ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ চৈত্র ১৪২৩, ২৩ মার্চ ২০১৭
Risingbd
মার্চ
সর্বশেষ:

সাপে মুগ্ধ হয়ে ৩৪ বার কামড়

মারুফ খান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০২-২১ ৭:১৫:১০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০২-২২ ৮:১৪:২১ এএম

অন্য দুনিয়া ডেস্ক : সাপের কামড়ে মৃত্যুর খবর প্রায়ই শোনা যায়। এক বার সাপের কামড়ে যেখানে মানুষের প্রাণ রক্ষা দায়, সেখানে ৩৪ বার সাপের কামড়েও বেঁচে আছেন ১৮ বছর বয়সি এক কিশোরী।

মণীষা নামের ওই কিশোরীর বাড়ি ভারতের হিমাচল প্রদেশে। তিনি জানান, সাপ দেখলেই এক ধরনের মুগ্ধতা অনুভব করেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি গত তিন বছরে ৩০ বারের অধিক সাপের কামড় খেয়েছি। প্রথমবার আমাদের গ্রামের নদীর পাড়ে সাপের কামড় খেয়েছিলাম। এই বার আমাকে একটি সাদা সাপ কামড় দিয়েছে, যতবারই আমি সাপ দেখি, মুগ্ধ হয়ে যাই। ফলে ভয় কাজ করে না, তখনই সাপ আমাকে কামড় দেয়। যদিও গত দুই বছর আমি কোনো সাপের কামড় খাইনি। অথচ এমনও হয়েছে, দিনে দুই থেকে তিনবার সাপ আমাকে কামড় দিয়েছে। কবিরাজ ও পুরোহিতরা মনে করেন আমার সঙ্গে কোনো দেবীর যোগসূত্র রয়েছে।’

চিকিৎসকদের দাবি, মণীষাকে যে সাপগুলো কামড়েছে তার বেশির ভাগই বিষহীন অথবা কম বিষধর সাপ। বিভিন্ন হাসপাতালের সূত্র থেকে জানা গেছে, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত তাকে ৩৪ বার সাপে কামড়েছে।

ডা. ওয়াইএস পার্মার মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হসপিটালের মেডিক্যাল অফিসার ডা. কেকে প্রশার জানিয়েছেন, সর্বশেষ গত ১৮ ফেব্রুয়ারি সাপের কামড়ের পর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি স্বাভাবিক আছেন এবং সুস্থ হয়ে উঠছেন।

কিশোরীর বাবা সুমের ভার্মা জানিয়েছেন, সাপের কামড়ের বিষয়টি তাদের কাছে এখন স্বাভাবিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ওই অঞ্চলে সাপ নিয়ে যারা গবেষণা করছেন তাদের মতে, মণীষাকে যে সাপগুলো কামড়েছে সম্ভবত সেগুলো বিষাক্ত নয়।

‘আমি জানি না তাকে কোন সাপ কামড়েছে। সারমাউরের শিলাই এলাকায় ভাইপার এবং রাসেল স্নেক রয়েছে। এছাড়া র‌্যাটল স্নেকও রয়েছে। তবে বিষহীন সাপও রয়েছে যা তাকে কামড়াতে পারে।’ বলেন ওই অঞ্চলের বন কর্মকর্তা বিরেন্দার।

তথ্য সূত্র : ডিএনএ নিউজ



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/মারুফ/তারা

Walton Laptop