ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

স্বামী-স্ত্রীকে ন্যাড়া করে জুতার মালা পরিয়ে নির্যাতন

শেখ মহিউদ্দিন আহাম্মদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৪-১৬ ৭:০১:৪৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৪-২৩ ৭:১৮:১৬ পিএম
নির্যাতনের শিকার কায়েস-লক্ষ্মী দম্পত্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ময়মনসিংহ : জেলার ফুলবাড়ীয়ায় এক নারীর সঙ্গে পাশের গ্রামের এক ব্যক্তির অবৈধ সম্পর্কের অভিযোগ তুলে গ্রাম্য শালিসে দম্পতির মাথা ন্যাড়া করে, ওই নারীকে জুতার মালা পরিয়ে নির্যাতন করা হয়েছে।

ফুলবাড়ীয়া উপজেলার রাঙ্গামাটিয়া ইউনিয়নের হাতিলেইট গ্রামের বিল পাড়ায় গত বুধবার রাতে শতাধিক মানুষের উপস্থিতিতে কয়েস চন্দ্র বর্মণ ও লক্ষ্মী রাণী বর্মণের মাথা ন্যাড়া করে পিটিয়ে লক্ষ্মী রাণীর গলায় জুতার মালা পরিয়ে অপদস্ত করা হয়। এ ছাড়া তাদের ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।  

ওই দম্পতিকে বাড়ি থেকে বের হতে না দেওয়ায় পিটুনিতে অসুস্থ কয়েস চন্দ্র বর্মণের চিকিৎসা বাড়িতে করতে হচ্ছে। শালিসে দাবিকৃত ৪০ হাজার টাকা দেওয়ার জন্য হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

বৃস্পতিবার সরেজমিন ওই দিনমজুর দম্পতির সঙ্গে কথা বলে এ সব বিষয় জানা গেছে। ঘটনাটি প্রকাশ হওয়ার পর এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেপ্তার দাবি করেছেন।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্র জানান,  হাতিলেইট গ্রামে ক্ষুদ্র-নৃগোষ্ঠী মান্দাই সম্প্রদায়ের দেড় শতাধিক পরিবারের বসবাস। এ জনগোষ্ঠীর মিত্র মোহন বর্মণের ছেলে কয়েস বর্মণ ১৮ বছর আগে ঘাটাইল উপজেলার ফকির চালা গ্রামে বিয়ে করেন। তাদের বৈবাহিক জীবনে এসেছে দুই কন্যা সন্তান। এক বছর আগে পাশের বাক্কুর চালা গ্রামের ইবির আলীর সঙ্গে বন্ধুত্ব হয় কয়েস বর্মণের। এরপর তাদের পারিবারিকভাবে যাওয়া-আসা ছিল। গত বুধবার দুপুরে লক্ষ্মী রাণী বর্মণ ইবির আলীর বাড়িতে বেড়াতে যান। ঘটনাটি জানাজানি হলে মান্দাই পাড়ার মাতব্বররা ক্ষিপ্ত হয়। রাতেই চন্দন বর্মণ, রূপচান, নরেন, পাইলট, পরেশ, কালী মহন বর্মণসহ কয়েকজন মিত্র মোহন বর্মণের বাড়িতে শালিস বসান। শালিসে লক্ষ্মী রাণীর সঙ্গে ইবির আলীর অবৈধ সম্পর্কের অভিযোগ তোলা হয়। দীর্ঘ শালিসে অভিযোগের সত্যতা মেলেনি।

তবুও মাতব্ববরদের রায়ে কয়েস বর্মণ ও লক্ষ্মী রাণী বর্মণকে লাঠি ও জুতাপেটা করা হয়। উভয়ের মাথা ন্যাড়া করার পর লক্ষ্মী রাণী বর্মণকে জুতার মালা পরানো হয় এবং ওই দম্পতিকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ পরিবারটি এখন সামাজিকভাবে একঘরে হয়ে পড়েছে। ঘটনার পর থেকে আশপাশে মুসলমান নারী-পুরুষ তাদের দেখতে আসছে। অসুস্থ হয়ে পড়েছেন কয়েস বর্মণ। লক্ষ্মী রাণী বর্মণ বলেন, ‘পাড়ার মাতব্বররা মিথ্যা অভিযোগ তুলে মানুষের সামনে আমার ও আমার স্বামীকে মারপিট করেন। দুইজনের মাথার চুল কেটে দেন। আমাকে জুতার মালা পরিয়ে রাখেন।’

তিনি বলেন, ‘আমার শিশু সন্তানের কান্নায়ও তাদের মন গলেনি। স্বামী দিনমুজুর। দিন আনে দিন খাই। ঘটনার পর থেকে বাড়ি থেকে বের হতে পারছেন না। শিশুরাসহ সবাই খাওয়া দাওয়া প্রায় ছেড়ে দিয়েছে। শুক্রবার অসুস্থ স্বামীকে বাজার থেকে ডাক্তার ডেকে এনে চিকিৎসা করিয়েছি। এজন্য সেই মাতব্বররা বলছেন- গ্রাম ছাড়া করে দেবেন।’

কয়েস বর্মণ বলেন, ‘আমার সঙ্গে ইবির আলী বন্ধুত্বের সর্ম্পক। সেই সুবাধে আমার বাড়িতে আসেন এবং আমার স্ত্রীকে বোন হিসেবে মানেন। মাঝে মধ্যে আমার সঙ্গে বাড়িতে আসেন। আবার আমার সঙ্গেই চলে যান। ১৮ বছরের সংসারে আমি আমার স্ত্রীকে চিনি। আমার স্ত্রীর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছেন। শালিসে প্রমাণ করতে পারেননি।’

শালিসের এক মাতব্বর নবীন বর্মণ বলেন, ‘পাশের গ্রামের ইবির আলীর সঙ্গে লক্ষ্মী রাণীর অবৈধ সম্পর্ক থাকার কারণে তার স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে জানিয়েছি। তারা কোনো ব্যবস্থা নেননি। আমাদের নিয়ম অনুযায়ী তাদের বিচার এবং জরিমানা করা হয়েছে।’

শালিসে অবৈধ সম্পর্কের বিষয়টি প্রমাণিত হয়নি, তাহলে কেন এমন শাস্তি  দেওয়া হলো- জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অবৈধ সম্পর্কের বিষয়টি আমরা শুনেছি।’ 

কয়েস বর্মণের বাবা মিত্র মোহন বলেন, ‘আমার বাড়িতেই শালিস করে, আমার ছেলের স্ত্রীর বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ করা হয়েছে, তা প্রমাণ করতে পারেননি। তারপরও এভাবে শাস্তি দেওয়া হয়েছে।’

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সেকান্দর আলী বলেন, ‘ঘটনাটি ঘটার পরের দিন শুনেছি। এটি দুঃখজনক। অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িত থাকলে দেশের প্রচলিত আইনেই বিচার করা যেত।’ 

ফুলবাড়ীয়া উপজেলা মহিলা পরিষদের সভানেত্রী পারভিন আখতার রেবা বলেন, ‘ঘটনাটি ন্যক্কারজনক। মধ্যযুগীয় বর্বরতাকে হার মানিয়েছে। ঘটনার সঙ্গে  জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।’

ফুলবাড়ীয়া থানার অফিসার ইনচার্জ রিফাত খান রাজিব বলেন, শালিসে স্বামী স্ত্রীকে নির্যাতনের ঘটনায় অভিযোগ পাননি। শনিবার ঘটনার কথা শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



রাইজিংবিডি/ময়মনসিংহ/১৬ এপ্রিল ২০১৭/শেখ মহিউদ্দিন আহাম্মদ/বকুল

Walton
 
   
Marcel