ঢাকা, বুধবার, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৮ জুলাই ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

ট্রাম্পের উত্তরসূরি হ্যালি?

রাসেল পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০১-০৬ ১১:২১:৫২ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-০৬ ২:১৩:০৫ পিএম
জাতিসংঘে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জাতিসংঘে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত নিকি হ্যালি নিজেকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উত্তরসূরি ভাবেন বলে সাংবাদিক মাইকেল ওলফের নতুন বইয়ে দাবি করা হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সহযোগীদের মধ্যে নিকি হ্যালি সবচেয়ে বেশি উচ্চাকাঙ্ক্ষি ও ট্রাম্পের চেয়ে বেশি স্মার্ট। তবে ট্রাম্পের অন্যান্য সহযোগী ট্রাম্পীয় চিন্তাভাবনা রক্ষায় বেশি মনোযোগী।

সাংবাদিক মাইকেল ওলফের লেখা ‘ফায়ার অ্যান্ড ফারি : ইনসাইড দি ট্রাম্প হোয়াইট হাউস’ বইয়ে ট্রাম্পের সহযোগী ও অন্যান্যদের সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে এ দাবি করা হয়েছে। বইটি বাজেয়াপ্ত করতে ট্রাম্প আইনজীবী নিয়োগ দিলেও নির্দিষ্ট সময়ের আগে এরই মধ্যে তা বাজারে চলে এসেছে।

বইটির অংশবিশেষ নিউ ইয়র্ক টাইমসে প্রকাশিত হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে, লেখক ওলফ দাবি করেছেন, ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে নিকি হ্যালি সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন, ‘ট্রাম্পের শাসনাকাল মোটের ওপর এক মেয়াদ টিকবে’ এবং তিনি ধরে নেন, এরপর তিনিই হবেন তার ‍উত্তরসূরি। তবে তার অপেক্ষাকৃত মধ্যপন্থি চিন্তাভাবনাকে বিপদ হিসেবে দেখেন ট্রাম্প সার্কেলের অনেকে।

সাংবাদিক ওলফ লিখেছেন, সাউথ ক্যারোলাইনার প্রাক্তন গভর্নর শিখ বাবা-মায়ের সন্তান নিকি হ্যালি হোয়াইট হাউসের প্রথম বছরে ইভানকা ট্রাম্পের বন্ধু হয়ে উঠেন এবং তার পরিবারের সদস্যদের সন্নিধ্যে আসেন। ওলফ আরো দাবি করেছেন, এয়ারফোর্স ওয়ানে ব্যক্তিগত সময়ে অনেকবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সফরসঙ্গী হয়েছেন তিনি।

প্রথমে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগের বিষয়ে ভাবলেও পরে জাতিসংঘের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিকি হ্যালিকে নিয়োগ দেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের তৎকালীন চিফ স্ট্র্যাটেজিস্ট স্টিভ ব্যানন তখন ভয়ে ছিলেন, যদি রেক্স টিলারসন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদ থেকে পদত্যাগ করেন, তাহলে সিআইএ-এর পরিচালক মাইক পম্পেওকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দিতে পারেন তিনি।

বইটি নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি দাবি করেছেন, বইয়ের বিষয়ে ওলফের সঙ্গে তিনি কোনো কথা বলেননি। ওলফকে সহযোগিতা করার বিষয়ে প্রাক্তন উপদেষ্টা স্টিভ ব্যানন সম্পর্কে ট্রাম্প বলেছেন, ‘মিথ্যায় পরিপূর্ণ, ভুল উপস্থাপনে ভরা, কোনো সূত্রের অস্তিত্ব নেই। এই লোকের অতীত খুঁজে দেখুন এবং দেখুন তার কী হয়; কুটিল স্টিভ।’

এর আগে প্রকাশিত মাইকেল ওলফের বইয়ের অংশবিশেষে দেখা যায়, লেখক দাবি করেছেন, ট্রাম্পের কন্যা ইভানকা ট্রাম্প বাবার উত্তরসূরি হিসেবে প্রেসিডেন্ট হতে চান। স্বামী জ্যারেড কুশনারের সঙ্গে তিনি গোপন চুক্তি করেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচনের সুযোগ এলে তিনি নির্বাচনে দাঁড়াবেন এবং তিনিই হবেন ‍যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট।

এক সপ্তাহ ধরে মাইকেল ওলফের বইয়ে উঠে আসা বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে চরম অস্থিরতায় রয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। বইয়ে দাবি করা হয়েছে, ট্রাম্পের সহযোগীরা তাকে ‘শিশু’ মনে করেন এবং তারা এ-ও মনে করেন, ট্রাম্পের আচরণ শিশুর মতো। অবশ্য ট্রাম্প প্রশাসন এসব দাবি প্রত্যাখ্যান করেছেন।

২০০টি সাক্ষাৎকারের ওপর ভিত্তি করে বইটি লিখেছেন মাইকেল ওলফ। তবে ট্রাম্প দাবি করেছেন, সবই মিথ্যা।

তথ্যসূত্র : বিবিসি অনলাইন



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৬ জানুয়ারি ২০১৮/রাসেল পারভেজ

Walton Laptop
 
     
Walton