ঢাকা, সোমবার, ৯ আশ্বিন ১৪২৫, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

উন্নয়ন তুলে ধরতে মেলার আয়োজন

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০১-১১ ২:৪১:৫১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-১১ ২:৪১:৫১ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : ২০০৮ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত দেশের অভূতপূর্ব উন্নয়নকে তুলে ধরতে মেলার আয়োজন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বৃহস্পতিবার কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কুমিল্লা টাউন হল মাঠে তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা জানান।

আজ সকাল ১০টায় সারা দেশে একযোগে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ মেলার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ও এসডিজি অর্জনে সাফল্য প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মাঝে তুলে ধরতে এবং ‘শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগ’ ও এসডিজি কার্যক্রম সম্পর্কে জনগণের অংশীদারিত্ব বৃদ্ধিতে এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘উন্নয়নের রোল মডেল শেখ হাসিনার বাংলাদেশ’ এই মূল মন্ত্রকে ধারণ করে ২০২১ সালের মধ্যে ‘ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ’ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে ‘উন্নত বাংলাদেশ’ গঠনে সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম মেলায় তুলে ধরা হবে।

মন্ত্রী বলেন, এ মেলায় দেশের সব সরকারি, আধা-সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার পক্ষ থেকে মেলায় আগতদের সামনে নিজ নিজ সংস্থার উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরা হবে। গত ১৩ বছরের অগ্রগতি ও উন্নয়ন চিত্র এতে তুলে ধরা হবে। ২০০৮ থেকে ২০১৭ পর্যন্ত দেশের উন্নয়ন হয়েছে অনেক। সবাই এই উন্নয়নের অংশ। এই অর্জন সবার। এই উন্নয়নকে তুলে ধরতে আয়োজন উন্নয়ন মেলার।

এদিকে, তিন দিনব্যাপী মেলায় থাকবে আলোচনা সভা। এছাড়া সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমেও দেশের মুক্তিযুদ্ধ ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের নানা দিক তুলে ধরা হবে। দেশ বরেণ্য শিল্পী কলাকুশলীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান থাকবে প্রত্যেকদিন বিকেলে। আয়োজন করা হয়েছে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক কুইজ, আলোচনা, বিতর্ক ও রচনা প্রতিযোগিতা।

সন্ধ্যা ৬টায় মেলামঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে সবাইকে উপস্থিত থাকার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর আলম।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়ে তোলার লক্যে ন ১০টি বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

১০টি বিশেষ উদ্যোগ হচ্ছে- একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প, আশ্রায়ন প্রকল্প, ডিজিটাল বাংলাদেশ, শিক্ষা সহায়তা কর্মসূচি, নারীর ক্ষমতায়ন কর্মসূচি, সবার জন্য বিদ্যুৎ, সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি, কমিউনিটি ক্লিনিক ও মানসিক স্বাস্থ্য, বিনিয়োগ উন্নয়ন ও পরিবেশ সংরক্ষণ। মেলায় এ বিষয়গুলোর উপর বিশেষ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।



রাইজিংবিডি/ ঢাকা/১১ জানুয়ারি ২০১৮/হাসিবুল/ইভা

Walton Laptop
 
     
Walton