ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৩ নভেম্বর ২০১৭
Risingbd
সর্বশেষ:

নির্ধারিত সময়েই এনআরবিসি ব্যাংকের এজিএম : হাইকোর্ট

মেহেদী হাসান ডালিম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৭-০৪-২০ ৩:০২:৫৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৪-২০ ৩:০২:৫৯ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : নির্ধারিত সময়েই অনুষ্ঠিত হবে এনআরবি কমার্শিয়াল (এনআরবিসি) ব্যাংকের  বার্ষিক সাধারণ সভা(এজিএম)।

আগামী ২৩ এপ্রিল এই এজিএম করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আদালত বলেছেন, বর্তমান চেয়ারম্যান ফরাছত আলীই এই এজিএমে চেয়ারম্যান হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করবেন। এজিএমে বাংলাদেশ ব্যাংকের পর্যবেক্ষক মাসুদ বিশ্বাসকে উপস্থিত থাকতেও বলা হয়েছে। একইসঙ্গে এজিএমে আদনান ইমাম, এস এম তমাল পারভেজ ও রফিকুল ইসলাম আরজু ব্যাংকের পরিচালক হিসেবে অংশগ্রহণে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না করতেও পরিচালনা পর্ষদকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বার্ষিক রিপোর্টে ওই তিনজনের নাম  পরিচালক হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি পরিচালক হিসেবে তাদের নাম ব্যাংকটির ওয়েব পেজে অন্তর্ভূক্ত করতেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এসংক্রান্ত এক আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি এ এফ এম আবদুর রহমানের অবকাশকালীন একক হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এই আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস ও মেহেদী হাসান চৌধুরী। ব্যাংকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এস এম মনিরুজ্জামান। পরে এস এম মনিরুজ্জামান আদালতের আদেশের বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন।

শুনানি শেষে হাইকোর্ট উপরোক্ত আদেশ দেন। একইসঙ্গে গোপন ব্যালটে এজিএমএ ভোট গ্রহণ এবং কোন বহিরাগত বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রবেশ করতে পারবে না বলেও আদেশ দেন।

এর আগে গত ১০ এপ্রিল ব্যাংকটির বার্ষিক রিপোর্টে নাম না থাকায় ও এজিএমে অংশগ্রহণের জন্য কোনো চিঠি না পাওয়ায় আদনান ইমামসহ ব্যাংকের তিন পরিচালক হাইকোর্টে আবেদন করেন। এ ছাড়া বর্তমান চেয়ারম্যানের অধীনে এজিএম না করার নির্দেশনাও চাওয়া হয়।

গত ১২ এপ্রিল এনআরবি কমার্শিয়াল (এনআরবিসি) ব্যাংকের চেয়ারম্যান ফরাছত আলী ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) দেওয়ান মুজিবর রহমানের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ব্যাংকের দেওয়া কারণ দর্শানো নোটিশের কার্যকারিতা বহাল রাখেন আপিল বিভাগ। এই আদেশের ফলে এনআরবিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ফরাছত আলী ও এমডি দেওয়ান মুজিবর রহমানকে বাংলাদেশ ব্যাংকের নোটিশের জবাব দিতে হবে।

আমানতকারীর স্বার্থ ও জনস্বার্থ রক্ষা করতে ব্যর্থ এবং ব্যাংকটি পরিচালনায় ব্যর্থ হওয়ায় গত ২০ মার্চ বাংলাদেশ ব্যাংক ফরাছত আলী ও দেওয়ান মুজিবর রহমানের বিরুদ্ধে নোটিশ দেন। নোটিশে আরো বলা হয়, ব্যাংক পরিচালনা ও ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম, বিধিবহির্ভূতভাবে ৭৪১ কোটি টাকা ঋণ অনুমোদন ও বিতরণ করা হয়েছে।

এনআরবিসি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও এমডিকে ব্যাংক কোম্পানি আইনের ৪৬ ধারা অনুযায়ী এ নোটিশ দেওয়া হয়। ফরাছত আলীর বিরুদ্ধে কেন আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে না ও দেওয়ান মুজিবর রহমানকে কেন অপসারণ করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয় নোটিশে। নোটিশের জবাব ১০ দিনের মধ্যে দিতে বলা হয়। 

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/ ২০ এপ্রিল ২০১৭/মেহেদী/ইভা

Walton
 
   
Marcel