ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ চৈত্র ১৪২৫, ২১ মার্চ ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

নতুন বছরে খুলনায় মামলার সংখ্যা হ্রাস

মুহাম্মদ নূরুজ্জামান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০২-১২ ১১:৩১:০৫ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-১২ ১১:৩১:০৫ এএম
জেলা আইনশৃঙ্খলা এবং সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির মাসিক সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা : নতুন বছরে খুলনায় মামলার সংখ্যা হ্রাস পেয়েছে।বিদায়ী বছরের ডিসেম্বরের তুলনায় চলতি বছরের জানুয়ারিতে সংখ্যা কমেছে ৫৬টি। সে অনুপাতে কমেছে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনেরও অভিযোগ।

ডিসেম্বরে নগর ও জেলার ১৭টি থানায় মোট মামলার সংখ্যা ছিল ৩৬৮টি। আর জানুয়ারিতে কমে দাঁড়িয়েছে ৩০৩টিতে। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত ‘জেলা আইনশৃঙ্খলা’ এবং ‘সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ’ কমিটির মাসিক সভায় এ তথ্য জানানো হয়। রোববার অনুষ্ঠিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোঃ আমিন উল আহসান।

সভায় আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত প্রতিবেদনে জানানো হয়, খুলনা মহানগরীর আটটি থানায় জানুয়ারি মাসে চুরি ৯টি, খুন ১টি, অস্ত্র আইনে ৩টি, দ্রুত বিচারে ১টি, ধর্ষণ ১টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ৫টি, মাদকদ্রব্য ১১৫টি এবং অন্যান্য ২৬টিসহ মোট ১৬১টি মামলা দায়ের হয়েছে। অথচ ডিসেম্বরে এই সংখ্যা ছিল ২২৯টি।

অপরদিকে, জেলার নয়টি থানায় জানুয়ারি মাসে চুরি ২টি, অস্ত্র আইনে ৪টি, ধর্ষণ ৪টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ৯টি, নারী ও শিশু পাচার ১টি ও  মাদকদ্রব্য ৫৩টি এবং অন্যান্য আইনে ৬৯টি সহ মোট ১৪২টি মামলা দায়ের হয়েছে। অথচ ডিসেম্বরে এর সংখ্যা ছিল ১৩৯টি।

সভায় অবৈধ হকার উচ্ছেদ, পলিথিনের যথেচ্ছ ব্যবহার বন্ধ, লাইসেন্সবিহীন যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ ও মাদক নির্মূলে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

পাইকগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান স.ম. বাবর আলী বলেন, পাইকগাছাতে ভূমিদখল ও গাছকাটা চক্রের তৎপরতা বেড়েছে। এগুলো নিয়ন্ত্রণে তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

তেরখাদা উপজেলা চেয়ারম্যান সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু তেরখাদায় মাদকের ভয়াবহ বিস্তারের উল্লেখ করে বলেন, মাদকের কারণে এলাকার পারিবারিক অশান্তিসহ দুষ্কৃতিকারীদের দৌরাত্ম দিন দিন বাড়ছে। মাদক বিষয়ক আলোচনায় গণসচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি এলাকার মাদকসেবীদের বিষয়ে তথ্য দেওয়ার জন্য সভায় আহ্বান জানানো হয়।

সভায় পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের কার্যক্রম ও নজরদারী বাড়ানো এবং যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশকে  ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানানো হয়। পরিবেশ দুষণের অন্যতম কারণ পলিথিনে বাজার ছেয়ে গেছে, তা নির্মূলে মোবাইল কোট চালানো হবে বলে সভাপতি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন। সভায় স্কুল শিক্ষার্থীদের পাঠ্যক্রম যথাসময়ে শেষ করা যাচ্ছে না এবং মানসম্মত পাঠদানে অবহেলা লক্ষ্য করা যাচ্ছে বলেও উল্লেখ করা হয়।  

সভায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, উপজেলা চেয়ারম্যান, কেএমপি, র‌্যাব ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন।



রাইজিংবিডি/খুলনা/১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/মুহাম্মদ নূরুজ্জামান/টিপু

Walton Laptop
 
     
Walton AC