ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৯ জুলাই ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

সেজেগুজে চুরি করতে যায় ওরা

রেজাউল করিম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৭-১০ ১০:২৫:৩৯ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৭-১০ ৩:৫০:৪০ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম: সেজেগুজে বিয়ে কিংবা অন্য কোনো জমজমাট অনুষ্ঠানে গিয়ে চুরিই তাদের পেশা। বিশেষ করে মোবাইল ফোন চুরিই তাদের প্রধান টার্গেট। এমন ৬ চোরকে গ্রেপ্তার করেছে চট্টগ্রামের কতোয়ালী থানা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- হামিদা বেগম (৪০), তার দুই মেয়ে ফাতেমা বেগম (২৬) এবং চফুরা সহুরা ওরফে কালা বুড়ি (১১), তারা কক্সবাজারের মহেশখালীর চরপাড়া জাহেদের বাড়ির হামিদ হোসেনের স্ত্রী ও মেয়ে। বাকি তিনজন হলেন- মহেশখালীর চরপাড়ার ফজল আহম্মদের ছেলে নুর হোসেন (১৮), টেকনাফের সাপুরডিয়া জেলে পাড়ার মৃত নুর মোহাম্মদের মেয়ে রিপা আক্তার (১৫) ও দোহাজারীর জামিরজুড়ির মো. জাহাঙ্গীরের মেয়ে জান্নাত আরা ফেরদৌস (১৪)।

কোতয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ মহসিন জানান, গত ৬ জুলাই রাতে চট্টগ্রামের লাভ লেইনের স্মরণিকা ক্লাবে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে স্ত্রীসহ গিয়েছিলেন উদয়ন দাশ গুপ্ত নামের এক ব্যক্তি। সেদিন কৌশলে তার স্ত্রীর ভ্যানিটি ব্যাগ থেকে এমআই নোটথ্রি মডেলের একটি ফোন সেট চুরি হয়। বিষয়টি ক্লাব কর্তৃপক্ষকে জানালে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে জড়িতদের শনাক্ত করা হয়।

তিনি বলেন, ‘রোববার রাতে স্মরণিকা ক্লাবে আরেকটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যায় আগের চুরির ঘটনায় জড়িতরা। এরপর ক্লাব কর্তৃপক্ষ তাদের আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ তাদের আটকের পর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী বাকলিয়ার ক্ষেতচর আলম কুটি এলাকায় একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে উদয়ন দাশ গুপ্ত’র স্ত্রীর মোবাইলটির পাশাপাশি আরও ২২টি চোরাই মোবাইল উদ্ধার করা হয়।’

পুলিশ জানায়, শিশু পার্ক, বিয়ে এবং নগরীর বড় বড় অনুষ্ঠানে সেজে গুজে গিয়ে মোবাইল চুরি করে আসছিল এই চক্রটি। বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ রয়েছে চক্রটিতে। দেখতে তাদেরকে এক পরিবারের সদস্য মনে হবে যে কারও। কেউ যাতে তাদের সন্দেহ না করে, সেজন্য সেজেগুজেও যেত তারা। এভাবে চুরিকে পেশা হিসেবে নিয়েছে তারা।

চুরির পর গ্রেপ্তারকৃতরা নগরের রিয়াজ উদ্দিন বাজারের যে ব্যক্তির কাছে মোবাইল সেটগুলো বিক্রি করে আসছিল, তাকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

 

 

রাইজিংবিডি/চট্টগ্রাম/১০ জুলাই ২০১৮/রেজাউল/টিপু

Walton Laptop
 
     
Walton