ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২২ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ছেলেকে বাঁচাতে কিডনি দিলেন বৃদ্ধ বাবা

শাহীন রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-২৯ ৩:৩০:২৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৯-২৯ ৪:১২:৫৬ পিএম

পাবনা প্রতিনিধি : ছেলের দু’টি কিডনিই নষ্ট হয়ে গেছে। আর তাকে বাঁচাতে নিজের একটি কিডনি দিলেন ৬০ বছরের বৃদ্ধ বাবা।

উদাহরণ সৃষ্টিকারী বাবার নাম মো. মোশারফ হোসেন। তিনি একজন স্কুলশিক্ষক। গত বুধবার ঢাকার মিরপুরে কিডনি ফাউন্ডেশন হাসপাতালে বাবার দেহ থেকে ছেলের দেহে একটি কিডনি সফলভাবে প্রতিস্থাপন করেন চিকিৎসকরা। বাবা ও ছেলে উভয়েই বর্তমানে ভাল আছেন।

মেধাবী ছেলের দু’টি কিডনিই নষ্ট হয়ে গেছে। চিকিৎসায় খরচ হয়ে গেছে ২৮ লাখ টাকা, আর কিছু নেই। কি করবেন ভেবে পান না বাবা। রাতে ঘুম হয় না তার। তবে কি সময়ের আগেই শেষ হয়ে যাবে সব স্বপ্ন। বাবা হয়ে কিভাবে সইবেন সেই কষ্ট। তাই কঠিন সিদ্ধান্তটা নিলেন বাবা। অসুস্থ্ ছেলের ভবিষ্যত আর শিক্ষাজীবনের কথা ভেবে বৃদ্ধ বয়সে নিজের একটি কিডনি সন্তানকে দিলেন।

পাবনার চাটমোহরের মোশারফ হোসেন বর্তমানে নাটোরের চান্দাই উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। তার স্বপ্ন ছিল তার ছেলে আল ইমরানকে টেক্সটাইল প্রকৌশলী হিসেবে গড়ে তোলার। ছেলেকে ২০১৫ সালে ১০তম ব্যাচে পাবনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ভর্তি করেন। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস, তার দু’টি কিডনি অকেজো হয়ে পড়ায় হতাশ করে তোলে তাকে। কলেজে ভর্তির সাত মাস পর বিছানায় শয্যাশায়ী হতে হয় ইমরানকে।

সম্পত্তি বিক্রি করে, পরিবারের সঞ্চয় মিলিয়ে প্রায় ২৮ লাখ টাকা খরচ করে স্কুলশিক্ষক বাবা সন্তানকে যথাযথ চিকিৎসা দেওয়ার জন্য রীতিমতো সংগ্রামে নামেন। সাহায্যে এগিয়ে আসে পাবনা ট্রেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের শিক্ষার্থীরাও।

পারিবারিক সূত্র জানায়, কিডনি ফাউন্ডেশনে ডা. হারুন অর রশিদের তত্ত্বাবধানে তাদের চিকিৎসা চলছে।

আল ইমরানের ভাই আল কায়েস বলেন, এমন বাবা পেয়ে এবং তার মতো মানুষের সন্তান হতে পেরে আমরা নিজেদের গর্বিত মনে করছি। আশা করি, আমার ভাই দ্রুত সুস্থ্ হয়ে তার শিক্ষাজীবনের ডিগ্রি শেষ করবে এবং আমাদের বাবা শিগগিরই স্কুলে তার কর্মস্থলে ফিরে যাবেন।

 

 

 

 

রাইজিংবিডি/পাবনা/২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮/শাহীন রহমান/টিপু

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge