ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৩ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

আরাফাত সানীর জামিনের মেয়াদ বাড়ল

মামুন খান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০৮-২৮ ৪:১৬:৫০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৮-২৮ ৪:১৬:৫০ পিএম
Walton AC

নিজস্ব প্রতিবেদক : নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়ের করা মামলায় আত্মসমর্পণ করে ফের জামিনের মেয়াদ বাড়িয়ে নিয়েছেন ক্রিকেটার আরাফাত সানী।

সপ্তম দফায় আরাফাত সানীর জামিনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আজ সোমবার। অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের মেয়াদ শেষ হতে যাওয়ায় ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন আরাফাত সানী।

সংশ্লিষ্ট আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক জাহিদুল কবির আরাফাত সানীকে আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জামিন মঞ্জুর করে নাসরিন সুলতানার সঙ্গে সমঝোতার পরামর্শ দেন। আরাফাত সানীর পক্ষে শুনানি করেন এম জুয়েল আহম্মদ এবং মুরাদুজ্জামান।

তারা বলেন, জামিনের মেয়াদ শেষ হতে যাওয়ায় আদালতে হাজির হয়েছেন আরাফাত সানী। আরাফাত সানী ও নাসরিন সুলতানার মধ্যে সমঝোতার কথা-বার্তা চলছে। আশা করছি, দ্রুত আমরা সমঝোতায় পৌঁছাতে পারব।

এদিকে এ মামলায় আরাফাত সানীর বিরুদ্ধে মামলার চূড়ান্ত প্রতিবেদন দিয়েছে পুলিশ। সে বিষয়ে আদালতকে অবগত করেছেন আইনজীবীরা।

এদিকে গত ২৫ আগস্ট আরাফাত সানীর সঙ্গে ঝগড়া করে ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন নাসরিন সুলতানা। এ বিষয়টি রাষ্ট্রপক্ষ আদালতকে জানিয়ে আরাফাত সানীর জামিনের বিরোধিতা করে বলে জানান আরাফাত সানীর আইনজীবী মুরাদুজ্জামান।

উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত ১৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আরাফাত সানীকে জামিন দেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকার ৪ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলাটি করেন আরাফাত সানীর স্ত্রী নাসরিন সুলতানা।

মামলায় বলা হয়, সাত বছর আগে পরিচয়ের সূত্র ধরে উভয়ের ঘনিষ্ঠতা হয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক হয়। ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর অভিভাবকদের না জানিয়ে তারা বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়ের তিন বছরেও আরাফাত সানী দুই পরিবারের সঙ্গে আলোচনা করে নাসরিন সুলতানাকে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘরে তুলে নেননি। বারবার এ বিষয়ে চাপ দিলেও তিনি কালক্ষেপণ করেন।

এর পর গত বছর ১২ জুন রাত ১টা ৩৫ মিনিটে নাসরিন সুলতানা নামের একটি ভুয়া ফেসবুক আইডি থেকে নাসরিন সুলতানার আসল ফেসবুক মেসেঞ্জারে সানী-নাসরিনের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি পাঠানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে তথ্য প্রযুক্তি আইনে মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন নাসরিন সুলতানা। ওই মামলায় আরাফাত সানী রিমান্ডে থাকা অবস্থায় গত ২২ জানুয়ারি তার মা নার্গিস আক্তার থানার সামনে বাদীকে মারধর করেন। এ বিষয়ে ওই দিন থানায় অভিযোগ করলেও পুলিশ কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় আদালতে মামলা করেন নাসরিন সুলতানা।

উল্লেখ্য, আরাফাত সানীর বিরুদ্ধে নাসরিন সুলতানা নারী নির্যাতনের মামলা ছাড়াও যৌতুক আইনে একটি মামলা এবং তথ্য প্রযুক্তি আইনে আরেকটি মামলা দায়ের করেছেন। নারী নির্যাতনের মামলায় গত ২২ মার্চ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ। চার্জশিটে আরাফাত সানীর সঙ্গে যে নাসরিন সুলতানার বিয়ে হয়েছিল, চার্জশিটে তা উল্লেখ করেন তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদপুর থানার এসআই মো. ইয়াহিয়া।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৮ আগস্ট ২০১৭/মামুন খান/রফিক

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge