ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ কার্তিক ১৪২৫, ১৮ অক্টোবর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

সরকারি তহবিলের ৫ কোটি টাকা আত্মসাতে বিশেষ টিম

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০২-১৪ ৮:০২:২৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০২-১৪ ৮:০২:২৬ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা মো. সেতাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে ভূমি অধিগহণের সরকারি তহবিলের ৫ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলার তদন্তে বিশেষ টিম গঠন করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ আবদুল ওয়াদুদের নেতৃত্বে বিশেষ টিম গঠন করা হয়েছে। এতদিন ময়মনসিংহের দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় থেকে মামলার তদন্ত কার্যক্রমটি চলছিল। বিশেষ টিমের অপর সদস্যরা হলেন- সহকারী পরিচালক মনিরুল ইসলাম ও ফজলুল বারী।

সম্প্রতি দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে এক আদেশে তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন করা হয়েছে। দুদকের জনসংযোগ দপ্তর রাইজিংবিডিকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ভূমি অধিগ্রহণের ৫ কোটি টাকা লোপাটের ঘটনায় গত ৬ ফেব্রুয়ারি কিশোরগঞ্জের জেলা হিসাবরক্ষণ অফিসের অডিটর মো. সহিদুজ্জামান ও কর্মচারী মো. দুলাল মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের পরবর্তী ওই মামলায় আগত আসামি হিসেবে দেখিয়ে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

এ বিষয়ে দুদক জানায়, অডিটর মো. সহিদুজ্জামানের বিরুদ্ধে অর্থ উত্তোলনের সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ততা এবং কর্মচারী মো. দুলাল মিয়ার টাকা বহনের সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ততা আছে বলে দুদকের কাছে প্রতীয়মান হয়েছে। এ ঘটনায় কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক (ডিসি) আজিমুদ্দিন বিশ্বাস ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) দুলাল চন্দ্র সূত্রধর, জেলা হিসাবরক্ষণ অফিসার, জেলা প্রশাসনের রাজস্ব ও এলএ শাখার বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুদক টিম।

গত ৩ ফেব্রুয়ারি ভূমি অধিগ্রহণের ৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দায়ের করা মামলার আসামি মো. সেতাফুল ইসলামের ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেয় দুদক। কিশোরগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তছলিমা আক্তারের এজলাসে তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে কিশোরগঞ্জের ডিসি, এডিসি ও অতিরিক্ত ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তাসহ বেশ কয়েকজনের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন।

মো. সেতাফুল ইসলামকে গত ১৭ জানুয়ারি গ্রেপ্তার করে দুদক। গ্রেপ্তার করার পর দুদকের সহকারী পরিচালক রাম প্রসাদ মণ্ডল বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। ঘটনাকালীন সেতাফুল ইসলাম কিশোরগঞ্জ জেলায় ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। তিনি জনপ্রশাসন ক্যাডারের ২৪তম ব্যাচের কর্মকর্তা।

জমি অধিগ্রহণের ক্ষতিপূরণের প্রায় ১৪ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে পালিয়ে যান সরকারের ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা সেতাফুল ইসলাম, এমন অভিযোগে অনুসন্ধান শুরু করে দুদক।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/এম এ রহমান/সাইফুল

Walton Laptop
 
     
Walton