ঢাকা, শুক্রবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৪, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

বিশ্বাসঘাতকদের মাথা কাটার হুমকি এরদোয়ানের

রাসেল পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৭-১৬ ১২:৩৮:৫৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৭-১৭ ৩:২২:৩৬ পিএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : অভ্যুত্থান চেষ্টাকারীদের বিশ্বাসঘাতক হিসেবে অভিহিত করে তাদের মাথা কাটার হুমকি দিলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।

তুরস্কের ব্যর্থ অভ্যুত্থানের এক বছর পূর্তিতে স্থানীয় সময় শনিবার রাতে বিশাল জনসমাবেশে বক্তব্য দেওয়ার সময় এ হুমকি দিয়েছেন। তার হুমকি থেকে পরিষ্কার, মৃত্যুদণ্ডের বিধান পুনর্বহাল হতে যাচ্ছে তুরস্কে।

২০১৬ সালের ১৫ জুলাই তুরস্কের বসফরাস সেতুতে জনতার প্রতিরোধের মুখে আত্মসমর্পণ করে অভ্যুত্থান চেষ্টাকারীরা। সেতুটি এখন ‘শহীদ সেতু’ হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠেছে। শনিবার এই সেতুতে এরদোয়ানের সমর্থকরা বিশাল জনসমাবেশ করে। এতে যোগ দিয়ে ‘প্রতিরোধকারী’ জনতার উদ্দেশে আবেগী বক্তব্য দেন এরদোয়ান।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট জনতার উদ্দেশে বলেন, ‘সবার আগে আমরা সেইসব বিশ্বাসঘাতকদের মাথা কাটব।’ তার ভাষ্য, আইনের শাসনের তুরস্কে যারা বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করেছে, তাদের মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হবে। এ জন্য পার্লামেন্ট থেকে তার কাছে বিল এলেই তিনি তাতে স্বাক্ষর করবেন।

এরদোয়ান বলেন, আমাদের রাষ্ট্র আইনের শাসনে চলে। পার্লামেন্ট থেকে যদি তা (মৃত্যুদণ্ডের বিধান) আমার কাছে আসে, তাহলে আমি তাতে স্বাক্ষর করব।’

গত বছর ১৫ জুলাই রাতে অভ্যুত্থান চেষ্টাকারীদের বিরুদ্ধে নিরস্ত্র জনতার প্রতিরোধের ভূয়সী প্রসংশা করেন এরদোয়ান। তার সরকারের ওপর জনতার যে বিশ্বাস, তার মর্যাদা রক্ষার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

আঙ্কারা থেকে এফ-১৬ যুদ্ধবিমানে বসফরাসে আসেন এরদোয়ান। ১৫ জুলাইকে ‘গণতন্ত্র ও ঐক্য’ দিবস ঘোষণা করে প্রতিবছর এ দিনে জাতীয় ছুটি ঘোষণা করেছে এরদোয়ান সরকার।

জনতার প্রতিরোধ সম্পর্কে এরদোয়ান বলেন, ‘ওই রাতে জনতার হাতে অস্ত্র ছিল না, তাদের হাতে পতাকা ছিল, তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ তাদের ছিল বিশ্বাস।’

 

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৬ জুলাই ২০১৭/রাসেল পারভেজ

Walton Laptop