ঢাকা, বুধবার, ৩ শ্রাবণ ১৪২৫, ১৮ জুলাই ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

মার্সেল ফ্রিজে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের স্বপ্ন পূরণ

আজিজুর রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৭-১০-২৩ ১২:০৫:১৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১০-২৩ ৪:০৩:০০ পিএম
বিজয়চিহ্ন দেখাচ্ছেন শিক্ষক লোকমান আলী

নিজস্ব প্রতিবেদক : চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর থানার হরিপুর গ্রামের প্রাক্তন স্কুলশিক্ষক লোকমান আলী। চার বছর আগে শংকরবাটি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদ থেকে অবসর নিয়েছেন তিনি। কলেজ পড়ুয়া দুই ছেলেসহ চারজনের সংসার। চাষাবাদ করে এখন সংসার চালান তিনি।

লোকমান আলী জানান, বাড়িতে শুধু পুরানো একটি টেলিভিশন ছাড়া তেমন কিছুই নেই। তার স্ত্রীর অনেক দিনের স্বপ্ন ছিল একটি ফ্রিজ, এলইডি টেলিভিশন, ওয়াশিং মেশিন, ব্লেন্ডারসহ আরো কিছু ইলেকট্রনিক্স পণ্যের। অর্থের অভাবে স্ত্রীর চাহিদা পূরণ সম্ভব হয়নি। অবশেষে দেশীয় ব্র্যান্ড মার্সেলের লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচারে সে স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।

প্রাক্তন এই স্কুলশিক্ষক বলেন, আমার ছোট ছেলে বিএ পড়ছে। লেখাপড়ার পাশাপাশি একটা চাকরিও করে। তার উপার্জনের টাকা দিয়ে গত বৃহস্পতিবার স্থানীয় কামাল ইলেকট্রনিক্স থেকে সাড়ে ২৩ হাজার টাকায় মার্সেলের একটি ফ্রিজ কিনি। ফ্রিজ কেনার পর কোম্পানির নিয়ম অনুযায়ী ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন করি। পরে লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচারের মেসেজ আসে আমার মোবাইলে। কিন্তু শুরুতে বিশ্বাসই হচ্ছিল না আমার। পরে শোরুম থেকে ফোন করে জানানো হয় যে আমি সত্যিই এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পেয়েছি।

তিনি আরো বলেন, সারা জীবন চাকরি করেও স্ত্রীর স্বপ্ন পূরণ করতে পারিনি। ছেলের উপার্জনের টাকা দিয়ে ফ্রিজ কিনে এলইডি টেলিভিশন, ওয়াশিং মেশিনসহ আমার স্ত্রীর সব চাহিদা পূরণ হয়েছে। এজন্য পরিবারের সবাই খুব খুশি।

মার্সেলের ফ্রিজ কেনার বিষয়ে তিনি বলেন, আমার আত্মীয়-স্বজনরা এ কোম্পানির পণ্য ব্যবহার করে। তারা সেবার মানে সন্তুষ্ট। এ কোম্পানির পণ্যের দাম তুলনামূলক কম এবং গুণগত মান ভালো। তাই আমাদের ইচ্ছে ছিল ফ্রিজ কিনলে মার্সেলেরই কিনব।

লোকমান আলী জানান, দুদিন টানা বৃষ্টি থাকায় গত রোববার মার্সেলের এক লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার গ্রহণ করেন তিনি। এরপর স্ত্রীর পছন্দ অনুযায়ী মার্সেলের একটি এলইডি টেলিভিশন, ওয়াশিং মেশিন, ব্লেন্ডার, রাইসকুকার, কারি কুকার, হটপট, ৩টি ফ্যানসহ ঘরের জন্য অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স পণ্য নেন।

 

লোকমান আলী ও তার স্ত্রীর হাতে লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার ও অন্যান্য পণ্য তুলে দেওয়া হচ্ছে


কামাল ইলেকট্রনিক্সের কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, মার্সেলের লাখ টাকার অফার এলাকায় বেশ সাড়া ফেলেছে। আমাদের শোরুম থেকে একজন ক্রেতা লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার পাওয়ায় এই অফারের প্রতি মানুষের আগ্রহ এখন আরো বেড়ে গেছে। টানা দুদিন বৃষ্টি হলেও শোরুমে ক্রেতাসমাগম বেশ ভালো ছিল।

তিনি জানান, লোকমান আলী এক লাখ টাকার পণ্য গ্রহণ করার পর তাকে নিয়ে এলাকার বিভিন্ন স্থান ঘুরে বেড়ানো হয়েছে। সঙ্গে ব্যান্ডপার্টি ছিল। আনন্দ মিছিলে এলাকাবাসীর অংশগ্রহণ ছিল দেখার মতো।

উল্লেখ্য, অনলাইনে ক্রেতাদের দোরগোড়ায় দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম চালু করেছে মার্সেল। এ কার্যক্রমে ক্রেতাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণকে উৎসাহিত করতে নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার দেওয়া হচ্ছে।

১০ হাজার টাকা বা তার অধিক মূল্যের মার্সেল পণ্য কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই মিলছে ৩০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকার ক্যাশ ভাউচার। এ অফার থাকছে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ অক্টোবর ২০১৭/আজিজুর রহমান/ইভা

Walton Laptop
 
     
Walton