ঢাকা, শনিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৫, ২০ অক্টোবর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

‘প্রলোভনে পড়ে ভিসি স্যারের বিরুদ্ধে মিথ্যা বলেছি’

বাদল সাহা : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৪-২৪ ৪:৩৭:২১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৪-২৪ ৪:৩৭:২১ পিএম

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসির বিপক্ষের যে অংশ রয়েছে তাদের প্রলোভনে পড়ে ও ভয়ভীতি প্রদর্শনের কারণে এবং ক্ষুব্ধ হয়ে ভিসি স্যারের বিরুদ্ধে মিথ্যা কথা বলেছি।

মঙ্গলবার দুপুরে স্থানীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে গোপালগঞ্জ শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বিরুদ্ধে করা অভিযোগ অস্বীকার করে এ কথাগুলো বলেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার রোলে কর্মরত আফ্রিদা আক্তার ঝিলিক। এ সময় তার স্বামী নাফিউল আসাদ এবং একমাত্র সন্তান উপস্থিত ছিলেন।

তারা স্বামী-স্ত্রী দুজনে মিলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. নাসির উদ্দিনকে ভাল মানুষ উল্লেখ করে বলেন, লোভের বসেই তারা সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য সরবরাহ করেছেন। কিন্তু মিথ্যা বেশি দিন টেকে না। তাই তারা উপলব্ধি করতে পেরে আজ সঠিক তথ্য তুলে ধরছেন বলে উল্লেখ করেন। তারা আরো বলেন, নিতান্ত চাকরি না হওয়ার কারণেই তারা ভিসির বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য সরবরাহ করেছিলেন। আর মিথ্যা তথ্য সরবরাহের জন্য তারা সবার কাছে ক্ষমা চান।

এ সংবাদ সম্মেলনে জেলার বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

ঝিলিক বলেন, ২০১৬ সালে গোপালগঞ্জের তৎকালীন জেলা প্রশাসক মো. খলিলুর রহমান আমাকে বিয়ে দেন। আমি দুস্থ পুনর্বাসন কেন্দ্রে মানুষ হয়েছি। আমাকে এবং আমার স্বামীকে বিশ্ববিদ্যালয়ে চাকরি দেওয়ার কথা থাকলেও ভিসি শেষ পর্যন্ত চাকরি দেননি। যে কারণে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে ভিসির বিরুদ্ধে যৌন নির্যাতনসহ নানা অভিযোগ করি। এতে ভিসির যৌন কেলেঙ্কারির বিষয়টি টক অব দ্য টাউনে পরিণত হয়।



রাইজিংবিডি/গোপালগঞ্জ/২৪ এপ্রিল ২০১৮/বাদল সাহা/মুশফিক

Walton Laptop
 
     
Walton