ঢাকা, রবিবার, ১০ আষাঢ় ১৪২৫, ২৪ জুন ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

মার্সেল ফ্রিজ কিনে আরেকটি ফ্রি পেয়ে খুশি আব্দুল হক

এমএম মাসুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
   
প্রকাশ: ২০১৮-০৪-১৯ ৮:১১:৪৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-০৪ ৮:৩৯:৩৭ পিএম
মার্সেলের একটি ফ্রিজ কিনে আরেকটি ফ্রিজ ফ্রি পাওয়ায় আব্দুল হককে ফুলের মালা পরিয়ে অভিনন্দন জানানো হয়

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশীয় ব্র্যান্ড মার্সেলের ফ্রিজগুলো অত্যাধুনিক ও মানানসই ডিজাইনের। এর মধ্যে বিশেষ ডিজাইনে তৈরি নরমাল অংশের সমান ডিপ অংশের মার্সেল ফ্রিজ। যা সাধারণ ক্রেতাদের জন্য খুবই ব্যবহার উপযোগী। এছাড়া মার্সেল ফ্রিজের দাম যেমন কম, তেমনি টেকসইও।

দেশের অন্যতম ইলেকট্রনিক্স ও ইলেকট্রিক্যাল ব্র্যান্ড মার্সেলের ফ্রিজ সম্পর্কে এমন মন্তব্য করেন নোয়াখালী সদর থানার খোদেদাদপুর গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল হক।

আব্দুল হক পল্লী চিকিৎসক। তিনি গত ১২ এপ্রিল নোয়াখালী জেলার মাইজদীতে মার্সেল পণ্যের পরিবেশক শোরুম হিমালয় ইলেকট্রনিক্স ও টেকনোলজি থেকে ১৯ হাজার ৭০০ টাকা দিয়ে মার্সেলের ১১ সিএফটির একটি ফ্রিজ কেনেন। ফ্রিজ কিনে তিনি দেশব্যাপী চলমান মার্সেল ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় রেজিস্ট্রেশন করেন। এর কিছুক্ষণ পরেই মার্সেলেরই আরেকটি ফ্রিজ সম্পূর্ণ ফ্রি পাওয়ার এসএমএস পান মোবাইল ফোনে।

মার্সেলের একটি ফ্রিজ কিনে আরেকটি ফ্রিজ ফ্রি পাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় আব্দুল হক বলেন, আমার ৪০ বছরের জীবনে অনেক কোম্পানিরই বিভিন্ন জিনিস কিনেছি। কিন্তু কখনো কোনো পুরস্কার পাইনি। এই প্রথম মার্সেলের কাছ থেকে পুরস্কার পেলাম। তাও আবার ফ্রিজ পাওয়ার মতো বড় পুরস্কার। এটা আমার কাছে খুবই খুশির একটা ব্যাপার। ফ্রিজ জেতার আনন্দে আমি ইতোমধ্যে আত্মীয়-স্বজন থেকে শুরু করে বন্ধু-বান্ধব ও পাড়া-প্রতিবেশীকে প্রায় ৫ থেকে ৬ হাজার টাকার মিষ্টি খাইয়েছি। মার্সেলের একটি ফ্রিজ কিনে আরেকটি ফ্রি পাওয়ার খবরটি আমি এলাকার সবাইকে আনন্দের সাথে জানাচ্ছি। সেই সাথে সবাইকে দেশীয় ব্র্যান্ড মার্সেলের ফ্রিজ, টিভি কেনার পরামর্শ দিচ্ছি।

 



মার্সেল ফ্রিজ কেনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এর আগেও আমি দেশীয় ব্র্যান্ড মার্সেল ও ওয়ালটনের পণ্য ব্যবহার করেছি। আমার বাসায় ব্যবহৃত আগের ফ্রিজটি ওয়ালটনেরই ছিল। ব্যবহার করেছি অনেক বছর। খুব ভালো চলেছে। সম্প্রতি অত্যাধুনিক ডিজাইনের মার্সেল ফ্রিজ বাজারে এসেছে দেখে ওয়ালটনের ফ্রিজটি এক আত্মীয়কে দিয়েছি। এখন কিনলাম মার্সেলের ফ্রিজ। এই ফ্রিজের ডিপ ও নরমাল অংশে রয়েছে প্রচুর জায়গা। দেখতে সুন্দর, দামও কম। এছাড়া, গত মাসেও বড় ভাইয়ের বাসার জন্য দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটনের ১১ সিএফটির ফ্রিজ ও এলইডি টিভি কিনেছি। আগামী সপ্তাহে আমার বাসার জন্যও মার্সেলেরই আরেকটি এলইডি টিভি কিনব বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

মার্সেল সূত্রমতে, বিক্রয়োত্তর সেবা কার্যক্রম অনলাইনের আওতায় আনতে গত ১ এপ্রিল থেকে দেশব্যাপী আবারও ডিজিটাল ক্যাম্পেইন শুরু করেছে মার্সেল।

এ ক্যাম্পেইনের আওতায় একজন ক্রেতা প্রতিবার মার্সেলের ফ্রিজ, টিভি কিংবা এসি কিনে তা রেজিস্ট্রেশন করলেই পেতে পারেন আমেরিকা, রাশিয়া ভ্রমণের সুযোগ কিংবা মার্সেলেরই ফ্রিজ, টিভি ও এসি সম্পূর্ণ ফ্রি। তবে এসব সুযোগ না পেলেও ক্রেতাদের জন্য রয়েছে সর্বোচ্চ ১ হাজার টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত নগদ ছাড়।

ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় গ্রীষ্মকালের জন্য মার্সেল ফ্রিজ ও এসিতে এবং বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষে মার্সেল টিভিতে এসব সুবিধা পাওয়া যাবে আগামী ৩০ জুন, ২০১৮ পর্যন্ত।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ এপ্রিল ২০১৮/পলাশ/রফিক

Walton Laptop
 
   
Walton AC