ঢাকা, বুধবার, ৫ পৌষ ১৪২৫, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

আমিরের প্রতিবাদ

মারুফ খান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১০-১১ ৩:০৪:১৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১০-১১ ৫:৩৯:২৭ পিএম
আমির খান ও কিরণ রাও

বিনোদন ডেস্ক : যৌন হেনস্তার প্রতিবাদে সরব বলিপাড়া। কয়েকদিন আগে অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে হেনস্তার অভিযোগ তোলেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। এরপর এ বিষয়ে অনেকেই মুখ খুলতে শুরু করেন।

এবার বলিউডে যৌন হেনস্তার প্রতিবাদের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে একটি সিনেমা থেকে সরে দাঁড়ালেন আমির খান। মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে একটি বিবৃতি দিয়ে বিষয়টি জানিয়েছেন বলিউডের ‘মিস্টার পারফেক্টশনিস্ট’।  

টুইটারে আমির খান ও কিরণ রাও এক যৌথ বিবৃতিতে লেখেন, ‘দুই সপ্তাহ আগে যখন মি টু আন্দোলন শুরু হয়, আমরা লক্ষ্য করি, এমন একজনের সঙ্গে কাজ শুরু করতে যাচ্ছি যার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে জেনেছি, বিষয়টি বিচারাধীন আছে। আমরা তদন্তকারী এজেন্সি নই। আমরা কারো বিষয়ে কথাও বলব না, এটি পুলিশ ও বিচার বিভাগের কাজ। কারো বিষয়ে কোনো মন্তব্য না করে এবং এই অভিযোগ নিয়ে কোনো সমাধানে না এসে আমরা সিনেমাটি থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

জানা গেছে, গুলশান কুমারের বায়োপিকে কাজ করতে চেয়েছিলেন আমির খান। এটি পরিচালনা করবেন সুভাস কাপুর। কিন্তু এ নির্মাতার বিরুদ্ধে ২০১৪ সালে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তোলেন এক অভিনেত্রী। পরবর্তী সময়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ নির্মাতাকে ওই অভিনেত্রীর চড় মারার একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়। সম্প্রতি এটি ভাইরালও হয়েছে।  

এদিকে আমিরের এই বক্তব্যের পর সুভাস কাপুর এক বিবৃতিতে বলেন, ‘আমি আমির খান ও কিরণ রাওয়ের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাচ্ছি। যেহেতু বিষয়টি বিচারাধীন রয়েছে আমি আদালতের মাধ্যমেই নিজেকে নির্দোষ প্রমাণের চেষ্টা করব। কিন্তু আমি একটি প্রশ্ন করতে চাই-গোপন ক্যামেরায় একজন নারীর অনুমতি ছাড়া তার কান্নার দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আপলোড করা কি হেনস্তা নয়? নাকি সে একজন যৌন হেনস্তায় অভিযুক্তের সঙ্গে সম্পর্কে রয়েছেন বলে তা ঠিক আছে। যদি উত্তর পরেরটা হয় তাহলে আমার কিছু করার নেই কারণ এটি খাপ পঞ্চায়েত মানসিকতার চেয়ে কোনো অংশে কম নয়।’



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১১ অক্টোবর ২০১৮/মারুফ/শান্ত

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC