ঢাকা, রবিবার, ৭ ফাল্গুন ১৪২৩, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭
Risingbd
অমর একুশে
সর্বশেষ:

সৈকতে এসে মরে গেল কয়েকশ তিমি

আহমেদ শরীফ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০২-১৫ ১১:৫৩:২৪ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০২-১৫ ১২:৫৬:৫৭ পিএম

আহমেদ শরীফ : ৬৫০টিরও বেশি পাইলট প্রজাতির তিমি সাগর থেকে ভেসে এসেছে নিউজিল্যান্ডের এক সৈকতে। বিরল এই ঘটনায় মারাও গেছে অনেক তিমি।

দেশটির ডিপার্টমেন্ট অফ কনজারভেশন জানায়, প্রথম ধাপে ১০  ফেব্রুয়ারি সকালে নিউজিল্যান্ডের ফেয়ারওয়েল স্পিট দ্বীপের সমুদ্রতটে ভেসে আসে তিমিগুলো। পরের দিন আরো কয়েকশ তিমি চলে আসে সেখানে। তবে ওই ডিপার্টমেন্টের কর্মী ও অন্য স্বেচ্ছাসেবীরা প্রায় ১০০টির মতো তিমিকে সাগরে ফেরত পাঠিয়েছে নিজেদের চেষ্টায়। এ ক্ষেত্রে কয়েকশ স্বেচ্ছাসেবী অংশ নেয় ওই কাজে।



প্রতি বছরই নিউজিল্যান্ডের বিভিন্ন সি বিচে বেশকিছু পাইলট তিমিকে চলে আসতে দেখা যায়। তবে এ ধরনের ব্যাপক হারে তিমি সৈকতে চলে আসার ঘটনা বিরল। ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি তিমি একসাথে সৈকতে চলে আসার ঘটনা ঘটে ১৯১৮ সালে। নিউজিল্যান্ডেরই পূর্ব উপকূলে ১ হাজারের মতো তিমি ভেসে এসেছিল। ১৯৮৫ সালে অকল্যান্ডের বিচে ৪৫০টি তিমি ভেসে আসে বলে জানা গেছে।



গবেষকরা বলছেন, সমুদ্রের নিচে তেল ও গ্যাস অনুসন্ধান প্রক্রিয়ায় যে সাউন্ড ওয়েব ব্যবহার করা হয়, তা তিমি ও ডলফিনকে আতঙ্কিত করে। সে কারণে এরা বিচে উঠে আসে। তবে দুঃখের বিষয় হলো- ফেয়ারওয়েল স্পিটে শুক্রবার থেকে রোববার পর্যন্ত প্রায় ৪০০ তিমি মরে গেছে। সেসব মরা তিমি সরিয়ে নেওয়ার কাজ চলছে। কারণ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অতি গরমে মরা তিমির শরীর বিস্ফোরিত হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারেন সেখানে থাকা স্বেচ্ছাসেবকরা। আর গবেষকরা আরো জানিয়েছেন, গোল্ডেন বে এলাকা থেকে আরো অনেক তিমি এখনো সৈকতে ভিড়তে চাইছে। একধরনের পরিবেশ বিপর্যয়ই বলতে হয়।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/আহমেদ শরীফ/সাইফ/এএন