ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৪, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

মাদ্রাসার কার্যক্রম নেই, তবুও বই উত্তোলন

তানভীর হাসান তানু : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০১-১০ ৭:৪১:২৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০১-১০ ৭:৪১:২৩ পিএম
মাদ্রাসার মাঠ, এখন ভবন নেই

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁও পৌর শহরের বসিরপাড়ার হবিবর রহমান মহিলা মাদ্রাসার ভবন নেই। নেই কোনো কার্যক্রম। কিন্তু শিক্ষার্থীদের নাম করে তিন বছর যাবত সরকারি পাঠ্য বই উত্তোলন করছেন মাদ্রাসাটির সুপার নজরুল ইসলাম।

সরেজমিন গিয়ে জানা গেছে, ১৯৯০ সালে পৌর শহরের বসিরপাড়া নামক স্থানে স্থানীয় সমাজ সেবক হবিবর রহমান নারী শিক্ষাকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য একটি মাদ্রাসা স্থাপনের উদ্যোগ নেন। পরে ৪১ শতক জমির উপর কাঁচা ঘর নির্মাণ করে হবিবর রহমান মহিলা মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করা হয়। স্থানীয়দের প্রচেষ্টায় কয়েক বছর ধরে ভালোই চলছিল মাদ্রাসার কার্যক্রম। কিন্তু দীর্ঘদিন এমপিওভুক্ত না হওয়ায় ঝিমিয়ে পড়ে পাঠদানসহ সকল কার্যক্রম। বিভিন্ন সময় মাদ্রাসার নামে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে অনুদান আসলে মাদ্রাসার সুপার একাই উত্তোলন করে অনুদান আত্মসাৎ করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। দীর্ঘ ৫/৬ বছর যাবত মাদ্রাসার কাঁচা ঘরগুলো নষ্ট হয়ে যাওয়ায় বর্তমানে বিলুপ্ত হয়েছে মাদ্রাসাটি। নেই কোনো অফিস ও ক্লাস রুম। নেই কোনো শিক্ষার্থী। কিন্তু ২০১৩ সাল থেকে শিক্ষার্থীদের নাম করে মাদ্রাসার সুপার সরকারের দেওয়া বিনামূল্যের পাঠ্যবই উত্তোলন করছেন। এবারও তিনি ১১০ সেট বই উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস হতে উত্তোলন করেছেন।

ওই মাদ্রাসার শিক্ষক জাহিরুল ইসলাম শামীম বলেন, মাদ্রাসা দীর্ঘদিন যাবত এমপিওভুক্ত না হওয়ায় কোনো কার্যক্রম নেই। সুপার কেন শিক্ষার্থীদের নামে প্রতি বছর বই উত্তোলন করেন, তা তারা জানেন না।

বসিরপাড়া এলাকার সাদেকুল ইসলাম জানান, হবিবর রহমান মহিলা মাদ্রাসা কয়েক বছর আগে বন্ধ হয়ে গেছে। এখন মাদ্রাসার মাঠে এলাকার শিশুরা খেলাধুলা করে।

হবিবর রহমান মহিলা মাদ্রাসার সুপার নজরুল ইসলাম বলেন, ‘মাদ্রাসাটি এমপিওভুক্ত করার জন্য আমরা জোর চেষ্টা চালাচ্ছি। মাদ্রাসার শিক্ষার্থী আছে বলেই বই উত্তোলন করা হচ্ছে। ভবন না থাকায় আপাতত শিক্ষার্থীরা ক্লাসে আসতে পারছে না।’

হবিবর রহমান মহিলা মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি একরাম হোসেন বলেন, ‘বই উত্তোলনের বিষয় আমি জানি না। এমপিওভুক্ত না হওয়ায় মাদ্রাসার কার্যক্রম বর্তমানে বন্ধ রয়েছে।’

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার পারভীন আক্তার বলেন, মাদ্রাসার কার্যক্রম বন্ধ থাকার বিষয়টি তারা জেনেছেন। শিক্ষার্থীদের নামে বই উত্তোলনের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



রাইজিংবিডি/ঠাকুরগাঁও/১০ জানুয়ারি ২০১৭/তানভীর হাসান তানু/বকুল

Walton Laptop