ঢাকা, বুধবার, ৩ মাঘ ১৪২৫, ১৬ জানুয়ারি ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

খেলাপি ঋণ আদায়ে নতুন কৌশল নিন : অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল

কেএমএ হাসনাত : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৯-০১-০৭ ৯:৫৩:৫৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০১-০৮ ৯:৪২:৪৩ এএম

বিশেষ প্রতিবেদক : খেলাপি ঋণ আদায়ে নতুন কৌশল অবলম্বনের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন নবনিযুক্ত অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। একই সঙ্গে তিনি রাজস্ব আদায় বাড়ানো এবং পুঁজিবাজারের উন্নয়নে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে নির্দেশনা দিয়েছেন।

সোমবার নতুন অর্থমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেওয়ার পর অর্থ মন্ত্রণালয়ে গিয়ে মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। এ সময় ঋণখেলাপি সংস্কৃতি থেকে বের হওয়ার উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানান অর্থমন্ত্রী।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম ‍মুস্তফা কামাল অর্থ মন্ত্রণালয়ে আসার পর তাকে ফুলেল অভিনন্দন জানানো হয়। এ সময় অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান, অর্থ সচিব, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব, বিভিন্ন ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা উপস্থিত ছিলেন।

খেলাপি ঋণকে বাংলাদেশের ব্যাংক খাতের বড় সমস্যা হিসেবে দেখছেন অর্থনীতিবিদরা। খেলাপি ঋণের হার দুই অঙ্কের কোটা অতিক্রম করে যাওয়ায় তারা বিভিন্ন সময় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। গত ১০ বছর অর্থমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করে যাওয়া আবুল মাল আবদুল মুহিতও খেলাপি ঋণকে ব্যাংক খাতের সমস্যা হিসেবে স্বীকার করে আসছিলেন।

দেশে খেলাপি ঋণের পরিমাণ ১ লাখ ৩১ হাজার ৬৬৬ কোটি টাকা। গত জুন পর্যন্ত ২ লাখ ৩০ হাজার ৬৫৮ জনের কাছে এই পরিমাণ অর্থ বছরের পর বছর আটকে আছে।

অর্থমন্ত্রী হিসেবে প্রথম বৈঠকেই খেলাপি ঋণ আদায় করার নতুন কৌশল বের করার তাগিদ দিয়ে আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, আমরা ভালো ও খারাপকে একসাথে মেলাব না। কাউকে জেলেও পাঠাব না, বন্ধও করে দেব না। এরমধ্যেই খেলাপি ঋণ আদায় করতে হবে। সুদ ও আমানতের হারের পার্থক্য বেশি হলে আমানত ফেরত আসে না, এসব বিষয় বিবেচনা করতে হবে। যত কম রেটে ঋণ নিতে পারবেন, তত কম রেটে ঋণ দিতে পারবেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, খেলাপি ঋণের যে কথা বলা হচ্ছে, এটা লম্বা সময় ধরে চলে আসছে। বর্তমানে এটি ১৩ শতাংশ। এ হার ৭ থেকে ৮ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনতে অনেক কঠিন হতে হবে। আত্মীয়-স্বজন চিনব না, যে দেয় এবং যে দেয় না, তাদের এক জায়গায় রাখব না। যে দেয় তার জন্য প্রয়োজনে প্রণোদনার ব্যবস্থা করে দেব। ঋণ দেওয়ার আগে ঋণগ্রহীতার সবকিছু ভালোভাবে খতিয়ে দেখতে হবে।

অনুষ্ঠানে দেশের পুঁজিবাজারে প্রতি বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফিরিয়ে আনতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৭ জানুয়ারি ২০১৯/হাসনাত/রফিক

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC