেও বিরক্ত হচ্ছেন। ইসরায়েলের একদল গবেষক প্রমাণ করেছেন, যারা কম ঘুমান তারা যেকোনো কাজ বা কথাতে বেশি বিরক্ত হোন এবং এই বিরক্ত হওয়াটা এক সময় অভ্যাসে পরিণত হয়।

ব্যথা উপশমে সাহায্য করে
অনিদ্রা ব্যথা উপশমের অন্তরায়। শারীরিক যেকোনো ব্যথাতে যতই মেডিসিন নেন না কেন, যদি আপনি কম ঘুমান তবে আপনার ওই ব্যথা সারতে দীর্ঘ সময় লাগবে। এমনকি গবেষণায় প্রমাণিত যে, কম ঘুম অনেক মেডিসিনের কার্যক্ষমতা নষ্ট করে।

ভুল কম করায় 
পর্যাপ্ত ঘুম আপনাকে অনেক মারাত্মক ভুলের হাত থেকে বাঁচিয়ে দেবে। হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালিত এক গবেষণায় বলা হয়েছে, যারা রাতে কম ঘুমান তাদের সাধারণ মানুষের তূলনায় ভুল করার সম্ভবনা ২২ শতাংশ বেড়ে যায়। যেমন: নাসার স্পেস শাটল চ্যালেঞ্জার এক্সপ্লোশন এবং এক্সন ভ্যাল্ডেজ অয়েল স্পিল- দুর্ঘটনা দুইটি ঘটেছিল কর্মীদের ঘুম ঘাটতির কারণে। সুইডেনে ৫০ হাজার মানুষের ওপর পরিচালিত অন্য একটি গবেষণায় দেখা যায়, যারা কম ঘুমান তাদের দূর্ঘটনায় মৃত্যুর হার অন্যদের তুলনায় দ্বিগুণ।

হৃদরোগ প্রতিরোধ করে
যারা পর্যাপ্ত ঘুমায়, তাদের হার্টের সমস্যা কম থাকে। একটি গবেষণার ফলাফলে বলা হয়েছে, যারা ৫ ঘণ্টা বা তার কম ঘুমান, তাদের হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি ৪৫ শতাংশ বেশি থাকে। অনিদ্রা শরীরের রক্তচাপ বাড়িয়ে দেয়। এমনকি স্বাস্থ্যবান যুবকেরা যারা মাত্র এক রাত সাড়ে তিন ঘণ্টা ঘুমিয়েছেন, তাদের রক্তচাপেও সাময়িক ব্যাপক তারতম্য দেখা গেছে গবেষণায়।

পড়ুন : বেশি ঘুমালে, বেশি সুবিধা (প্রথম পর্ব)

তথ্যসূত্র: বিজনেস ইনসাইডার



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ জানুয়ারি ২০১৭/ফিরোজ

Walton Laptop
 
     
Walton