ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

ভারতে প্রধানমন্ত্রী-মন্ত্রীদের গাড়িতে লালবাতি নিষিদ্ধ

রাসেল পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৪-১৯ ৫:২১:০৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৪-১৯ ৬:৪৫:৩৪ পিএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে ভিআইপিদের গাড়িতে লাল বাতি ও সাইরেন ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

ভিআইপি প্রটোকলের নামে লালবাতি ও সাইরেন ব্যবহার করায় রাস্তায় জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয় বলে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এ বিষয়ে কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

১ মে থেকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও সরকারের অন্যান্য ভিআইপি- কেউই আর গাড়িতে লালবাতি ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে শুধু জরুরি সেবায় নিয়োজিত গাড়িতে নীলবাতি ব্যবহার করা যাবে।

বুধবার ভারতের কেন্দ্রীয় পরিবহনমন্ত্রী নীতিন গড়কড়ি নিজের গাড়ি থেকে লালবাতি সরিয়ে নিয়ে লালবাতির সংস্কৃতি নিষিদ্ধের ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, এই সরকার জনগণের সরকার। এই সরকার ভিআইপিদের বিশেষ বাতি ও সাইরেন ব্যবহার নিষিদ্ধ ঘোষণা করছে।

এরপর ভারতের কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলিও জানান, কেন্দ্র বা রাজ্য সরকারের কেউ লালবাতি ও সাইরেন ব্যবহার করতে পারবেন না। এর কোনো ব্যতিক্রম করতে পারবেন না কেউ। শুধু জরুরি সেবায় নিয়োজিত গাড়িতে নীলবাতি ব্যবহার করা যাবে।

সম্প্রতি মন্ত্রিসভার বৈঠকগুলোতে ভিআইপিদের গাড়িতে লালবাতির ব্যবহার নিষিদ্ধের বিষয়ে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। জনগণের অর্থে ভিআইপি সংস্কৃতির নামে লালবাতি ও সাইরেন ব্যবহার করে দুভোর্গ সৃষ্টির বিরোধিতা করেন তিনি। মন্ত্রিসভায় এ বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে, ১ মে থেকে সারা দেশে ভিআইপিদের গাড়িতে আর লালবাতি থাকবে না।

সম্প্রতি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত গেলে তাকে দিল্লি বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানাতে যান নরেন্দ্র মোদি। তবে সেদিন তার গাড়িবহর লালবাতি ও সাইরেন ব্যবহার করেনি। সাধারণ ট্রাফিক ব্যবহার করে তিনি বিমানবন্দরে পৌঁছান। এ ক্ষেত্রে যা করা হয়েছে, তা হলো- তিনি যে রাস্তা দিয়ে গেছেন, সেই রাস্তায় তখন ট্রাফিক সচল রাখা হয়।

তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ এপ্রিল ২০১৭/রাসেল পারভেজ

Walton