ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ কার্তিক ১৪২৫, ১৬ অক্টোবর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

বাংলাদেশে ডায়াসপোরা সাহিত্যপাঠে সমস্যা

|| মোজাফ্‌ফর হোসেন ||

বাংলাদেশে স্বদেশি ডায়াসপোরা লেখকদের ক্ষেত্রে মোটা দাগে দুটি অভিযোগ ওঠে। এক. তারা বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ লেখক নন; কিন্তু তারা বিশ্বে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন।

ইলেকশান ফিলেকশান পার্ট-টু || শরীফ আতিক-উজ-জামান

‘ও নবা কাকা, এ কী কামডা করলে? সক্কালবেলায় আসে আমার কুশোরির ক্ষেতের গুড়ায় ঢালতিছ? 

শার্ল বোদলেয়ার ও তাঁর কবিতা

ফরাসি কবিতায় শার্ল বোদলেয়ার (১৮২১-১৮৬৭) সাহসী এক সম্রাট। কবিতাকে তিনি দিয়েছেন নতুন মাত্রা। 

একটি সম্ভাব্য গল্পের প্রাক ভাবনা || মাহবুব রেজা

অফিস আওয়ারে নিসতার জামাল পারতপক্ষে কারো সাথে খুব একটা কথা-টথা বলেন না। কী লাভ অযথা কথা বলে!

এক মিনিট নীরবতা || অমর মিত্র

সন্ধের পর বাইরে বেরিয়েছিল অচিন। এমনি। সারাদিন টিপটিপ বৃষ্টি হয়েছে। বিকেল থেকে ধরেছে আকাশ। এবার হয়তো শীত পড়তে পারে। নভেম্বরের শেষ।

মা || ফিরোজ আলম

রাজিবের যখন ঘুম ভাঙলো তখন চারদিকে বেশ রোদ উঠে গেছে। আসলে জানালা দিয়ে বিছানার উপর আছড়ে পড়া এক চিলতে রোদের তাপেই তার ঘুম ভেঙেছে।

চলচ্চিত্রে নজরুলের গান || অনুপম হায়াৎ

নির্ধারিত বিষয়ে আলোচনার আগে অবিভক্ত বাংলায় কলকাতার চলচ্চিত্রে নজরুলের অবদান সম্পর্কে আলোকপাত করা প্রয়োজন।

গরু বিদায় || সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম

অকৃতদার মন্টু মামা তার জীবনের অকৃত কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ কর্মটির অর্থাৎ বিবাহের দ্বার রুদ্ধ করার আগে আমাদের শেষ চেষ্টায় সম্মতি জানিয়েছিলেন।

ঈদের স্মৃতি ও সঞ্চয় || সেলিনা হোসেন

শৈশব-কৈশোরের সময়ের ঈদ ছিল শুধুই উৎসব। অনাবিল আনন্দে দিন উদযাপন। নতুন জামা কখন কেনা হবে, মাংস-পোলাও কখন রান্না হবে- এসবই ছিল ছোটবেলার ঈদ।

উৎসবের কেন্দ্রে এখন ঈদ নেই || রিজিয়া রহমান

আমার কিশোরীবেলার শুরুর সময়টা কেটেছে পশ্চিমবঙ্গের ভবানীপুরে। অন্য দশটা শিশুর মতো আনন্দ-উচ্ছ্বাসে কেটে যেত সময়।

কৃষকের ঈদ || মোহাম্মদ ওয়াজেদ আলী

সংগ্রহ ও ভূমিকা : কাজী জাহিদুল হক

কৃষকের ঈদ হচ্ছে- খুশীর খবর। কখনো যাকে চোখে দেখিনি, সে-ই নাকি আজ এসেছে। এতে আনন্দ হলে দোষ কী? যে-গান আজও কানে শুনিনি সে তো একটু বেশী মিষ্টিই।

দক্ষিণ এশীয় ডায়াসপোরা সাহিত্য

|| মোজাফ্‌ফর হোসেন ||

পাকিস্তান-পর্ব : পাকিস্তানি ডায়াসপোরা সাহিত্য সম্পর্কে বাংলাদেশ থেকে খুব বেশি জানা যায় না। ঢাকার বইয়ের মার্কেটে পাকিস্তানি ডায়াসপোরা লেখকদের বই তেমন একটা আসে না। সাম্প্রতিক সময়ে আলোচিত দু’একটি বই কোথাও কোথাও পাওয়া যাচ্ছে।

সবসময় আমার ইচ্ছা ছিল ৯২ বছর বাঁচব: মুর্তজা বশীর

মুর্তজা বশীর। বাবা জ্ঞানতাপস ড. মুহম্মদ শহীদুল্লাহ, মা মরগুবা খাতুন। স্বাভাবিকভাবেই এদেশের শিক্ষা, সংস্কৃতির অন্দরমহলে কেটেছে তাঁর শৈশব।

সে এক ঢাকাযাত্রার গল্প || রফিকুর রশীদ

লোকটাকে কিছুতে ঠেকানো গেল না, সে ঢাকা যাবেই, তার চোখমুখের অভিব্যক্তি দেখে বেশ স্পষ্ট বুঝা যায় এখনই ঢাকার উদ্দেশে রওনা না-হলেই নয়; যত দ্রুত সম্ভব ঢাকায় তাকে পৌঁছুতেই হবে।

শেষ পর্যন্ত লেখক নিজেই নিজের মিথ: ভি এস নাইপল

‘এটি ছিল আমার জন্য বিষাদগ্রস্ত। গভীর দুঃখ অনুভব করেছিলাম।’ স্যার ভি এস নাইপল তার মৃত বিড়াল নিয়ে কথা বলছেন।