ঢাকা, রবিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৫, ২১ অক্টোবর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

বোনকে মার্সেল ফ্রিজ দিয়ে আমেরিকার টিকিট পেলেন হাসান

মোহাম্মদ মাসুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৪-৩০ ৭:২৩:০৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-০৪ ৮:৩৬:৫৯ পিএম
মার্সেল ফ্রিজ কিনে ঢাকা-আমেরিকা-ঢাকার বিমান টিকিট উপহার পেলেন মাহমুমুদ হাসান

নিজস্ব প্রতিবেদক : ছোট বোন মরিয়মের বিয়ে হয়েছে সপ্তাহখানেক আগে। বোনের বিয়েতে উপহার দিতে মার্সেলের একটি ফ্রিজ কেনেন সিলেট মৌলভীবাজার বড়লেখা উপজেলার মুর্শিদাবাদ পুরা গ্রামের মাহমুমুদল হাসান। ফ্রিজটি কেনার পর বিক্রেতার পরামর্শ তিনি তা রেজিস্ট্রেশন করেন। সেই সুবাদে হাসানও ঢাকা-আমেরিকা-ঢাকার বিমান টিকিট উপহার পেয়েছেন।

ছোট বোনের বিয়ের উপহার মার্সেল ফ্রিজ কিনে নিজেই উপহার পাওয়ার অনুভূতি জানাতে গিয়ে রাইজিংবিডি ডটকমের এই প্রতিদেককে মাহমুদুল হাসান বলেন, ‘এতবড় পুরস্কার পাবো, স্বপ্নেও ভাবিনি। কয়েক বছরে ধরে বহুবার বিদেশে যাওয়ার চেষ্টা ব্যর্থ হওতায় ভাবতাম-আমার নসিব খারাপ। কিন্তু, ছোট বোনকে মার্সেলের ফ্রিজ কিনে উপহার দিতে গিয়ে নিজেই আমেরিকার বিমান টিকিট পাওয়ায়, ভাগ্য সম্পর্কে আমার সেই ধারণা সম্পূর্ণ পাল্টে গেছে। এখন মনে হচ্ছে-আমি সত্যি খুব লাকি। এই উপহারটি আমাকে আবার আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে।’

তিনি আরো বলেন, আমেরিকার বিমান টিকিট পাওয়া যতটা না আনন্দের, তারচেয়ে বড় আনন্দ লাগছে জীবনে প্রথমবার কোনো কিছু উপহার পাওয়ায়। তিনি জানান, স্থানীয় বসুন্ধরা স্পোর্টিংক্লাবের ফুটবল টিমের হয়ে বহু ম্যাচ খেলেছেন তিনি। এসব ম্যাচের অনেকগুলোতে ভালো খেলায় বিভিন্ন সময়ে ট্রফিও পেয়েছেন। দামের দিক থেকে ট্রফ্রির মূল্য খুবই সামান্য হলেও, সম্মানের দিক থেকে তার মূল্য অনেক। তাই, মার্সেল ফ্রিজ কিনে উপহার হিসেবে আমেরিকার বিমান টিকিটের জায়গায় যদি সাধারণ কোনো কিছুও পেতাম, তাতেও আমি আনন্দিত হতাম।



মাহমুদুল হাসানের পরিবারে রয়েছেন বাবা-মা, বড় দুই ভাই ও ছোট দুই বোন। দিন কয়েক আগে বিয়ে দিয়েছেন এক বোনকে। বড় ভাই হিসেবে ছোট বোনকে একটি ফ্রিজ উপহার দিতে গত ২২ এপ্রিল বড়লেখার দক্ষিণ বাজারে মার্সেল পণ্যের পরিবেশক প্রতিষ্ঠান আবু সুফিয়ান অ্যান্ড কোং এ যান তিনি। সেখান থেকে ছোট বোনের উপহারের ফ্রিজটি কিনি ১৬ হাজার টাকায়। ফ্রিজটি কিনে বিক্রেতার কথামতো তা রেজিস্ট্রেশন করে বাড়িতে এসে পড়ি।

কিছুক্ষণ পরেই তার মোবাইল ফোনে মার্সেল কোম্পানির কাছ থেকে একটি ম্যাসেজ আসে। ম্যাসেজটি ঢাকা-আমেরিকা-ঢাকার বিমান টিকিট উপহার পাওয়ার কথা তাকে জানানো হয়।

হাসান বলেন, ম্যাসেজটি পড়ার পর প্রথমে বিশ্বাস হচ্ছিল না। মনে মনে ভাবছিলাম-আমার ভাগ্যে কী এত বড় পুরস্কার জুটবে। হাত-পা কেমন যেন ঠান্ডা হয়ে আসছিল। কয়েক সেকেন্ডের জন্য মুখ দিয়ে কোনো কথা বের হচ্ছিল না। এর কারণ-এর আগে জীবনে কোনোদিন এরকম পুরস্কার পাইনি। এবারই প্রথম পুরস্কার পেলাম। অপ্রত্যাশিতভাবে পুরস্কার পাওয়ার আনন্দে যেন হতবাক হয়ে পড়েছিলাম।

অনেক বছর ধরে বিদেশে যাওয়ার জন্য চেষ্টা করছি। বহুবার সমস্ত প্রক্রিয়া শেষের দিকে এসেও ভেস্তে গেছে। তাই নিজের ভাগ্যকে দোষারোপ করতাম। ভাগ্য ভালনা মনে করতাম। কিন্তু, মার্সেলের উপহারে সেই ধারণা পাল্টে গেল। বরং এখন নিজেকে অনেক লাকি মনে করছি।



মার্সেল ফ্রিজ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি অনেক আগে থেকেই দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটনের ফ্রিজ ব্যবহার করি। ইতিমধ্যে, আমার পরিচিত একজনের শোরুম থেকে বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয়-স্বজন অনেককে ওয়ালটনের বেশ কয়েকটি ফ্রিজ ও টেলিভিশন কিনে দিয়েছি। তারা সবাই সেসব পণ্যে ভালো সার্ভিস পাচ্ছে। এবারও ছোট বোনের জন্য সেই শোরুম থেকেই ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার কথা ছিল। কিন্তু, তার সাথে কিছুটা মন-মালিন্য হওয়ায় মার্সেলের শোরুমে যাই। সেখানে গিয়ে জানতে পারলাম, ওয়ালটন ও মার্সেল একই কোম্পানির পণ্য। দেখলাম, মার্সেলেরও ফ্রিজগুলো দেখতে অনেক সুন্দর। আবার ওয়ালটনের ফ্রিজ যেহেতু ভালো সার্ভিস দিচ্ছে, একই কোম্পানির হওয়ায় মার্সেল ফ্রিজেও ভালো সার্ভিস পাবো বলে বিশ্বাস করলাম। সেই বিশ্বাসের প্রতিদানেই হয়তঃ ফ্রিজ কেনার পর জীবনে প্রথম কোনো বড় পুরস্কার পেলাম।

মার্সেল সূত্রমতে, বিক্রয়োত্তর সেবা কার্যক্রম অনলাইনের আওতায় আনতে গত ১ এপ্রিল থেকে দেশব্যাপী আবারো ডিজিটাল ক্যাম্পেইন শুরু করেছে মার্সেল। ক্যাম্পেইনের আওতায় একজন ক্রেতা প্রতিবার মার্সেলের ফ্রিজ, টিভি কিংবা এসি কিনে তা রেজিস্ট্রেশন করলেই পেতে পারেন আমেরিকা, রাশিয়া ভ্রমণের সুযোগ ছাড়াও মার্সেলেরই ফ্রিজ, টিভি ও এসি সম্পূর্ণ ফ্রি। তবে এসব সুযোগ না পেলেও, ক্রেতার জন্য রয়েছে সর্বোচ্চ এক হাজার টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত নগদ ছাড়।

ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় গ্রীষ্মকালীন সময়ের জন্য মার্সেল ফ্রিজ ও এসিতে এবং বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষে মার্সেল টিভিতে এসব সুবিধা পাওয়া যাবে আগামী ৩০ জুন, ২০১৮ পর্যন্ত।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/৩০ এপ্রিল ২০১৮/একরাম হোসেন পলাশ/সাইফ

Walton Laptop
 
     
Walton