ঢাকা, শনিবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

চাকরি খোঁজার শর্ত

আহমেদ শরীফ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৮-১৬ ৮:২০:২৩ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৮-১৬ ১১:১০:৪৮ এএম

আহমেদ শরীফ: যদি চাকরি থেকে ছাঁটাই করা হয় আপনাকে, তাহলে আপনার পেশাই হলো নতুন চাকরি খোঁজা। ক্যারিয়ার কোচ লেসলি গ্রিফিনের মতে- এটি তখন আপনার ফুল টাইম জব। আর কে না জানে, অন্য যে কোনো কাজের চেয়ে সবচেয়ে কঠিন কাজ এটি। তাই প্রতিদিন আপনাকে নতুন চাকরি খোঁজায় ব্যস্ত থাকতে হবে। ক্যারিয়ার বিশেষজ্ঞদের মতে নিচের কয়েকটি টিপস আপনার জন্য তখন খুব জরুরি হয়ে দেখা দেবে।

নিজেকে আপডেট রাখুন। ঘরকুনো হয়ে বসে থাকবেন না। এখন অনলাইনেও চাকরির খবর পাওয়া যায়। সব নখদর্পণে রাখুন। ক্যারিয়ার বিষয়ক ম্যাগাজিন পড়ুন। আমাদের দেশে প্রতিষ্ঠানগুলো নিজস্ব বুলেটিন খুব কমই প্রকাশ করে যেখানে চাকরির আপডেট থাকে। তারপরও আপনি য়ে চাকরি চাইছেন সে ধরনের প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

পছন্দের কোম্পানিগুলোর তালিকা তৈরি করুন। সেই ধরনের লোকের সঙ্গে মেলামেশা করুন যারা আপনার পছন্দের প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে। কেননা তারা আপনাকে সেই প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে সঠিক ধারণা দিতে পারবে। তাদের কাছে সরাসরি চাকরির ব্যাপারে কথা বলার প্রয়োজন নেই। শুধু জিজ্ঞেস করুন, সেখানে পরিবেশ কেমন?

কাজের বিস্তার ঘটান। অনেকে শখের বশে ফটোগ্রাফি বা সাংবাদিকতার সাথে জড়িত আছেন। অথবা শখের বশে আরো অনেক কাজই করেন অনেকে। একটু পর্যবেক্ষণ করুন আপনার ঐ শখকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করা যায় কিনা। নইলে নতুন কোনো দক্ষতা অর্জন করা যায় কিনা ভাবুন। এক জায়গায় নিজেকে আবদ্ধ রাখবেন না। আপনার সম্ভাবনা যাচাই করুন। কোন কাজটি ভালো লাগে, কোন কাজটি লাগে না-মনকে প্রশ্ন করে জেনে নিন।

নিয়োগদাতা ও এজেন্সির সাথে যোগাযোগ করুন। শুধু চাকরি পাওয়ার জন্য না, আপনি যে ঐ কোম্পানির জন্য যোগ্য লোক হতে পারেন, বিষয়টি বুঝাতেও যোগাযোগ করা জরুরি। এ জন্য বন্ধু, পরিচিত ও সহকর্মীদের সাথে কথা বলুন। কারো সাথে প্রাথমিক যোগাযোগের পর চুপ করে বসে থাকলে চলবে না। ক্যারিয়ার কাউন্সিলর বিলি গ্রেগরীর মতে যারা নতুন চাকরির খবর রাখেন, তাদের সাথে ছয় মাস যোগাযোগ রাখলে চাকরির সন্ধান পাওয়া যায়। তবে এ সময় মনে রাখতে হবে, কেউ যেন আপনাকে বিরক্তিকর মনে না করে।

অনলাইনে আপনার উপস্থিতি জোরালো করুন। ফেসবুকসহ অনলাইনে অন্যদের সাথে যোগাযোগ বাড়িয়ে তুলুন। তবে খেয়াল রাখতে হবে, চাকরির জন্য কারো কাছে যদি আপনার নিজের ছবি বা কোনো তথ্য পাঠান, তাহলে তাতে যেনো অপ্রাসঙ্গিক, দৃষ্টিকটু কিছু না থাকে। সবচেয়ে ভালো হয়, বিভিন্ন গ্রুপে যোগ দিলে; যারা জব সার্চ করছে। এতে মানসিকভাবেও উপকৃত হওয়া যায়। কেননা এ সময় অনেকে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। যা ঠিক নয়।

সুস্থ বিনোদনের চর্চা করুন। চাকুর নেই বলে সবসময় মন খারাপ করে বসে থাকবেন না। বেকারত্ব আপনাকে মানসিকভাবে দুর্বল করে দুশ্চিন্তায় ফেলে দিতে পারে। তাই আবারও বলছি, চাকরি হারালে বা পড়ালেখা শেষ করে কোনো চাকরি খুঁজে পেতে দেরী হলে ভেঙে পড়বেন না। বরং এ পরিস্থিতিতে সব সময় নিজেকে চাঙ্গা রাখার চেষ্টা করুন। বন্ধুদের সঙ্গে পজিটিভলি মিশুন। পরিবারের পাশে থাকুন। ভাইবোনদেরও সময় দিতে পারেন। তাহলেই দেখবেন, নতুন উদ্যমে চাকরি খোঁজার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ার রসদ খুঁজে পাবেন আপনি।

 

 

 



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৬ আগস্ট ২০১৭/তারা

Walton Laptop