ঢাকা, বুধবার, ৪ মাঘ ১৪২৪, ১৭ জানুয়ারি ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

বাণিজ্য মেলায় গ্রাহকপ্রিয়তার শীর্ষে ওয়ালটন ফ্রিজ

নাসির উদ্দিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৩ ৭:২১:৩২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-০৪ ৯:৫৪:১৪ এএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : ফ্রিজ এখন সব শ্রেণির মানুষের কাছে অত্যাবশ্যকীয় গৃহস্থালী পণ্য হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। এজন্য প্রতিদিনই বাড়ছে ফ্রিজের চাহিদা।

সাশ্রয়ী মূল্যে উচ্চ গুণগতমানের পণ্য, আকর্ষণীয় ডিজাইন ও কালার, দ্রুত এবং সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবার নিশ্চয়তা, সর্বোপরি দেশেই তৈরি হয় বলে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার প্রথম দিন থেকেই গ্রাহকপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে ওয়ালটনের ফ্রিজ।

বাণিজ্য মেলায় অন্যান্য ব্র্যান্ডের ফ্রিজ থাকলেও ক্রেতাদের কাছে ওয়ালটন ফ্রিজের কদর একটু বেশি।

বুধবার বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটনের প্যভিলিয়ন ঘুরে দেখা যায়, মেলার তৃতীয় দিনে ওয়ালটন প্যাভিলিয়নে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়। প্রথম দিন থেকেই ওয়ালটন ব্র্যান্ডের এলইডি টিভি, স্মার্টফোন, ল্যাপটপসহ অন্যান্য ইলেকট্রিক, ইলেকট্রনিক্স, হোম অ্যাপ্লায়েন্সেস পণ্য প্রচুর বিক্রি হচ্ছে।

 



মেলায় ওয়ালটন প্যাভিলিয়নে ফ্রিজ কিনতে আসা শামসুল আলম বলেন, ওয়ালটন আমাদের দেশের কোম্পানি। এছাড়া অন্যান্য ফ্রিজের চেয়ে ওয়ালটনের দাম অনেক কম, তবে মান একই। এ কারণে আমি ওয়ালটনের ফ্রিজ কিনেছি। মেলা থেকে কিনে ৮ শতাংশ ছাড় পাওয়া যাচ্ছে। মিরপুরে আমার বাসায় পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্বও নিয়েছে তারা। এমন সুবিধা অন্য সব প্রতিষ্ঠান দিচ্ছে কি না আমার ধারণা নেই।

বাণিজ্য মেলায় ওয়ালটন প্যাভিলিয়ন পরিচালনার দায়িত্বে থাকা প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক (পিআর অ্যান্ড মিডিয়া) মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, বাংলাদেশের ইলেকট্রনিক্স পণ্যের জগতে ওয়ালটন একটি প্রতিষ্ঠিত ব্র্যান্ড। একটি ফ্রিজ শুধু দৈনন্দিন গৃহস্থালী প্রয়োজন মেটায় না, গৃহের সৌন্দর্য্যবর্ধনেও ভূমিকা রাখে। বিরক্তিকর একঘেয়ে রং ও মডেলের পরিবর্তে ওয়ালটন ফ্রিজের রং ও ডিজাইনে উঠে এসেছে দেশের কৃষ্টি-কালচার এবং নানা ঐতিহ্য। যা দেখতে সুন্দর, সাশ্রয়ী মূল্য এবং উচ্চমানের। ফলে ক্রেতাদের মাঝে দেশি পণ্য কেনার প্রবণতাও একটু বেশি।

ওয়ালটন প্যাভিলিয়নের (নম্বর-২৩) সমন্বয়ক শাহ শহীদ চৌধুরী বলেন, মেলা শুরুর প্রথম দিন থেকেই সব ধরনের পণ্যই বেশ বিক্রি হচ্ছে। এর মধ্যে ওয়ালটন ব্র্যান্ডের নতুন মডেলের ৩২০ লিটারের গ্লাস ডোর রেফ্রিজারেটর বেশি বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া ৩১৭ লিটার ও ৩৬৫ লিটারের ফ্রস্ট ফ্রিজ, ৩২৩ লিটারের স্মার্ট ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসার সম্বলিত ডিজিটাল ডিসপ্লে, সাইড বাই সাইড নন-ফ্রস্ট ফ্রিজ ও ব্যাচেলর ফ্রিজ ক্রেতাদের নজর কেড়েছে বেশ।

তিনি আরো বলেন, ওয়ালটন ফ্রিজ দেশে তৈরি হচ্ছে। ক্রেতাদের চাহিদার কথা মাথায় রেখে বড় ডিপের ফ্রিজ তৈরি করা হচ্ছে। যা আমদানি করা ফ্রিজে থাকে না। এই ফ্রিজ কিনলে মধ্যবিত্ত ক্রেতাদের আলাদাভাবে ডিপ ফ্রিজের দরকার হয় না। ফলে গ্রাহকরা ওয়ালটন ফ্রিজের প্রতি বেশি আগ্রহী।

 



প্রসঙ্গত, ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা (ডিআইটিএফ) দেশের সর্ববৃহৎ পণ্য মেলা হিসেবে পরিচিত। মেলায় সেরা ভ্যাটদাতার পুরস্কার চালু করার পর থেকে প্রতিবছর মেলায় সেরা ভ্যাটদাতার সম্মান পাচ্ছে ওয়ালটন। এছাড়া প্রায় প্রতিবছরই সেরা প্যাভিলিয়নের পুরস্কার পেয়ে আসছে ওয়ালটন।

ইপিবি সূত্র জানায়, মেলায় দেশি-বিদেশি ৫৪০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে। বাংলাদেশ ছাড়াও ১৭টি দেশ অংশ নিচ্ছে এ মেলায়। দেশগুলো হলো- ভারত, পাকিস্তান, যুক্তরাষ্ট্র, চীন, যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড, তুরস্ক, সিঙ্গাপুর, মরিশাস, ভিয়েতনাম, ভুটান, মালদ্বীপ, নেপাল ও হংকং।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৩ জানুয়ারি ২০১৮/নাসির/রফিক

Walton
 
   
Marcel