ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ কার্তিক ১৪২৪, ২৪ অক্টোবর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

৯৯ বছর বয়সে থানা হাজতের আবদার!

মনিরুল হক ফিরোজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৩-০১ ৭:০০:৩৪ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৩-০১ ১:১৩:৩১ পিএম

সাতসতেরো ডেস্ক : বিচিত্র দুনিয়া, বিচিত্র মানুষ, সুতরাং শখ ও বিচিত্র। উদাহরণস্বরুপ নেদারল্যান্ডের ৯৯ বছর বয়সী এক নারীর কথাই বলা যেতে পারে, যিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন থানা হাজতের অভিজ্ঞতা না নিয়ে তিনি মৃত্যুবরণ করবেন না।

মৃত্যুর আগে তার জীবনের ইচ্ছাপূরণের তালিকায় রয়েছে, পুলিশ কর্তৃক গ্রেপ্তার হওয়া। ফলে বাধ্য হয়েই পুলিশকে খবর দিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করিয়ে থানায় পাঠিয়েছেন তার নাতনী।

বিষয়টা খুবই অদ্ভূত হওয়ায় তা আলোচনার সৃষ্টি করেছে। কেননা বয়স হয়ে যাবার পর যেখানে সবাই তাদের জীবনের পেছনে দিকে তাকিয়ে ভালো কোনো একটা ইচ্ছা অপূর্ণ থাকায় আফসোস করেন, সেখানে ‘অ্যানি’ নামক ৯৯ বয়সী এই বৃদ্ধার আফসোস, পুলিশের আসামি না হতে পারা!

অ্যানির খুব ইচ্ছা ছিল পুলিশ সেলের অভিজ্ঞতা পাওয়া, কিন্তু তা কখনো হয়ে ওঠেনি। মৃত্যুর আগে এই ইচ্ছাপূরণ করতে চান তিনি। তাই আবদার, তাকে যেন গ্রেপ্তার করে হাতে হাতকড়া পরিয়ে করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। ঠিক যেভাবে আসামিদের গ্রেপ্তার করে থানায় নেওয়া হয়, তেমন অভিজ্ঞতা পেতে চান তিনি।

প্রিয় নানীর শেষ বয়সের অপূর্ণ ইচ্ছা বলে কথা। আবদার রক্ষায় নাতনী তাই যোগাযোগ করেন পুলিশের সঙ্গে। পুলিশ এসে হাতে হাতকড়া পরিয়ে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যান ৯৯ বছর বয়সী অ্যানিকে। এমনকি থানার লকআপেও আটকে রাখে। তবে কিছুক্ষণের জন্য। কেননা নির্দোষ অ্যানির শুধু ইচ্ছাপূরণে তাকে আসামির অভিজ্ঞতা দেয় পুলিশ।

নেদারল্যান্ডের জার্মান সীমান্তবর্তী নিমেজেন-জুয়িড থানার পুলিশ তাদের ফেসবুক পেজে এ ঘটনার ছবি পোস্ট করেছে। যেখানে থানা হাজতে হাতে হাতকড়া অ্যানিকে বিষয়টি উপভোগ করে বেশ হাসিখুশি দেখা গেছে।

নিমেজেন-জুয়িড পুলিশ কর্তৃপক্ষ তাদের ফেসবুক পেজে আরো জানিয়েছে, লকআপে যাওয়ার মতো অনুরূপ অমায়িক ইচ্ছাপূরণ আর কেউ যেন প্রত্যাশা না করে। এক পুলিশ কর্মকর্তা বাজফিড নিউজকে বলেন, ‘আমরা সাধারণত এমনটা করি না। কিন্তু অ্যানির জন্য এমন ব্যতিক্রম আমরা করেছি। তাকে কিছু সময় লকআপে রাখা হয়েছিল, শুধু তাকে অভিজ্ঞতা দেওয়ার জন্য। আমরা জানি না, এটা কেন তার ইচ্ছাপূরণের তালিকায় ছিল।’

 

 


তথ্যসূত্র: হাফিংটন পোস্ট

 

 


রাইজিংবিডি/ঢাকা/১ মার্চ ২০১৭/ফিরোজ

Walton
 
   
Marcel