ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ চৈত্র ১৪২৩, ২৩ মার্চ ২০১৭
Risingbd
মার্চ
সর্বশেষ:

আইএসযোদ্ধা নিয়াজের পরিচয় নিয়ে চট্টগ্রামে ব্যাপক আলোচনা

রেজাউল করিম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৩-১৭ ২:৪৯:৪৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৩-২৩ ৮:৩৭:৩২ এএম
নিয়াজ মোর্শেদ রাজা

রেজাউল করিম, চট্টগ্রাম : সম্প্রতি আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) এক আত্মঘাতী যোদ্ধার পরিচয় নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে। বলা হয়েছে, এই যোদ্ধা বাংলাদেশি এবং বাড়ি চট্টগ্রামে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ওয়েব সাইট ‘সাইট ইনটেলিজেন্স’ গত ১৫ মার্চ নিয়াজ মোর্শেদ রাজা নামের এই আইএস আত্মঘাতী যোদ্ধার ভিডিও প্রকাশ করে। ভিডিও এবং ওয়েবসাইটে ছবি প্রকাশের পর চট্টগ্রাম জুড়ে এই নামটি আলোচিত হচ্ছে।

স্থানীয় অনেকে বলেছেন, নিয়াজ মোর্শেদ রাজা চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলার খন্দকিয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা।  চট্টগ্রামের সবচেয়ে দামি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল ‘চিটাগাং গ্রামার স্কুল (সিজিএস)’ থেকে এ লেভেল সম্পন্নকারী নিয়াজ মোর্শেদ ২০১৫ সালে নিখোঁজ হন।

নিয়াজ মোর্শেদ রাজাকে নিজের ছোট ভাই বলে পরিচয় দিয়েছেন হাটহাজারী উপজেলার খন্দকিয়া ইউনিয়নের একেএম কামাল উদ্দিনের মেয়ে জান্নাতুল মাওয়া। তিনি বলেছেন, ‘তিন বোন এক ভাইয়ের মধ্যে নিয়াজ সবার ছোট। নিয়াজ চট্টগ্রামের ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল চিটাগাং গ্রামার স্কুল থেকে এ লেভেল সম্পন্ন করে অস্ট্রেলিয়া চলে যান। সেখানে ব্রুকলিন ইউনিভার্সিটি থেকে ব্যবসায় প্রশাসন ও তথ্যপ্রযুক্তির ওপর উচ্চতর ডিগ্রি লাভ করেন। গ্র্যাজুয়েশন শেষ করে ২০১১ সালে দেশে ফিরে আসেন। একই সালে বাবা একেএম কামাল উদ্দিন মারা যান। এর কিছুদিন পর বিয়ে করেন নিয়াজ। বাবার মৃত্যুর পর দেশেই বাস করছিলেন তিনি। তার দুটি সন্তান রয়েছে। নিয়াজের স্ত্রী-সন্তানরা ঢাকায় বাস করছে।’

জান্নাতুল মাওয়া বলেন, ‘হঠাৎ করে নিয়াজ বদলে যেতে শুরু করে। ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের একজন প্রাক্তন ছাত্র, বিদেশের বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর ডিগ্রিধারী নিয়াজ নামাজ-কালাম আর ইসলামি বিষয় নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। ২০১৫ সালের মার্চ মাসের কোনো এক শুক্রবার ঢাকার বাড্ডা এলাকার বাসা থেকে জুমার নামাজ পড়ার জন্য বের হয়ে সে আর ফিরে আসেনি। তার খোঁজ না পেয়ে বাড্ডা থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করেন পরিবারের সদস্যরা। এ ঘটনার প্রায় ছয় মাস পর একটি মাধ্যমে খবর পাঠায় যে, বাংলাদেশ ছেড়ে সে চলে গেছে। যেখানে আছে ভালো আছে এবং সুস্থ আছে। এর বেশি কিছু আর জানায়নি। পরে অবশ্য বিভিন্ন সময়ে নিয়াজ ফোন করে পরিবারের খোঁজ খবর নিয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘সর্বশেষ কয়েক মাস আগে অপরিচিত একটি নম্বর থেকে ফোন করে নিয়াজের সহযোদ্ধা পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তি বলেন, ‘আইএসের যোদ্ধা হিসেবে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিয়াজ নিহত হয়েছেন। খবরটি জানার পর পুরো পরিবারে এর প্রভাব পড়ে। নিয়াজের মৃত্যু সংবাদটি কাউকে জানানো হয়নি। এখন ‘সাইট ইনটেলিজেন্স’ ভিডিও প্রকাশের পর পুরো ঘটনাটি জানাজানি হয়েছে।’




রাইজিংবিডি/চট্টগ্রাম/১৭ মার্চ ২০১৭/রেজাউল/উজ্জল/শাহনেওয়াজ

Walton Laptop