ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৩ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

রাস্তায় সিগারেটের ফিল্টার পরিষ্কার করবে কাক

শাহিদুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-১০-১৭ ১০:৩৭:১৮ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১০-১৭ ১:০১:৪৪ পিএম

শাহিদুল ইসলাম: এক জরিপে জানা গেছে, বিশ্বব্যাপী এক বছরে প্রায় ছয় ট্রিলিয়ন সিগারেট খাওয়া হয়। সিগারেট খাওয়ার পর ফিল্টার ধূমপায়ীরা যেখানে-সেখানে ফেলে দেন। এতে পরিবেশ নোংরা হওয়ার পাশাপাশি পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতিও হয়। 

সিগারেটের ফিল্টারের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে পরিবেশ রক্ষা করার জন্য ডেনমার্কের দুজন নকশাবিদ একটি অদ্ভুত পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন। তারা কাকদের প্রশিক্ষিত করে তুলতে চাইছেন যেন নগরের পরিছন্নতাকর্মীর বদলে তারাই সিগারেটের ফিল্টার তুলে নিয়ে নির্দিষ্ট স্থানে ফেলে দিতে পারে।

রুবেন এবং বব নামের এই দুজন কারখানা নকশাবিদ প্রথমে রোবট দ্বারা এই কাজ করার চিন্তা করেছিলেন। কিন্তু রোবট প্রোগ্রামিং অনেক জটিল হওয়ায় তারা এই চিন্তা থেকে সরে আসেন। এরপর তারা কাকদের নিয়ে পরিকল্পনা শুরু করেন। কারণ কাক যেমন বুদ্ধিমান এবং শহর অঞ্চলে এদের আধিক্যও বেশি। 

রুবেন এবং ববের এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে সহায়তা করতে এগিয়ে এসেছেন জস ক্লেন নামের আরেক নকশাবিদ। তিনি একটি ‘ক্রো-বক্স’ তৈরি করেছেন। এটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যেন কাকেরা এর মধ্যে সিগারেটের ফিল্টার ফেললে বাদাম বা শস্য জাতীয় খাবার পায়। খাবারের লোভেই কাক ‘ক্রো-বক্সের’ মধ্যে আরো বেশি সিগারেটের ফিল্টার ফেলতে উৎসাহিত হয়।

টিএনডব্লিউকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে রুবেন এবং বব বলেন, ‘ আমরা খাদ্যের বিনিময়ে কাকদের এই কাজে উৎসাহিত করব। আমরা নিশ্চিত যে কাকেরা এটি অতি দ্রুত শিখে যাবে।’

অনেকে তাদের এই পরিকল্পনার ব্যাপারে সন্ধিহান থাকলেও অধ্যাপক মার্জলাফ তাদের ব্যাপারে বেশ আশাবাদী। তিনি বলেন, ‘পোষা কাক অনেক সময় মালিকের জন্য বিভিন্ন জায়গা থেকে খাবার এমনকি সিগারেট পর্যন্ত চুরি করে আনে। ফলে তাদের প্রশিক্ষণ দিলে তারা যে সিগারেটের ফিল্টার কুড়িয়ে ক্রো-বক্সে ফেলবে এটা নিশ্চিত।’

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৭ অক্টোবর ২০১৭/মারুফ/তারা

Walton
 
   
Marcel