ঢাকা, শুক্রবার, ১০ আষাঢ় ১৪২৪, ২৩ জুন ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

রুস্তম সিংয়ের তরবারি || বিশ্বজিৎ চৌধুরী

জোড়দিঘির ভাঙা ঘাট পেরিয়ে বাড়ির প্রায় কাছাকাছি এসে সে দেখতে পেল কৃষ্ণা দাঁড়িয়ে আছে। রাত বাড়লে মাঝে মাঝেই এসে দাঁড়ায়।

লেখক ছাড়া আমি অন্য কিছু হতে চাইনি: সেলিনা হোসেন

সেলিনা হোসেন। গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ, গবেষণা- বাংলা সাহিত্যের সব শাখাতেই তাঁর রয়েছে সাবলীল বিচরণ। ছোটদের জন্যও তিনি লিখেছেন অজস্র।

জসীমউদ্‌দীনের লোকজীবন ভাবনা: প্রসঙ্গ ‘নক্সী কাঁথার মাঠ’

তাশরিক-ই-হাবিব: জসীমউদ্‌দীনের প্রধান পরিচয়, তিনি কবি। উপন্যাস, গল্প, লোকগাথা, লোকসঙ্গীত, ছড়া, প্রবন্ধ, ভ্রমণকাহিনী, স্মৃতিকথা প্রভৃতি লেখা, সংগ্রহ ও সংকলনের মাধ্যমে  অন্তর্গত মনস্বিতা ও শিল্পবোধ নানাভাবে আজীবন বিচ্ছুরিত করলেও তাঁর কথা মনে এলেই কবিতাপ্রিয় পাঠকের  মনে পড়ে পল্লির জনমানুষের বিবিধ চালচিত্র।

পরিচয় || আফসানা বেগম

মাঠের শেষ প্রান্তে ফ্যাকাশে ধূসর সিমেন্টের দেয়ালে একটি মেয়ে গোবরের বৃত্ত বসিয়ে দেয়ায় ব্যস্ত। এলোমেলো বেড়ে ওঠা ঝোঁপের পাশে দাঁড়িয়ে তার কাজ দেখে আরিয়ান।

অরণ্যের জন্য অরণ্যে রোদন || বিপ্রদাশ বড়ুয়া

প্রকৃতির উপর গায়ের জোরে প্রভুত্ব করতে গিয়ে মানুষ তার ভুল বুঝতে পেরেছে মাত্র কিছুকাল আগে।

ফ্রান্‌ৎস কাফকা, শতাব্দী সেরা প্রভাবশালী সাহিত্যিক

রুহুল আমিন : এক সকালে গ্রেগর সামসা ভয়ঙ্কর স্বপ্ন শেষে ঘুম ভেঙে দেখতে পান যে তিনি বিছানায় একটি প্রকাণ্ড পোকায় রূপান্তরিত হয়ে আছেন।

রুদাকী: শূন্য থেকে সহস্রাব্দ পেরিয়ে

মুহাম্মদ ফরিদ হাসান :

‘রুদাকীর হাতে দেখ বাজে বীণার তার

ঢালো সুরা, উঠুক বেজে সংগীতের ঝঙ্কার।’

অনুবাদ গল্প: গুরুত্ব

মিসেস হারমোসিলা দেল ফ্রেসনো বিধবা এবং অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নারী। এত বড় শহরে, যেখানে এত শত গুরুত্বপূর্ণ নারীর বাস, সেখানে মিসেস হারমোসিলা দেল ফ্রেসনোর মতো গুরুত্বপূর্ণ নারী আর কেউ নেই।

মঞ্জু সরকারের গল্প || শিকড়ের রস

গ্রামে আসার পর দাদিকে জড়িয়ে ধরে পিয়া যে সহাস্য সেলফি তুলে, ফেইসবুকে পোস্টের সময় তাতে স্ট্যাটাস দিয়েছে: আমাদের দুজনের মধ্যে ব্যবধান আকাশ-পাতাল তবু অশীতিপর এ বৃদ্ধাকে জড়িয়ে ধরে মন অনাবিল সুখে ভরে ওঠে কেন?

বহুমাত্রিক সৃষ্টিশীলতায় অনন্য নজরুল॥ আহমদ রফিক

তিরিশের (১৯৩০) দশকের শেষ দিক থেকে চল্লিশের দশকের অবিভক্ত বঙ্গে রাজনৈতিক-সাংস্কৃতিক টালমাটাল সময়, তার তীব্র ঝাঁজালো বারুদ গন্ধের দিনগুলো তারুণ্যের চেতনা আলোড়িত করেছিল।

দ্রোহ ও বেদনার কবি কাজী নজরুল

|| অজয় দাশগুপ্ত ||
কাজী নজরুল ইসলাম আমাদের বেদনার কবি। তাঁকে আমরা নানাভাবে ব্যাখ্যা করার নামে মূলত জালে আবদ্ধ করে ফেলি। সেই কবে থেকে শুরু হয়েছে এর যেন শেষ নাই।

টেক্সাসান জীবন থেকে : ১৪তম পর্ব

দিলরুবা আহমেদ : ছেলে খুশি তাতেই সে খুশি। রেবেকার খুশিতে আমিও খুশি হই। ব্রেন্ডা বয়সে জেইসনের থেকে বছর তিনেক বড় আবার হেভি মোটা।

‘কবি পোষা পাখি হয়ে গেলে বুঝতে হবে সমাজ নষ্ট হয়ে গেছে’

সমকালীন বাংলা কবিতায় হেলাল হাফিজ এক রাজকুমারের নাম। প্রতিবাদ ও প্রেম, দ্রোহ আর বিরহের এই কবি অকল্পনীয় নৈপুণ্য ও মমতায় শব্দের মালা গেঁথে কবিতাপ্রেমী মানুষকে অনির্বচনীয় আমোদ দিয়ে চলেছেন।

রাধিকার সঙ্গে মেট্রো রেলে

|| শুভদীপ বড়ুয়া ||

রাধিকাকে দেখতাম সকাল সাড়ে ৭টার মেট্রোর সিটে বসে এক মনে অ্যালিস্টেয়ার ম্যাকলিনের ‘সান্তোরিনি’ পড়তে।

ধর্ষণ গুরুতর অপরাধ: কোনো অজুহাতই গ্রাহ্য নয়

পূরবী বসু : চট্টগ্রামের বিস্তার সাহিত্য গোষ্ঠীর মাহিয়া আবরারের কাছ থেকে সদ্য আসা পোস্টারটি যা এই লেখার সঙ্গে গাঁথা রয়েছে, আমার আজকের মন্তব্যের প্রণোদনা।