ঢাকা, শুক্রবার, ৫ বৈশাখ ১৪২৬, ১৯ এপ্রিল ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

শিরোপা ধরে রাখতে পেরে উচ্ছ্বসিত ওয়ালটনের অধিনায়ক, ম্যানেজার

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০১-১৯ ১০:৪১:২৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০১-১৯ ১০:৫৮:১৫ পিএম
ট্রফি হাতে ওয়ালটন দলের অধিনায়ক উদয় হাকিম ও ম্যানেজার এসএম জাহিদ হাসান

ক্রীড়া প্রতিবেদক : টুর্নামেন্ট শুরুর আগে শিরোপা ধরে রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছিলেন ওয়ালটন দলের অধিনায়ক উদয় হাকিম ও ম্যানেজার এসএম জাহিদ হাসান। নিজেদের চাওয়া পূরণ হওয়ায় তারা দারুণ খুশি। 

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন হিসেবে মার্সেল সপ্তম টি-টোয়েন্টি করপোরেট ক্রিকেট টুর্নামেন্ট শুরু করেছিল ওয়ালটন গ্রুপ। শুক্রবার ফাইনালে বেক্সিমকোকে ৬০ রানে হারিয়ে টুর্নামেন্টের অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা। এটি ওয়ালটনের টানা দ্বিতীয় ও সব মিলিয়ে তৃতীয় শিরোপা। ওয়ালটন তিনটি শিরোপাই জিতেছে উদয় হাকিমের নেতৃত্বে।

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনুভূতি জানাতে গিয়ে ওয়ালটনের অধিনায়ক ও ওয়ালটন গ্রুপের সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর (ক্রিয়েটিভ অ্যান্ড পাবলিকেশন) উদয় হাকিম বলেন, 'অবশ্যই ভালো লাগছে। অধিনায়ক হিসেবে আমি তিনবার চ্যাম্পিয়ন হলাম। তিনবার চ্যাম্পিয়ন ট্রফি উঁচিয়ে ধরেছি আমি। এটা অবশ্যই বিস্ময়কর ভালো লাগার একটা অনুভূতি।'



'এই বছর টুর্নামেন্টে শুরু থেকে একটা চাপ ছিল, যেহেতু আমরা ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন। চাপ ছিল যে, এবারও চ্যাম্পিয়ন হতে হবে। প্রথম দিকে আমরা তেমন একটা ছন্দে ছিলাম না, যে কারণে কিছুটা ভয়ে ছিলাম। তবে যতই একটার পর একটা ম্যাচ গেছে, আমরা ছন্দে ফিরে এসেছি। শেষ দিকে শক্তিশালী দলগুলোর বিপক্ষে আমরা আমাদের শক্তিমত্তার পরিচয় দিয়েছি। টুর্নামেন্টের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আমরা অপ্রতিরোধ্য ছিলাম। ছেলেরা খুবই কষ্ট করেছ, খুবই ভালো খেলেছে। ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং- সব দিক দিয়েই আমরা টুর্নামেন্টে একেবারে অপ্রতিরোধ্য ছিলাম। শেষ পর্যন্ত আমরা সেটা প্রমাণ করেছি'- বলেন উদয় হাকিম।

এখন হ্যাটট্রিক শিরোপায় চোখ ওয়ালটন অধিনায়কের, 'আমরা যদি পরের বছর টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করি, ইনশাআল্লাহ্‌ আমরা আবারো চ্যাম্পিয়ন হব। তিনবার আমরা জিতেছি ঠিকই, মাঝখানে একবার আমরা এই টুর্নামেন্টে অংশ নিইনি। আশা করছি, আগামী বছর যদি এই টুর্নামেন্ট হয়, আমরা পরপর তিনবার চ্যাম্পিয়ন হব, সেই লক্ষ্য নিয়ে আমরা মাঠে নামব।'

মূলত করপোরেট প্রতিষ্ঠানগুলো এই টুর্নামেন্টে অংশ নেয়। প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেশিরভাগ সময় কাজ নিয়েই ব্যস্ত থাকতে হয়। ফলে এই টুর্নামেন্টটা তাদের জন্য বিনোদনের একটা উৎসও বটে। এটা একটা উৎসবে পরিণত হয়েছে বলে মনে করেন উদয় হাকিম, 'বাংলাদেশে এই একটা করপোরেট টুর্নামেন্টই নিয়মিত হচ্ছে, সেখানে ২৪ থেকে ৩২টা করপোরেট দল অংশ নিচ্ছে। যেটা বাংলাদেশের আর কোথাও দেখা যাচ্ছে না। এদিক থেকে আয়োজকরা (এসিমস) সফল। যারা এখানে অংশ নিচ্ছে, তারাও প্রতি বছর আগেই যোগাযোগ করে। তার মানে এটা একটা উৎসবে পরিণত হয়েছে এবং আয়োজকরা সে জায়গায় সফল হয়েছে।'



ব্যাক টু ব্যাক চ্যাম্পিয়ন হয়ে উচ্ছ্বসিত ওয়ালটন দলের ম্যানেজার ও ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক (পলিসি, এইচআরএম অ্যান্ড এডমিন) এসএম জাহিদ হাসান। তিনি বলেন, 'আসলে খুবই আনন্দের ব্যাপার। আমরা ব্যাক টু ব্যাক চ্যাম্পিয়ন। গতবার যেহেতু আমরা চ্যাম্পিয়ন ছিলাম। ফলে এবার শুরু থেকেই আমাদের মধ্যে এক ধরনের স্পিরিট কাজ করছিল যে, চ্যাম্পিয়নশিপ যেন আমরা ধরে রাখতে পারি। সে লক্ষ্য নিয়েই আমরা দল গড়েছিলাম। এবং আমরা প্রতিটা খেলায় জয়লাভ করে ফাইনালে সুস্পষ্ট ব্যবধানে প্রতিপক্ষকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি।'

দলের সামগ্রিক পারফরম্যান্স নিয়েও খুশি তিনি। পাশাপাশি ধারাবাহিকতা ধরে রাখার কথা জানালেন। জাহিদ হাসান বলেন, 'একটা ভারসাম্যপূর্ণ দল ছিল আমাদের। ব্যাটিং, বোলিং এবং ফিল্ডিং- প্রত্যেকটা বিভাগেই আমাদের কোনো ত্রুটি ছিল না। সেই ধারাবাহিকতার ফল হচ্ছে, আজ আমরা চ্যাম্পিয়ন। সবাইকে আমরা শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আমাদের জন্য আপনারা দোয়া করবেন, আমরা ভবিষ্যতে যেন এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারি।'

এবারের এই শিরোপা গত মাসে না ফেরার দেশে চলে যাওয়া ওয়ালটন গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এবং দেশের ইলেক্ট্রনিকস ও ইলেকট্রিক্যাল শিল্পের স্বপ্নদ্রষ্টা আলহাজ্ব এসএম নজরুল ইসলামকে উৎসর্গ করেছে টিম ওয়ালটন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ জানুয়ারি ২০১৮/পরাগ/আমিনুল

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge