ঢাকা, বুধবার, ১২ বৈশাখ ১৪২৫, ২৫ এপ্রিল ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

মৌলভীবাজারে শিল্প নগরীর বর্জ্যে ভোগান্তিতে কৃষক

তানভীর আঞ্জুম আরিফ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০৪-১৫ ১:৩৭:১৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৪-১৫ ১:৩৭:১৩ পিএম

মৌলভীবাজার সংবাদদাতা : পরিবেশের জন্য বিপজ্জনক হয়ে উঠেছে মৌলভীবাজারের বিসিক শিল্প নগরী থেকে নির্গত দূষিত পানি।

বিভিন্ন কল কারখানার তরল বর্জ্য আশ-পাশের জলাশয়ে মিশে পানি ব্যবহার অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এমনকি  পার্শ্ববর্তী কৃষি জমিতে পড়ায় ফসলও নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। দীর্ঘদিন এ অবস্থা চললেও পরিবেশ অধিদপ্তরের আইনকানুনের তোয়াক্কা করছে না কোন প্রতিষ্ঠান। পরিবেশ দূষণই মৌলভীবাজার বিসিকের প্রধান কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

একটি সূত্র মতে, বিসিকের কারখানার তরল বর্জ্য মিশ্রিত পানির কারণে ১০০ থেকে ১৫০ বিঘা জমিতে এবছর কোন ফসল হয়নি। এমনকি শিল্প নগরীর আশে পাশের এলাকাগুলোর মানুষ পানি ব্যবহার নিয়ে পড়েছেন চরম ভোগান্তিতে।

পরিবেশ আইনে প্রত্যেকটি কারখানার বর্জ্য শোধনাগার থাকার কথা থাকলেও এই বিসিকের শিল্প কারখানায় তা মোটেও নেই। এ নিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা একাধিকবার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কাছে অভিযোগ দিলেও কোনো কাজ হয়নি। যার কারণে বারবার আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন এলাকার কৃষক।

গোমরা এলাকার বাসিন্দা ইউসুফ মিয়ার বলেন, ‘বিসিকের রাবার কোম্পানি, ব্যাটারি কোম্পানি ও এরিয়েল কোম্পানির ময়লা পানি আমাদের কৃষি জমির ব্যাপক ক্ষতি সাধন করছে। দু’ফসলা জমিতে এখন কোন ফসল হয় না। এ বছর আমি ৩ বিঘা জমিতে বোরো ধানের চারা রোপন করেছি, কিন্তু এসিড মিশ্রিত পানির কারণে আমার সমস্ত ফসল জ্বলে গেছে।’

এই এলাকার মছব্বির মিয়া বলেন, ‘আমরা ময়লা পানির কারণে কৃষি কাজ করতে পারিনা, হাওরে নামলে শরীরের যে অংশে ময়লা পানি লাগে চুলকায় এবং পচন ধরে। ময়লা পানির দুর্গন্ধেও পরিবেশ দূষিত হচ্ছে এবং দিন দিন শ্বাস-কষ্ট জনিত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।’

ইউসুফ মিয়া নামে একজন কৃষক বলেন, ‘আমরা কয়েকবার বিসিক কার্যালয়ে ও কলকারখানা প্রতিষ্ঠানে সমস্যার কথা বলেছি তারা পানি বন্ধের আশ্বাস দেন কিন্তু দূষিত পানি আসা বন্ধ হয়নি আজো।’

এ বিষয়ে মৌলভীবাজার বিসিক শিল্প নগরীর উপ-ব্যবস্থাপক এ এইচ এম হামিদুল হক চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি এই বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি।



রাইজিংবিডি/মৌলভীবাজার/১৫ এপ্রিল ২০১৮/তানভীর আঞ্জুম আরিফ/টিপু

Walton Laptop