ঢাকা, শুক্রবার, ৮ আষাঢ় ১৪২৫, ২২ জুন ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

‘বছরে প্রায় ১২ হাজার নারী জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত’

রেজা পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০১-১২ ৯:০৮:৪৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-১২ ৯:০৮:৪৪ পিএম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : বাংলাদেশে বছরে প্রতি পাঁচজন ক্যান্সার রোগীর একজন এবং প্রায় ১২ হাজার নারী জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছে। আর বিশ্বে ঘাতক এই রোগের আক্রান্তের সংখ্যায় বাংলাদেশের স্থান দ্বিতীয়।

ইন্টারন্যাশনাল এজেন্সি ফর রিসার্চ অন ক্যান্সার (আইএআরসি) এর এক গবেষণায় মিলেছে এই তথ্য।

ঘাতক এই জরায়ুমুখের ক্যান্সার সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে শনিবার থেকে সারাদেশে মাসব্যাপী কর্মসূচি শুরু হচ্ছে। কর্মসূচির অংশ হিসেবে এদিন ‘জননীর জন্য পদযাত্রা (মার্চ ফর মাদার)’ শীর্ষক শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে। শোভাযাত্রার এবারের প্রতিপাদ্য বাল্যবিবাহকে জোর ‘না’।

শোভাযাত্রাটি সকাল ১০টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) সামনে থেকে শুরু হয়ে ফার্মগেট পুলিশ বক্সের সামনে গিয়ে শেষ হবে। এ সময় জরায়ুমুখের ক্যান্সার সচেতনতায় সকল স্তরের মানুষকে সচেতনতায় তথ্যসমৃদ্ধ লিফলেট বিতরণ করা হবে।

ক্যান্সার প্রতিরোধ গবেষণা কেন্দ্র, গাইনি অনকোলজি সোসাইটি অব বাংলাদেশ, ওয়াইডব্লিউসিএ (ইয়াং উইমেন ক্রিশ্চিয়ান অর্গানাইজেশন), অপরাজিতা (সোসাইটি ফর সারভাইবার), পাবলিক হেলথ ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ, কমিউনিটি অনকোলজি ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ, দি ব্লু স্কাই চ্যারিটেবল ফাউন্ডেশন ও ক্যান্সার অ্যাওয়ারনেস ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ- এই আটটি মোর্চা সংগঠনসহ রোটারি ক্লাব ইন্টারন্যাশনাল ডিসট্রিক্ট (৩২৮১) পরিচালনা করবে এ শোভাযাত্রা।

জননীর জন্য পদযাত্রার প্রধান সমন্বয়কারী এবং জাতীয় ক্যান্সার গবেষণা ইন্সটিটিউট ও হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক হাবিবুল্লাহ তালুকদার রাসকিন জানান, ‘জননীর কাছে সবার আছে জন্ম ঋণ/জরায়ুমুখের ক্যান্সার সচেতনতায় অংশ নিন’ এই মৌলিক কথা নিয়ে ২০১৬ সাল থেকে এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এখন থেকে প্রতিবছর জানুয়ারি মাসের দ্বিতীয় শনিবার এই র‌্যালি পরিচালিত হবে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের নারীরা স্তন ও জরায়ু এ দুটি অঙ্গ নিয়ে কোনো সমস্যা হলে তা নিয়ে কথা বলতে সংকোচবোধ করেন। নারীকে এই লজ্জা ও সংকোচ থেকে বের করে আনতেই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। আমাদের মূল কথা হলো, নারীকে লজ্জার এই অচলায়তন ভাঙতে হবে। এতে পরিবারের সদস্যসহ তার সন্তানদের এগিয়ে আসার মানসিকতা তৈরি করতে হবে।

অধ্যাপক শুভাগত চৌধুরী বলেন, জরায়ুমুখের ক্যান্সার নিরাময় করা সম্ভব। এ সম্পর্কে মানুষকে জানতে এবং জানাতে হবে। এজন্য সচেতনতাসহ প্রতিরোধে টিকা দিতে হবে।

জরায়ুমুখ ক্যান্সার সচেতনতা নিয়ে কাজ করা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ক্যান্সার অ্যাওয়ারনেস প্রোগ্রাম ফর উইমেন (ক্যাপ)-এর সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম মূসা বলেন, নারীর জীবনের একটি আতংকের নাম জরায়ুমুখ ক্যান্সার। দৈহিক গঠন অনুযায়ী প্রায় প্রতিটি নারী এই ধরনের ক্যান্সারের ঝুঁকিতে রয়েছে।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ জানুয়ারি ২০১৮/রেজা/মুশফিক

Walton Laptop
 
   
Walton AC