ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

এলো খুশির ঈদ- আনন্দময় হোক সবার জীবন

আলী নওশের : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৬-২৫ ৯:০০:৩৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৭-৩০ ৭:৪৭:৩৫ পিএম

বছর ঘুরে আবার এসেছে ঈদুল ফিতর। মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব এটি। দীর্ঘ এক মাস সংযম ও ত্যাগের সাধনার পর ঘরে ঘরে, জনে জনে আনন্দ-খুশির বার্তা বয়ে নিয়ে এসেছে এই ঈদ। রমজান মাসের শেষ দিন পশ্চিমাকাশে শাওয়াল মাসের বাঁকা চাঁদ উদিত হওয়ার মধ্য দিয়ে দিকে দিকে ছড়িয়ে পড়ে ঈদুল ফিতরের আবাহন- ‘ও মন রমজানের ওই রোজার শেষে এল খুশীর ঈদ’।

দিনটি ভ্রাতৃত্ব, সহমর্মিতা ও ধনী-গরিব নির্বিশেষে সবাইকে এক কাতারে শামিল করার চেতনায় উজ্জীবিত করে, কল্যাণের পথে ত্যাগ ও তিতিক্ষার মূলমন্ত্রে দীক্ষিত করে। ঈদুল ফিতরের মূল তাৎপর্য বিভেদমুক্ত জীবনের উপলব্ধি। ঘরে ঘরে আজ আনন্দের বন্যা। পথে পথে খুশির ঝিলিক। ঈদ মুসলমানদের জীবনে শুধুমাত্র আনন্দ-উৎসবই নয়, বরং এটি একটি ইবাদত যার মাধ্যমে মুসলিম উম্মাহ ঐক্যবদ্ধ হওয়ার প্রেরণা খুঁজে পায়। সব শ্রেণি ও সকল বয়সের নারী-পুরুষ ঈদের জামাতে শামিল হয়ে মহান আল্লাহর শোকর আদায়ে নুয়ে পড়ে।

ভুল-ভ্রান্তি, পাপ-পঙ্কিলতা মানুষের জীবনে কমবেশি আসে ইচ্ছা কিংবা অনিচ্ছায়। কিন্তু পরম করুণাময় আল্লাহ চান মানুষ পাপ ও বিভ্রান্তি থেকে মুক্ত হয়ে সৎপথে ফিরে আসুক। সম্প্রীতির আনন্দধারায় সিক্ত হয়ে উন্নত জীবন লাভ করুক।

ঈদের ছুটিতে রাজধানী শহর থেকে লাখ লাখ মানুষ গ্রামের বাড়িতে যায় পরিবার-পরিজন, আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে আনন্দ উপভোগ করতে। ঈদের উৎসব শেষে আবার অগণিত মানুষ ফিরে আসবেন শহরে, কর্মস্থলে। যাওয়া-আসার সময় বহু মানুষকে পড়তে হয় নানা বিড়ম্বনায়। ঈদ উপলক্ষে ঘরে ফেরার যে আনন্দ হওয়ার কথা এসব বিড়ম্বনার কারণে বহু জনের সে আনন্দ অনেকটা কমে যায়। যেসব মানুষ নাড়ির টানে গ্রামে ঈদ করতে গেছেন, তারা যদি পুনরায় নিরাপদে কর্মস্থলে ফিরতে পারেন, তবেই তাদের ছুটিতে ঘরে ফেরার আনন্দ পূর্ণতা পাবে।

গত বছর ঈদুল ফিতরের সময় মাত্র কয়েক দিন আগে বিষাদময় ঘটনা আমাদের প্রবলভাবে নাড়া দেয়। গুলশানের হলি আর্টিজানের নৃশংস জঙ্গি হামলা ও হতাহতের ঘটনায় গোটা বাংলাদেশ শোকাহত হয়েছিল। এরপর ঈদের দিন দেশের শোলাকিয়া ময়দানের কাছে জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটেছিল। আমাদের প্রত্যাশা এবার এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে না। নিরাপত্তা রক্ষায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেওয়ার কথা জানানো হয়েছে।

এবার সড়ক-মহাসড়কে ঘরমুখী মানুষ তুলনামূলক কম বিড়ম্বনার মুখে পড়েছেন। তবে রংপুরে শনিবার ভোরে একটি 'যাত্রীবাহী' ট্রাক উল্টে অন্তত ১৭ জন নিহত হওয়ার খবর এই উৎসবের মধ্যেও আমাদের বিষাদগ্রস্ত করছে। আনন্দের পরিবর্তে হতাহতদের পরিবারে এখন শোকের মাতম। সড়কে দুর্ঘটনা এড়াতে যানবাহন চালকদের সাবধান থাকা ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের এ বিষয়ে জোর নজরদারী প্রয়োজন। যাত্রী সাধারণেরও উচিৎ ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত না করা।

আমাদের প্রত্যাশা, এ উৎসবে সবার জীবন ও উদযাপন নির্বিঘ্ন হবে। শ্রেণি, সম্প্রদায়, ধর্ম নির্বিশেষে ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে পড়বে। ভেদাভেদ ভুলে এক কাতারে দাঁড়ানো এবং নিজের আনন্দ অন্যের মধ্যেও বিলিয়ে দেওয়ার যে শিক্ষা ঈদুল ফিতর দিয়ে থাকে, সবার মধ্যে তা সঞ্চারিত হবে।

ঈদুল ফিতর উদ্যাপনের মধ্য দিয়ে বিশ্ব সব প্রকার হিংসা, হানাহানিমুক্ত হোক। জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের বিভীষিকা দূর হোক। সব শ্রেণিপেশার মানুষের মধ্যে সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যরে বন্ধন সুদৃঢ় হোক, আনন্দে ভরে উঠুক প্রতিটি দিন- এই প্রত্যাশায় সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা- ঈদ মোবারক।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৫ জুন ২০১৭/আলী নওশের

Walton
 
   
Marcel