ঢাকা, শনিবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪, ২৭ মে ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

সমুদ্রের প্রাণীর সঙ্গ পাওয়াই তার শখ

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০২-১৫ ১২:৩৩:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০২-১৫ ৩:৩৫:৪০ পিএম

ইয়াসিন হাসান: শখের বশে আপনি ঘুরে বেড়াচ্ছেন আর পয়সা খরচ করছে পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান, কেমন অনুভূত হবে আপনার? নিশ্চয়ই এ দিনটি দেখার অপেক্ষায় আছেন। ভিন্ন কিছু করে দেখাতে পারলে সারাহ কোহানের মতো অপেক্ষাটি পূরণ হতে পারে আপনারও।

সারাহ কোহান, অস্ট্রেলিয়ান এই তরুণী ঠিক এরকম ভিন্ন কিছু করতে গিয়েই সবার নজরে এসেছেন। আইনের শিক্ষার্থী সারাহর শখ পৃথিবীর অদ্ভুত স্থানে ঘুরবেন, অবিশ্বাস্য সমুদ্রের প্রাণীর সঙ্গে ছবি তুলবেন! শুধু ছবি তোলাতেই সীমাবদ্ধ নয় তার শখ। সুযোগ পেলে সখ্যতাও গড়ে তুলবেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছুটিতে শখ পূরণ করতে গিয়ে নজরে আসেন, এরপর ঘুরে বেড়ানোর জন্য পেয়েও গেলেন পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান।

সমুদ্রের তলদেশে ডলফিন ও কুঁজো তিমির সঙ্গে সাঁতার কেটেছেন সারাহ কোহান। হাঙ্গর, স্টিনগ্রেস এবং শুকরের সঙ্গে কাছ থেকে ছবি তুলেছেন। সখ্যতা গড়ে তুলতে কখনো কখনো গোসাপকে কোলে তুলে খাইয়েছেন, শুকরকে আলিঙ্গন করেছেন। নিজের বিচরণ ও শখের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইন্সট্রাগ্রামে দেওয়ার পর রাতারাতি তারকা বনে গেছেন। এখন শখ পূরণ করতে পাচ্ছেন অর্থও।

লাস্যময়ী ও স্বর্ণকেশী সুন্দরী অসম সাহসিকতা দেখিয়ে অনেক স্থানে গিয়েছেন। স্থানগুলো অনেকটাই উদ্ভট। ঠিক তেমন একটি জায়গা বোরা বোরা।

ফ্রান্সের পলিনেশিয়া তাহিতি উত্তরপশ্চিমাঞ্চলে একটি ছোট দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপ বোরা বোরা। প্রাচীন কালে এ দ্বীপকে তাহিতিয়ান উপভাষায় বলা হত ‘পোরা পোরা মাই তে পোরা’ ইংরেজি অর্থ ‘ক্রিয়েট বাই দ্যা গড’। অর্থ্যাৎ বিধাতা দ্বারা নির্মিত। সত্যিই তাই বিধাতা পরম মায়ায় বানিয়েছেন বোরা বোরাকে। এছাড়াও কুক আইল্যান্ড, হাওয়াই, বাহামাস, দক্ষিণ আমেরিকা এবং ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ঘুরে বেড়িয়ে নিজের শখ মিটিয়েছেন সারাহ।

ইন্সট্রাগামে ছবি দেওয়ার পর তার ফলোয়ার সংখ্যা আড়াই লাখ ছাড়িয়ে গেছে। এখানেই নজর কেড়েছেন সারাহ। রাতারাতি তারকা বনে যাওয়ায় বিকিনি ও সুইম স্যুট প্রতিষ্ঠান তাকে এখন অর্থ দিচ্ছে পৃথিবী ঘুরে দেখার। পাশাপাশি উচ্চতর প্রশিক্ষণের ব্যবস্থাও করে দিচ্ছে। শুধু কি বিকিনি ও সুইম স্যুট প্রতিষ্ঠান! যে দ্বীপ, দেশে কিংবা হোটেলে উঠছেন সেখানে প্রচারণা চালানোর জন্যও পাচ্ছেন অর্থ। যেমন বোরো বোরা দ্বীপের ফোর সিজন্স হোটেল, লাগুনার রিটজ কার্লটন হোটেল থেকে প্রচরণা চালনোর জন্য অর্থ পেয়েছেন সারাহ।

বিচিত্র মানুষের বিচিত্র শখ। প্রত্যেকটি মানুষেরই ভিন্ন শখ থাকে। কেউ ঘুরতে ভালোবাসে, কেউ ছবি তুলতে ভালোবাসে, কেউ সাজতে ভালোবাসে তো কেউ কেনাকাটা করতে ভালোবাসে। আবার কেউ খেতে ভালোবাসে। সারাহ কোহানের এমন শখ কেন? শুনুন তার মুখ থেকেই,

‘আমি যখন সমুদ্রের তলদেশে থাকি এবং তিমির সঙ্গে যখন সাঁতার কাটি তখন আমার চিন্তায় থাকে আমি অন্য জগতে বাস করছি। তাদের রাজ্যে কোনো ভয়ভীতি ছাড়া তাদের সঙ্গ উপভোগ করার আনন্দ আলাদা। এটা করতে পেরে আমি সত্যিই বিমোহিত।’

সাগর তলের সবথেকে বিপজ্জনক প্রাণী বলা হয় হাঙ্গরকে। অথচ সাত বছর ধরে হাঙ্গরের সঙ্গে সাঁতরাচ্ছেন সারাহ। গত বছর প্রথম কুঁজো তিমির সঙ্গে সাঁতরিয়েছেন। তার বিশ্বাস হাঙ্গরের নামে যে কলঙ্ক জড়িয়ে আছে তা মুছে দিবেন তিনি।

হাঙ্গরকে নিয়ে সারাহ বলেছেন, ‘তারা সুন্দর প্রাণী এবং তারা অতুলনীয়, অনন্য। মানুষকে সবসময় তাদের আশেপাশের প্রতিবেশীদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে হবে এবং উপলব্ধি করেতে হবে তারা শুধু একটি সুন্দর প্রাণী।’ 

হয়ত ভাবছেন, দুঃসাহসিক শখ পূরণ করতে গিয়ে কখনই কি অপ্রীতিকর বা অনাকাঙ্খিত ঘটনার শিকার হননি সারাহ? হ্যাঁ হয়েছেন। একবার শুকরকে খাওয়াতে গিয়ে সারাহর ডানহাতই কামড়ে দিয়েছিল। এরপর দীর্ঘদিন ভ্রমণে বের হননি সারাহ।

নিজের শখ পূরণে যথেস্ট বিচক্ষণ সারাহ। অন্যরা কি করছেন তা সবসময় খেয়াল রাখেন। এরপর ভিন্ন কিছু করার পথে পা বাড়ান। সারাহ বলেন ‘আমি যখন কোথায় যাওয়ার পরিকল্পনা করি তখন ওই জায়গাটা সম্পর্কে আমি সব তথ্য জোগাড় করি। অন্যরা ওখানে গিয়ে কি করেছে সেটা বের করার চেষ্টা করি। এরপর নিজের পরিকল্পনা সাজাই।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজের একান্ত ছবি দিয়ে আজ তারকা সারাহ কোহান। বন্ধু, পরিবার ও সমগ্র বিশ্বে নিজের অভিজ্ঞতা, নিজের শখ ছড়িয়ে দিতে পেরে গর্বিত অস্ট্রেলীয় লাস্যময়ী।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৭/ইয়াসিন/টিপু

Walton Laptop