ঢাকা, বুধবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ২৪ মে ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

কাঠমান্ডুর কাণ্ড

(লক্ষ্মণ রেখার বাইরে-১৬)

শান্তা মারিয়া : সেই কোন ছোটবেলায় ফেলুদার অ্যাডভেঞ্চার পড়েছিলাম ‘যত কাণ্ড কাঠমাণ্ডুতে’। তারপর থেকেই নেপালে যাবার ইচ্ছা ছিল প্রবল।

চর থেকে চিরসবুজের ডাকে : ৫ম কিস্তি

ফেরদৌস জামান: নতুন চর দেখতে গিয়ে ব্যর্থ হয়ে ফিরে আসি আমাদের থাকার জায়গায়। দেখি অনেক মানুষের ভিড়ে বাড়ির কর্তার বিদায়-পর্ব চলমান। অর্থাৎ তিনি সদরে যাচ্ছেন।

হেমন্তের পাতাঝরা দিন || শান্তা মারিয়া

(লক্ষ্মণ রেখার বাইরে- ১৫)

আমার জীবনে একটা দিকে খুব মিল লক্ষ্য করেছি। সেটি হলো, জীবনে বেশিরভাগ বিদায়ের ঘটনা ঘটেছে সেপ্টেম্বর-অক্টোবর মাসে।

চর থেকে চিরসবুজের ডাকে || ৪র্থ কিস্তি

ফেরদৌস জামান: দুপুরের খাবার প্রস্তুত- ভাতের সঙ্গে কাঁকড়া ভুনা। আগের রাতে ঘুরতে ঘুরতে মিলে যায় বাজারের একমাত্র কাঁকড়ার আড়ৎ।

সোনায় মোড়ানো সাঁচি

কাজী আশরাফ : গাড়ি ছুটছে ভুপাল ছাড়িয়ে উত্তর দিকে। ফেব্রুয়ারি মাসের মেঘহীন দুপুর। রাস্তার দু’পাশে কখনও সবুজ শস্যের স্নিগ্ধতা আবার কখনও মধ্যপ্রদেশের চিরায়ত রুদ্র রূপ।

প্রফেসর জো ফুট: ওকলাহমার আইকন

(লক্ষ্মণ রেখার বাইরে পর্ব ১৪)

শান্তা মারিয়া: এমন কয়েকজন মানুষ আছেন যাদের সঙ্গে পরিচয় হলে নিজেকে সৌভাগ্যবান বলে মনে হয়। তেমনি একজন মানুষ প্রফেসর জো ফুট।

চর থেকে চিরসবুজের ডাকে || ৩য় কিস্তি

ফেরদৌস জামান : আজকের লক্ষ্য জঙ্গলে বানর দেখা। যাওয়ার জন্য বেশ খানিকটা পথ হাঁটতে হবে; বাজার পেরিয়ে সোজা ডাকাতিয়া ঘাট পর্যন্ত। নামটির সাথে কেমন এক ধরনের ভীতি জড়িত।

ওকলাহমায় এক টুকরো বাংলাদেশ

(লক্ষ্মণ রেখার বাইরে পর্ব ১৩)

শান্তা মারিয়া : আমার চাচাতো বোন নীলুফার সাফিয়া। প্রায় কুড়ি বছর পর তার সঙ্গে দেখা হলো। না, কোনো পারিবারিক অনুষ্ঠানে নয়। দেখা হলো ওকলাহমায়। ২০০৬ সাল।

চর থেকে চিরসবুজের ডাকে || ২য় কিস্তি

ফেরদৌস জামান: আমরা জেনেছি চরটি চর ফ্যাশন থেকে সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন একটি জায়গা। সেখানে থাকার ব্যবস্থা বলতে রয়েছে কেবল স্থানীয়দের ঘরবাড়ি।

রাজনগরের প্রজাপতি

সমীর চক্রবর্তী, রাজনগর (ত্রিপুরা) থেকে ফিরে : ত্রিপুরার প্রজাপতি উদ্যান।এখানে এলে ‘উড়লে আকাশে প্রজাপতি, প্রকৃতি পায় নতুন গতি’ স্লোগানটি নতুন করে মনে হবে আবার। একসঙ্গে অনেক প্রজাপতি দর্শনের আনন্দে যে কারোর মনই নেচে উঠবে আনন্দে।

সমুদ্র-পাহাড়ের মিলন মেলায় বাড়ছে পর্যটক

রফিকুল ইসলাম মন্টু, দরিয়া নগর, কক্সবাজার ঘুরে : সমুদ্র মিলেছে পাহাড়ে। সমুদ্রের নোনাজলের ঢেউ এসে আঁছড়ে পড়ছে পাহাড়ের পাদদেশে।

ইউ আর দ্য রিজন গড মেড ওকলাহমা

(লক্ষ্মণরেখার বাইরে-১২)

শান্তা মারিয়া : ঝকঝকে তকতকে বিশাল ওকলাহমা সিটি আর নরম্যান নামের ছোট্ট শহর। যেখানেই যাচ্ছি ঝাঁ চকচকে অফিস, ঠাঁটবাট দেখে চোখ ট্যারা হয়ে যাচ্ছে।

চর থেকে চিরসবুজের ডাকে

(সূচনা পর্ব)

ফেরদৌস জামান : ভ্রমণের ক্ষেত্রে পারতোপক্ষে বরাবরই বৈচিত্র্য রেখে চলার চেষ্টা করি। যদিও ইদানিং পাহাড় প্রাধান্য পাচ্ছে। এই যেমন দশ-বারো বছর আগে ঝোঁকটা ছিল প্রত্যন্ত চরাঞ্চল আর সমতলের ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জাতি-গোষ্ঠীপ্রধান এলকা ঘুরে দেখা।

ওকলাহমা বিশ্ববিদ্যালয়ে || শান্তা মারিয়া

(লক্ষ্মণরেখার বাইরে ১১তম পর্ব)

বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস দেখেই চোখ জুড়িয়ে গেল। এমন পরিবেশ দেখলে মনে হয় আবার ভর্তি হয়ে যাই। ফিরে যাই মধুময় শিক্ষার্থী জীবনে। ওকলাহমা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেকগুলো কলেজ।

হঠাৎ একদিন ভাসানীর সন্তোষে

ফেরদৌস জামান : অতি পরিচিত একটি নাম ‘ভাসানী’। যদিও এটি তাঁর আসল নাম নয়। লুঙ্গি পরিহিত তালের টুপি মাথায় দেয়া আব্দুল হামিদ খান নামক লোকটি পিতা-মাতা প্রদত্ত নামের চেয়ে উক্ত নামেই সমধিক পরিচিত।