ঢাকা, বুধবার, ৪ মাঘ ১৪২৪, ১৭ জানুয়ারি ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

কারিগরি শিক্ষাকে ডিজিটালাইজড করার অঙ্গীকার শিক্ষা প্রতিমন্ত্রীর

হাসান মাহামুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৭ ৬:৫৩:৩৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-০৭ ৬:৫৩:৩৮ পিএম

সচিবালয় প্রতিবেদক : কারিগরি শিক্ষাকে ডিজিটালাইজড করার অঙ্গীকার করেছেন কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগে নবনিযুক্ত প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী।

তিনি বলেন, ‘কারিগরি শিক্ষা দেশের মূল চালিকাশক্তি। এটিকে ঢেলে সাজাতে হবে। বেকারমুক্ত করতে কারিগরি শিক্ষার্থীরা পাস করে বেরিয়ে যাওয়ার আগেই একটি ট্রেডের ওপর প্রশিক্ষণ দিতে হবে। এ শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটালাইজড করতে হবে। আমরা সে লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাব।’

রোববার সরকারি পরিবহন পুল ভবনে মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগে নবনিযুক্ত প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলীর সম্মানে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় তিনি এ অঙ্গীকারের কথা বলেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

নবনিযুক্ত শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী দায়িত্ব পেয়েছেন মাদ্রাসা এবং কারিগরি শিক্ষা বিভাগে। তবে তিনি এই দুই বিভাগের বাইরে কাজ করতে চান প্রশ্ন ফাঁস বিষয়েও। আর বর্তমান সরকারের মেয়াদ আছে আর এক বছরের মতো। এই সময়ের মধ্যেই এ বিষয়ে সাফল্য দেখাতে চান তিনি।

গত কয়েক বছর ধরে পাবলিক পরীক্ষায় সবচেয়ে বেশি সমালোচিত হচ্ছে প্রশ্ন ফাঁস নিয়ে। শিক্ষামন্ত্রী নানা উদ্যোগ নিয়েও ঠেকাতে না পেরে হতাশার কথা জানিয়েছেন। তবে কেরামত আলী বলছেন, প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে সাফল্য পাওয়ার আশায় আছেন তিনি। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষা ব্যবস্থায় বর্তমানে প্রশ্ন ফাঁস একটি বড় কেলেঙ্কারি। এটি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। আগামী বছর থেকে যেন আর কোনোভাবে প্রশ্ন ফাঁস না হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে।’

নিজ দপ্তর কারিগরি বিভাগ নিয়ে অনেক দূর যাওয়ার স্বপ্ন দেখছেন প্রতিমন্ত্রী কেরামত। বলেন, ‘কারিগরি শিক্ষা দেশের মূল চালিকাশক্তি। এটিকে ঢেলে সাজাতে হবে। বেকারমুক্ত করতে কারিগরি শিক্ষার্থীরা পাস করে বেরিয়ে যাওয়ার আগেই একটি ট্রেডের ওপর প্রশিক্ষণ দিতে হবে। এ শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটালাইজড করতে হবে। আমরা সে লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাব।’

অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগে নবনিয়ুক্ত প্রতিমন্ত্রীকে শিক্ষা পরিবারের একজন সদস্য হিসেবে স্বাগত জানান। প্রতিমন্ত্রী শিক্ষার উন্নয়নে এক সাথে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তবে অনুষ্ঠানে কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের জনবল এবং কক্ষ সংকটও তুলে ধরা হয়।

অনুষ্ঠান শেষে জাতীয়করণের দাবিতে স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষক সমিতির দাবি-দাওয়া সম্বলিত ধরে স্বারকলিপি গ্রহণ করেন প্রতিমন্ত্রী কেরামত আলী।

কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত সচিব এ কে এম জাকির হোসেন ভূঞা ও অশোক কুমার বিশ্বাস এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি মো. গোলাম মোস্তাফা বক্তব্য রাখেন।

এর আগে নবনিয়ুক্ত প্রতিমন্ত্রীকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন দপ্তর-সংস্থার প্রধানরা। মঙ্গলবার বঙ্গভবনে প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথের পরদিন দপ্তর পেয়েছেন কেরামত আলী। তবে তিনি প্রথম মন্ত্রণালয়ের আসেন রোববার সকালে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৭ জানুয়ারি ২০১৮/হাসান/সাইফ

Walton
 
   
Marcel