ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২১ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

বাবার আশ্রমে কত কী যে গোপনে চলছিল!

রাসেল পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৯-০৯ ১:৫৯:২৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৯-০৯ ৩:২৮:৩৯ পিএম
বাবার আশ্রমে পাওয়া গেছে টয়োটা লেক্সাস লাক্সারি সুভ মডেলের গাড়িটি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : বাবা রাম রহিমের আশ্রমে যতই তল্লাশি চালানো হচ্ছে ততই বেরিয়ে আসছে কৌতূহলোদ্দীপক তথ্য। তার ডেরায় কত কী যে গোপনে চলছি, একে একে সেসবের হদিস মিলছে।

দুই দিনব্যাপী তল্লাশি অভিযানের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার সকালে গুরমিত সিং ওরফে রাম রহিমের হরিয়ানার সিরসার আশ্রমে বিস্ফোরক দ্রব্যের কারখানা পেয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী। ডেরা সাচা সাওদা নামের সিরসার এই আশ্রমের কারখানা থেকে ৮০ কার্টনের বেশি বিস্ফোরকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে।

কারখানটি সিলগালা করে ফরেনসিক টিম সেখানে তদন্ত শুরু করেছে। এখানেই শেষ নয়, বাবার আশ্রমে আরো কত কী যে আছে, তা নিয়ে সংশয়ের শেষ নেই।

রাম রহিমের আশ্রমে বেশ কয়েকটি গোপন সুড়ঙ্গ রয়েছে। কেন তৈরি করা হয়েছে এবং কী কাজে এগুলো ব্যবহার করা হতো, তা জানার চেষ্টা করছে নিরাপত্তা বাহিনী। সুড়ঙ্গে তল্লাশি অভিযান পরিচালনার জন্য আধাসামরিক বাহিনীর কয়েক শত সদস্য এবং পুলিশের সদস্যরা সেখানে প্রবেশ করেন। তাদের সঙ্গে ছিলেন তালার কারিগর। খনন কাজের জন্য বেশ কয়েকটি মেশিন নেওয়া হয়েছিল।

দুই ঘণ্টার তল্লাশিতে আশ্রমে বিপুল অঙ্কের অর্থ উদ্ধার করে নিরাপত্তা বাহিনী। এর মধ্যে ছিল প্লাস্টিক মানি, নিষিদ্ধ মুদ্রার নোট। এ ছাড়া অনেক হার্ডডিস্ক ও কম্পিউটার এবং একটি টয়োটা লেক্সাস লাক্সারি সুভ গাড়ি উদ্ধার করা হয়। আশ্রম থেকে পাঁচ ব্যক্তিকে উদ্ধার করা হয়, যাদের মধ্যে দুজন সংখ্যালঘু।

আশ্রম এলাকায় কারফিউ জারি রাখা হয়েছে। যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা সামাল দিতে বোম স্কোয়াড, কমান্ডো ইউনিট, অ্যাম্বুলেন্স, অগ্নিনির্বাপণে ব্যবহৃত গাড়ি সব সময় প্রস্তুত রাখা হয়েছে। প্রাক্তন বিচারপতি একেএস পাওয়ারের নেতৃত্বে তল্লাশি অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।

ডেরা এলাকায় কয়েক স্তরের তল্লাশি চৌকি বসানো হয়েছে। যেকোনো ধরনের সহিংসতা মোকাবিলায় সিরসা শহরে আধাসামরিক বাহিনীর কয়েক শত সদস্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

দুই নারী ভক্তকে ধর্ষণের দায়ে গত মাসে ১০ বছর করে ২০ বছর কারাদণ্ড হয় রাম রহিমের। রঙচঙা পোশাক ও রকস্টার লাইফ স্টাইলের জন্য পরিচিত রাম রহিমের সাজা ঘোষণাকে কেন্দ্র করে ভক্তদের সহিংসতায় হরিয়ানা ও পাঞ্জাবে ৩৮ জন নিহত হন।

সিরসার আশ্রম রাম রহিমের সদর দপ্তর। ‘সাত তারকা’ মানের অবকাশকেন্দ্রের সুযোগ সুবিধা রয়েছে সেখানে। ফ্রান্সের আইফেল টাওয়ার, ভারতের তাজমহল, রুশ প্রেসিডেন্টের বাসভবন ও ডিজনি ওয়ার্ল্ডের প্রতিরূপ (রেপ্লিকা) বসানো হয়েছে আশ্রমের মধ্যে।

বাবার আশ্রমে আছে আন্তর্জাতিক মানের একটি স্কুল, শপিংমল, হাসপাতাল, স্টেডিয়াম ও সিনেমা হল। সেখানকার প্রত্যেক ভবনের সঙ্গে রাম রহিমের বিশাল ছবি টাঙানো হয়েছে।

তথ্যসূত্র : এনডিটিভি অনলাইন

 

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭/রাসেল পারভেজ

Walton