ঢাকা, শনিবার, ৮ আশ্বিন ১৪২৪, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

বিকল্প পন্থায় বিএসএমএমইউর টিএসসি ক্যান্টিন চালু

আরিফ সাওন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৯-০৯ ৭:২৫:৫২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৯-২০ ১:০০:৩৩ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) ক্যান্টিন বিকল্প পন্থায় চালু রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। মুরগির পচা মাংস পাওয়া যাওয়ায় ক্যান্টিন সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিলো। কিন্তু ছাত্রছাত্রী ও চিকিৎসকদের সুবিধার্থে শনিবার তা চালুর ব্যবস্থা করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সেকশন অফিসার (জনসংযোগ) প্রশান্ত কুমার মজুমদার শনিবার বিকেলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান, গত বৃহস্পতিবার (৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ক্যান্টিনে মুরগির পচা মাংস পাওয়া যায়। পরের দিন শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির কারণে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আলী আসগর মোড়লের সভাপতিত্বে টিএসসি ক্যাটারিং সার্ভিস পরিচালনা কমিটির একটি জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এই সভায় পচা মুরগির মাংস ক্যান্টিনে সংরক্ষণের অপরাধে ক্যান্টিন ম্যানেজার মোঃ জাহিদকে তাৎক্ষণিকভাবে ক্যান্টিন পরিচালনার সকল দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়ার সিদ্ধান্ত যৌক্তিক বলে উল্লেখ করে তাঁকে ক্যান্টিন পরিচালনার দায়িত্ব থেকে বিরত রাখা হয়। সভায় ছাত্রছাত্রী ও চিকিৎসকদের যাতে অসুবিধা না হয় সে জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের টিচার্স লাউঞ্জের ম্যানেজার মোঃ আলী হোসেনকে সামায়িকভাবে টিএসসির ক্যান্টিন পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হয়। ফলে বর্তমানে ক্যান্টিনটি চালু রয়েছে।

তিনি আরো জানান, ক্যান্টিন ম্যানেজার জাহিদকে শাস্তির আওতায় আনতে বিশেষ করে তার বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া অধিকতর তদন্তের স্বার্থে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি শক্তিশালী তদন্ত কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। টিএসসি ক্যান্টিন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে দরপত্র আহ্বানের জন্য পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ আব্দুল্লাহ আল হারুনকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি স্পেসিফিকেশন কমিটিও গঠন করা হয়। কমিটিকে আগামী ১৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে টিএসসি ক্যান্টিন পরিচালনাকারী কমিটির কাছে স্পেশিফিকেশন জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

জরুরি সভায় জানানো হয়, ৭ সেপ্টেম্বর বিকেল ৩টার দিকে কয়েকজন চিকিৎসকের অভিযোগের প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ৩ জন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার একটি পরিদর্শন টিম পাঠায়। পরিদর্শন টিমের সদস্যরা অভিযোগের সত্যতা পান। তারা দুটি বড় বস্তায় ও দুটি ছোট বস্তায় পচা ও দুর্গন্ধযুক্ত মুরগী ও গরুর মাংস পান এবং ক্যান্টিনের রান্নাঘর অত্যন্ত নোংরা অবস্থায় পান।

জরুরি সভায় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মোঃ হাবিবুর রহমান দুলাল, ডেন্টাল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ডা. গাজী শামীম হাসান, অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. মোঃ আসাদুল ইসলাম, রেসপিরেটরি মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ আব্দুল্লাহ আল হারুন, অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার ডা. স্বপন কুমার তপাদার, উপ-রেজিস্ট্রার ডা. শেখ আব্দুল্লাহ আল মামুন।    



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭/সাওন/শাহনেওয়াজ

Walton Laptop