ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৩ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

কক্সবাজারে মহাকালের দুই নাটক

আমিনুল ইসলাম শান্ত : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৭-১৭ ৪:১৪:২২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৭-১৭ ৪:১৪:২২ পিএম

বিনোদন ডেস্ক : শুরু হতে যাচ্ছে সাত দিনব্যাপী কক্সবাজার থিয়েটার নাট্যোৎসব ২০১৭। ২০ জুলাই থেকে শুরু হবে উৎসবটি। এ উৎসবে মঞ্চস্থ হবে ঢাকার নাটকের দল মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়ের দুই প্রযোজনা ‘নীলাখ্যান’ ও ‘শিবানী সুন্দরী’। রাইজিংবিডিকে এ তথ্য জানিয়েছেন মহাকালের অধিকর্তা মীর জাহিদ হাসান।

কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে বসবে এই নাট্যোৎসব। ২২ জুলাই সন্ধ্যা ৭টায় মঞ্চস্থ হবে ‘নীলাখ্যান’ প্রযোজনাটি। কবি কাজী নজরুল ইসলামের ‘সাপুড়ে’ গল্প অবলম্বনে নাটকটি রচনা করেছেন আনন জামান। নির্দেশনায় রয়েছেন ড. ইউসুফ হাসান অর্ক।

নাটকটির বিভিন্ন চরিত্র রূপায়ন করছেন- মনামী ইসলাম কনক, জেরিন তাসনীম এশা, শাহিনুর প্রিতী, সুরেলা নাজিম, সম্রাট, মানিক চন্দ্র দাশ, সুমাইয়া তাইয়ুম নিশা, জাহিদ কামাল চৌধুরী দিপু, সৈয়দ ফেরদৌস ইকরাম, আমিনুল আশরাফ, আসাদুজ্জামান রাফিন, শিবলী সরকার, শাহরিয়ার হোসেন পলিন, তৌহিদুর রহমান শিশির, ফারাভি হীরা, তারেকেশ্বর তারোক, ইকবাল চৌধুরী, মো. শাহনেওয়াজ এবং মীর জাহিদ হাসান।

নাটকটির মঞ্চ পরিকল্পনা, সুর, সংগীত ও আবহসংগীত পরিকল্পনায় আছেন ইউসুফ হাসান অর্ক। মঞ্চের অন্যান্য নেপথ্য শিল্পীরা হলেন- আলোক পরিকল্পনায় ঠান্ডু রায়হান, পোশাক পরিকল্পনায় ড. সোমা মুমতাজ, কোরিওগ্রাফি জেরিন তাসনিম এশা, প্রপস পরিকল্পনা ও নির্মাণ হাসনাত রিপন, রূপসজ্জায় শুভাশীষ দত্ত তন্ময়, পোস্টার ও স্মরণিকা ডিজাইন পংকজ নিনাদ, মঞ্চ ব্যবস্থাপক জাহিদ কামাল চৌধুরী এবং প্রযোজনা অধিকর্তা মীর জাহিদ হাসান।

উৎসবের চতুর্থ দিন (২৩ জুলাই) মঞ্চস্থ হবে ‘শিবানী সুন্দরী’ নাটকটি। এটি রচনা করেছেন সালাম সাকলাইন। নির্দেশনায় রয়েছেন দেবাশীষ ঘোষ।

নাটকের বিভিন্ন চরিত্র রূপায়ন করেছেন-সুরেলা নাজিম, বেবী শিকদার, ফারুক আহমেদ সেন্টু, বাবু স্বপ্নওয়ালা, রিফাত, বিপ্লব, মো. জাহাঙ্গীর, রাহুল, বাধন, মীর জাহিদ হাসান, মৈত্রী সরকার, সামিউল জীবন, সারমীন সুলতানা আশরা, শিবলী সরকার, সৈয়দ ফেরদৌস ইকরাম, সুফিয়া খানম শোভা, রাজিব হোসেন, তারকেশ্বর তারোক, শাহরিয়ার হোসেন পলিন, কবির আহমেদ, আসাদুজ্জামান রাফিন, ইকবাল চৌধুরী, ফারাবী আকন্দ হীরা ও সাইমুন।

মহাকাল নাটকের নেপথ্য শিল্পীরা হলেন- রচনায় সালাম সাকলাইন, পরিকল্পনা ও নির্দেশনায় দেবাশীষ ঘোষ, পুতুল নাচ নির্দেশনা ও প্রশিক্ষণে খেলু মিয়া, মঞ্চ পরিকল্পনায় যুনায়েদ ইফসুফ, সুর ও গান রচনা এবং আবহ সংগীত পরিকল্পনায় শিশির রহমান, আলোক পরিকল্পনা, প্রপস পরিকল্পনা ও নির্মাণ পলাশ হেনড্রি সেন, পোশাক পরিকল্পনায় শিশির সবুজ, কোরিওগ্রাফিতে ফারাবী আকন্দ হীরা, রূপসজ্জা পরিকল্পনায় শুভাশীষ দত্ত তন্ময় এবং প্রযোজনা অধিকর্তা মীর জাহিদ হাসান।

২০০১ সালে প্রসেনিয়াম ফরম্যাটে আলোচিত মঞ্চনাটক ‘শিবানী সুন্দরী’ মঞ্চে নিয়ে আসেন নির্দেশক দেবাশীষ ঘোষ। তারপর কেটে যায় দীর্ঘ ১৪ বছর। এই দীর্ঘ বিরতি ভেঙে ২০১৬ সালের ২ ডিসেম্বর নাটকটি পুনঃমঞ্চায়ন করে নাট্যদল মহাকাল। 



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৭ জুলাই ২০১৭/শান্ত/মারুফ

Walton
 
   
Marcel