ঢাকা, রবিবার, ২ পৌষ ১৪২৫, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

মোটরসাইকেল খেলা দেখিয়ে পড়াশোনার খরচ চালান নাজমুল

আমিনুর রহমান হৃদয় : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৮ ৮:২৫:১৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-০৮ ২:৪৪:২৯ পিএম

আমিনুর রহমান হৃদয় : জীবনের ঝুঁকি নিয়ে একটি কাঠের তৈরি বৃত্তাকার গর্তের দেয়ালে মোটরসাইকেল চালিয়ে খেলা দেখান ১৯ বছর বয়সি নাজমুল হাসান।

চলন্ত মোটরসাইকেলে কখনো হাত ছেড়ে আবার কখনো দাঁড়িয়ে, আবার কখনো কখনো শুয়ে বিভিন্ন ভঙ্গিমায় ৮ থেকে ১০ ধরনের খেলা দেখান তিনি। সম্প্রতি ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার নেকমরদ ওরস মেলায় তার সঙ্গে কথা হয় রাইজিংবিডির এই প্রতিবেদকের।

 


কথায় কথায় নাজমুল জানান, ৬ বছর ধরে এই মোটরসাইকেল খেলা দেখাচ্ছেন। ৮ম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় মামা এস এম সারোয়ারের কাছে মোটরসাইকেল খেলার হাতেখড়ি। ১ বছর মামার কাছে খেলার প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজেই মোটরসাইকেল খেলার সরঞ্জাম কিনে শুরু করেন খেলা দেখানো। সারাদেশ ঘুরে ঘুরে বিভিন্ন মেলায় এই মোটরসাইকেল খেলা দেখিয়ে টাকা আয় করে আসছেন বলে জানান নাজমুল।

নাজমুল বলেন, ‘এই খেলা দেখিয়ে উপার্জিত টাকায় আমার লেখাপড়া ও সংসারের খরচ চলে। মোটরসাইকেল খেলা দেখানোর সময় আল্লাহর রহমতে একবারও দুর্ঘটনার শিকার হইনি। আর যাদের সাহস আছে তারাই এই খেলা শিখে দেখাতে পারবে।’

মোটরসাইকেল খেলা দেখানোর পাশাপাশি নিজের পড়ালেখা চালিয়ে যাচ্ছেন নাজমুল। এসএসসি ও এইচএসসি পাস করে এখন দিনাজপুর সরকারি কলেজে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স ১ম বর্ষে পড়াশোনা করছেন। তার বাড়ি দিনাজপুরের বালুবাড়ি।

 


বংশগতভাবে এই খেলা দেখিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন নাজমুল। এক সময় তার বাবাও এ খেলা দেখাতেন।

এ প্রসঙ্গে নাজমুলের মা আবেদা খাতুন বলেন, ‘পরিবারের অনেকেই আগে এই খেলা দেখাত। এখন আমার ছেলে খেলা দেখাচ্ছে। পরিবারের অভাবও দূর হয়েছে এই খেলা দেখিয়ে। ব্যাংক থেকে ৪ লাখ টাকা ঋণ নিয়ে ছেলেকে মোটরসাইকেল খেলা দেখানোর সকল সরঞ্জাম কিনে দিয়েছি। এখন ছেলে খেলা দেখিয়ে সেই টাকা পরিশোধ করার পাশাপাশি সংসারের খরচও ভালোভাবে চালাচ্ছে।’

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৮ জানুয়ারি ২০১৮/ফিরোজ/শান্ত

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC