ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৩ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

কৃষি খাতে ৪০ ভাগ বরাদ্দসহ ১০ দাবি

আরিফ সাওন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৪-২৬ ৩:৫৯:৩৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-০৪ ৪:২৬:২৮ পিএম
Walton AC

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় বাজেটে উন্নয়নের জন্য শতকরা ৪০ ভাগ কৃষি খাতে বরাদ্দ করাসহ ১০ দফা দাবি জানিয়েছে সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর, কৃষক ফ্রন্ট ও বাসদ।

বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে সমাজতান্ত্রিক ক্ষেতমজুর, কৃষক ফ্রন্ট ও বাসদের নেতারা এ দাবি জানান।

তাদের দাবিগুলো হলো-উৎপাদন খরচের সাথে শতকরা ৩০ ভাগ মূল্য যুক্ত করে কৃষি ফসলের দাম নির্ধারণ ও প্রতি ইউনিয়নে সরকারি উদ্যোগে কৃষকের কাছ থেকে ফসল ক্রয়ের ব্যবস্থা করতে হবে, ক্ষেতমজুরদের সারা বছরের কাজ দিতে হবে, সাব-রেজিস্ট্রি, সেটেলমেন্ট, ভূমি অফিস, কৃষি ব্যাংক, পিডিএফ এবং পল্লী বিদ্যুতের ঘুষ দুর্নীতি ও হয়রানি বন্ধ করতে হবে, গ্রামীণ প্রকল্পের বরাদ্দ বাড়াতে হবে এবং ঘুষ দুর্নীতি অনিয়ম ও দলীয়করণ বন্ধ করতে হবে, হাট বাজারের ইজারাদের দূরত্ব ও দ্বিমুখী টোল আদায় বন্ধ করতে হবে, বিডিসিকে সচল করতে হবে, চাল ডালসহ সকল নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম কমাতে হবে, অসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট বন্ধ করতে হবে এবং কৃষি জমি সুরক্ষায় আইন প্রণয়ন করতে হবে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ একটি কৃষি প্রধান দেশ। এই দেশে মোট গ্রামীণ শ্রমশক্তির শতকরা ৬০ ভাগের বেশি কৃষি কাজে নিয়োজিত। জিডিপির প্রায় ১৬ শতাংশ আসে এ কৃষি খাত থেকে। বর্তমান কৃষি খাত আজ নানামুখী সংকটে জর্জরিত। অন্যদিকে অসাধু মুনাফালোভী ব্যবসায়ীরা এসব কৃষি উপকরণে ভেজাল মিশাচ্ছে ফলে কৃষক ফসলের ন্যায্য দাম পাচ্ছে না।

বক্তারা আরো বলেন, দেশে কৃষিভিত্তিক শিল্প স্থাপন করে বেকার সমস্যা সমাধানের সরকারি কোনো উদ্যোগ নেই। নেই কোনো রেশনিং ব্যবস্থা। অপরিকল্পিতভাবে ইটভাটা, রাস্তাঘাট, ঘরবাড়ি, আবাসন, কলকারখানা, নির্মাণে ফলে প্রতি বছর ১ শতাংশ হারে কৃষি জমি অকৃষি খাতে চলে যাচ্ছে। এতে দেশের খাদ্য নিরাপত্তার মারাত্মক হুমকির মুখে পড়ার সম্ভাবনা ক্রমেই বাড়ছে।

দেশে কৃষি কৃষক এবং ক্ষেতমজুদের দেশ বাঁচাতে ঐক্য বদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তারা।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন-নিখিল দাস, খালেকুজ্জামান, বেলায়েত হোসেন, জুলফিকার আলী প্রমুখ।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৬ এপ্রিল ২০১৮/সাওন/সাইফ

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge