ঢাকা, শুক্রবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৫ মে ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

উন্নয়নের গতি বাড়াতে পিএফআই চুক্তি স্বাক্ষর

নাসির উদ্দিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৪ ৮:৩৫:৩১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৩-০৩ ১২:২৩:৫৬ পিএম

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক : বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ বৃদ্ধিকরণ ও বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল, ইন্ডাস্ট্রিয়াল এস্টেট/পার্ক ইত্যাদি প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দেশে জাপানের প্রত্যক্ষ বৈদেশিক বিনিয়োগ বৃদ্ধি ও বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের গতি ত্বরান্বিত করতে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর অংশগ্রহণ বা পার্টিসিপেটিং ফিন্যান্সিয়াল ইনস্টিটিউশন (পিএফআই) চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

বাংলাদেশ সরকার এবং জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সির (জাইকা) মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা বিনিয়োগ বিভাগ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন জাইকা সহায়তাপুষ্ট ‘ফরেন ডাইরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রমোশন প্রজেক্ট-বিডিপি ৮৬’ প্রকল্পের আওতায় এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়স্থ জাহাঙ্গীর আলম কনফারেন্স হলে বাংলাদেশ ব্যাংক এবং নির্বাচিত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের মধ্যে পিএফআই চুক্তি স্বাক্ষর হয় বলে দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির উপস্থিত ছিলেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন জাইকা বাংলাদেশ অফিসের চিফ রিপ্রেজেন্টেটিভ তাকাতোশি নিশিকাতা, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মো. রাজী হাসানসহ পিএফআই হিসেবে নির্বাচিত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীবৃন্দ, বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা বিনিয়োগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক, উপমহাব্যবস্থাপকগণ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক আহমেদ জামাল।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো জানানো হয়, প্রকল্পের আওতায় অর্থায়নের নিমিত্তে বৈদেশিক মুদ্রা বিনিয়োগ বিভাগের অধীনে গঠিত প্রকল্প বাস্তবায়ন ইউনিট কর্তৃক প্রকল্পের অপারেটিং গাইডলাইনসে বর্ণিত অ্যাক্রিডিটেশন এর মানদণ্ড অনুযায়ী ১৯টি ব্যাংক ও পাঁচটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানকে তাদের আবেদনের ভিত্তিতে পার্টিসিপেটিং ফিন্যান্সিয়াল ইনস্টিটিউশন (পিএফআই) হিসেবে নির্বাচন করা হয়েছে।

প্রকল্পের মধ্যে তিনটি কম্পোনেন্ট রয়েছে। এর মধ্যে কম্পোনেন্ট-১ এর আওতায় জাপানি প্রতিষ্ঠান, জাপানি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে পরিচালিত বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান এবং জাপানের সঙ্গে উল্লেখযোগ্য মাত্রায় ব্যবসায়িক লেনদেন পরিচালনাকারী বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানকে স্বল্প হতে দীর্ঘ মেয়াদি অর্থায়নের জন্য জাপান সরকার মোট ৭ হাজার ১০৯ মিলিয়ন জাপানিজ ইয়েন ঋণ প্রদান করে, যার মধ্যে অন-লেন্ডিং বাবদ বরাদ্দ ৭ হাজার ৩৩ মিলিয়ন জাপানিজ ইয়েন। বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ, অর্থ মন্ত্রণালয়ের আওতায় বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা বিনিয়োগ বিভাগ এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা বিনিয়োগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. রেজাঊল ইসলাম স্বাগত বক্তব্যে বলেন, ‘প্রকল্প হতে পিএফআইসমূহকে বাংলাদেশ ব্যাংক ৩ শতাংশ সুদ হারে তহবিল সরবরাহ করবে। পিএফআইসমূহ জাপানি প্রতিষ্ঠান, জাপানি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে পরিচালিত বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান এবং জাপানের সঙ্গে উল্লেখযোগ্য মাত্রায় ব্যবসায়িক লেনদেন পরিচালনাকারী বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানকে সর্বোচ্চ ৭ শতাংশ সুদ হারে সর্বোচ্চ ১০ বছরের জন্য একক প্রতিষ্ঠানকে ৩০ কোটি টাকা পর্যন্ত অর্থায়ন প্রদান করবে। তবে প্রয়োজনে স্টিয়ারিং কমিটির অনুমোদন সাপেক্ষে এ অর্থের পরিমাণ বাড়তে পারে।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির বলেন, ‘বাংলাদেশ সরকার দেশে এফডিআই বৃদ্ধির মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক তা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে। ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহকে এ খাতে অর্থায়নে এগিয়ে আসতে হবে।’



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/নাসির/সাইফুল

Walton Laptop