ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ ফাল্গুন ১৪২৩, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭
Risingbd
অমর একুশে
সর্বশেষ:

লিটন হত্যায় একজনসহ ৮ জামায়াত কর্মী জেলহাজতে

মোমেনুর রশিদ সাগর : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০১-১৯ ৪:১৩:৫২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০১-১৯ ৪:১৩:৫২ পিএম

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য মনজুরুল ইসলাম লিটন হত্যায় সন্দেহভাজন একজনসহ জামায়াতে ইসলামীর আটজন কর্মীকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়। এরআগে, বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এদের মধ্যে সুন্দরগঞ্জ থানা জামায়াতের আমীর ইউনুস আলীর ছেলে সাইফুল ইসলামকে (৩৫ লিটন হত্যায় জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার করা হয়। তার বাড়ি সুন্দরগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ শিবরাম গ্রামে। গ্রেপ্তারকৃত অন্যদের নাম তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিয়ার রহমান জানান, এমপি লিটন হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেপ্তারে চলমান অভিযানের অংশ হিসেবে জামায়াত কর্মী সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়। বাকি সাতজন জামায়াত কর্মীর বিরুদ্ধে একাধিক নাশকতা মামলা রয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গত ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় মোটরসাইকেলে আসা দুর্বৃত্তরা দেখা করার কথা বলে এমপি মনজুরুল ইসলাম লিটনের সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের মাস্টারপাড়ার নিজ বাড়িতে প্রবেশ করে। এ সময় লিটনকে লক্ষ্য করে পরপর কয়েক রাউন্ড গুলি করে মোটরসাইকেলে পালিয়ে যায় তারা। গুরুতর অবস্থায় রংপুর মেডিক্যাল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা দ্রুত তাকে অপারেশন থিয়েটারে নেন। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ওই ঘটনায় লিটনের বোন তাহমিদা বুলবুল কাকলি বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।



রাইজিংবিডি/গাইবান্ধা/১৯ জানুয়ারি ২০১৭/মোমেনুর রশিদ সাগর/বকুল