ঢাকা, রবিবার, ১০ বৈশাখ ১৪২৪, ২৩ এপ্রিল ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

কে এই যোগী?

রাসেল পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৩-১৯ ১০:৫৯:৫৯ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৩-১৯ ৩:২৮:১৪ পিএম
উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন যোগী আদিত্যনাথ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের সবচেয়ে বড় রাজ্য উত্তর প্রদেশের নতুন মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে আজ শপথ নিতে যাচ্ছেন যোগী আদিত্যনাথ। কে এই যোগী? বিজেপির এত বড় বড় নেতা থাকতে তিনি কেন মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসছেন?

ভারতের রাজনীতিতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রাজ্য উত্তর প্রদেশ। লোকসভা ও বিধানসভায় সবচেয়ে বেশি নির্বাচনী আসন আছে এই রাজ্যে। এ রাজ্যে তুলনামূলক মুসলিম জনসংখ্যা বেশি। যে কারণে রাজনৈতিক উত্তাপও এ রাজ্যে বেশি। এমন একটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে বিজয়ী দল বিজেপি বেছে নিয়েছে যোগী আদিত্যনাথকে। তাকে জানার কৌতূহল স্বাভাবিকভাবেই বেড়ে গেছে।

যোগী আদিত্যনাথ, যিনি উত্তর প্রদেশে যোগী নামেই পরিচিত। গণিত বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রিধারী আদিত্যনাথ সন্ন্যাস জীবন ধারণ করেন। তবে তিনি কট্টরপন্থি হিন্দু। হিন্দুত্ববাদকে প্রতিষ্ঠিত করতে তিনি সব সময় তৎপর। গোরাখনাথ মঠের প্রধান পুরোহিতও তিনি। রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (আরএসএস) আদর্শ প্রচারে তার তৎপরতা বরাবরই সবার নজর কেড়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে যোগী আদিত্যনাথের নাম ঘোষণা করে বিজেপি। তার সঙ্গে দুজন উপমুখ্যমন্ত্রী হিসেবে রাজ্যের দায়িত্ব নেবেন। তারা হলেন বিজেপির উত্তর প্রদেশের সভাপতি কেশব প্রসাদ মাউরিয়া ও উত্তর প্রদেশের রাজধানী লখনোর মেয়র ও বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য দীনেশ শর্মা।

মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে নাম ঘোষণার পর যোগী আদিত্যনাথ তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘গুরুত্বপূর্ণ এই পদে আমাকে বিবেচনা করায় দল ও প্রধানমন্ত্রী মোদির প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। আমি তার (মোদি) “সবার সাথে সবার বিকাশ” মটো উত্তর প্রদেশে এগিয়ে নিয়ে যাব।’

যোগী আদিত্যনাথ উত্তর প্রদেশের রাজপুত বাবা-মায়ের সন্তান। গোরাখনাথ মঠের তথ্যানুযায়ী, ১৯৭২ সালের ৫ জুন তিনি জন্মগ্রহণ করেন। পারিবারিক নাম ছিল অজয় সিং বিশত। পরে তার নাম হয় যোগী আদিত্যনাথ।

সন্ন্যাসব্রত গ্রহণের আগ পর্যন্ত তার জীবন ও কর্ম সম্পর্কে সামান্যই জানা যায়। তবে ২১ বছর বয়সে গণিতে স্নাতক ডিগ্রি লাভের পর তিনি সন্ন্যাসব্রত গ্রহণ করেন। এর পর থেকে তার বিষয়ে বিস্তর তথ্য পাওয়া যায়।

সন্ন্যাসী হিসেবে শিক্ষা গ্রহণের সময় তিনি গাভি রক্ষা, হিন্দুধর্ম নিয়ে ব্যাপক পড়াশোনা করেন। পাঁচ বছরের মধ্যেই তিনি গোরাখনাথ মঠের প্রধান পুরোহিত মোহান্ত আদিত্যনাথের সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্য প্রিয়ভাজনে পরিণত হন।

মঠের পুরোহিতের মৃত্যুর পর যোগী আদিত্যনাথ গোরাখনাথ মঠের প্রধান পুরোহিত হিসেবে দায়িত্ব পান। মঠের পাশাপাশি তিনি স্কুল-কলেজ ও একটি হাসপাতাল পরিচালনা করতেন।

১৯৯৬ সালে মোহান্ত আদিত্যনাথের নির্বাচনী প্রচারশিবিরের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালনের সময় তিনি রাজনীতিতে আকৃষ্ট হন। ১৯৯৮ সালে মোহান্ত আদিত্যনাথ রাজনীতি থেকে অবসর নিলে লোকসভায় তার নির্বাচনী আসনে যোগী আদিত্যনাথের নাম ঘোষণা করা হয়।

১৯৯৮ সালে ১২তম লোকসভা নির্বাচনে জয়ী হন যোগী। ওই লোকসভায় (পার্লামেন্ট) ২৬ বছর বয়সি যোগী ছিলেন সর্বকনিষ্ঠ সদস্য। এরপর ১৯৯৯, ২০০৪, ২০০৯ ও ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে টানা বিজয়ী হন তিনি।

বর্তমানে ৪৪ বছর বয়সি যোগী আদিত্যনাথ উত্তর প্রদেশের বিজেপির ৩২৫ এমএলএর মধ্যেই নয়, তিনি পূর্বাঞ্চলে সবার মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয় মুখ।


 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ মার্চ ২০১৭/রাসেল পারভেজ/এএন

Walton Laptop