ঢাকা, রবিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৫, ২১ অক্টোবর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

‘বন্ধুর পরামর্শে মার্সেল ফ্রিজ কিনে ফ্রি পেলাম আরেকটি’

মোহাম্মদ মাসুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৫-১৭ ১০:৩১:৪১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৬-০৪ ৮:৪০:১৯ পিএম
মার্সেল ফ্রিজ কিনে পুরস্কার পাওয়া আরেকটি ফ্রিজ বুঝে নিচ্ছেন সুজন মোঘল

নিজস্ব প্রতিবেদক : এ বছর গরম পড়েছে বেশি। ঘন ঘন বৈশাখী ঝড় হলেও কমছে না ভ্যাপসা গরম। আবার শুরু হচ্ছে রোজা। সবদিক বিবেচনা করে বাসার জন্য একটি ফ্রিজ কেনার সিদ্ধান্ত নেই। কোনো ব্র্যান্ডের ফ্রিজ ভালো হবে তা নিয়ে এক বন্ধুর সাথে আলাপও করি। সে দেশীয় ব্র্যান্ড মার্সেলের ফ্রিজ কেনার পরামর্শ দিল। সে নিজেও নাকি মার্সেল ফ্রিজ কিনে ভালো সার্ভিস পাচ্ছে। তাই বন্ধুর পরামর্শ অনুযায়ী আমিও বাসার জন্য মার্সেল ফ্রিজ কিনেছি। সেই সুবাদে উপহার পেয়েছি মার্সেলেরই আরেকটি ফ্রিজ। এটা যেন এক অবিশ্বাস্য ব্যাপার।

একটি মার্সেল ফ্রিজে আরেকটি ফ্রি পাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেন গাইবান্ধার তুলসিঘাট দূর্গাপুরের বাসিন্দা সুজন মোঘল। গাইবান্ধা সরকারি বালক বিদ্যালয় ও কলেজের ডিগ্রি প্রথম বর্ষের ছাত্র তিনি। পরিবারে রয়েছে বাবা-মা ও দুই বোন। লেখাপড়ার পাশাপাশি তুলসীঘাটে বাবার রড-সিমেন্টের ব্যবসা পরিচালনার সঙ্গেও জড়িত সুজন।

তিনি চলতি মাসের দ্বিতীয় দিনে গাইবান্ধা শহরের ডি.বি রোডে মার্সেল পণ্যের পরিবেশক ‘অহনা ইলেকট্রনিক্স’ থেকে ২৫ হাজার ৯০০ টাকা দিয়ে সাড়ে পনের  সিএফটির একটি ফ্রিজ কিনেন। এরপর তিনি তা দেশব্যাপী চলমান মার্সেল ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় রেজিস্ট্রেশন করেন। এর কিছুক্ষণ পরেই ক্যাম্পেইনে ঘোষিত শত শত ফ্রিজ, টিভি ও এসি ফ্রি’র অফারের আওতায় মার্সেলেরই ৮ সিএফটির একটি ফ্রিজ উপহার পাওয়ার ফিরতি ম্যাসেজ পান তিনি।

সুজন মোঘল বলেন, ‘বন্ধুর পরামর্শে মার্সেল ফ্রিজ কিনে আরো একটি ফ্রিজ উপহার পেয়েছি, এ যেন এক অবিশ্বাস্য ব্যাপার। এটা কল্পনাও করিনি। জীবনে বেশ কয়েকবার লটারি ধরেছি। কিন্তু ভাগ্যে কখনো কোনো পুরস্কার জুটেনি। এবার মার্সেল ফ্রিজ কিনে রেজিস্ট্রেশন করতেই পুরস্কার পেয়েছি আরেকটি ফ্রিজ। জীবনে প্রথম পুরস্কার, তাও আবার ফ্রিজ-এটা যেন ভাবতেই পারছি না। কোনো কিছু পাওয়ার আশা না করেও তা পেয়ে গেলে যে কি আনন্দ লাগে তা ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। ধন্যবাদ মার্সেল কোম্পানিকে।’



মার্সেল ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে ঘোষিত অফার সম্পর্কে আগে থেকে জানতেন কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, অফার সম্পর্কে জানতাম। এলাকায় বিভিন্ন পয়েন্টে অফারের ব্যানার ও ফেস্টুন টাঙানো রয়েছে। লিফলেটও বিলি করা হয়েছে। এসব প্রচার থেকেই জানতে পারি যে, মার্সেল ফ্রিজ, টিভি ও এসি কিনলে পণ্য ফ্রি’র পাশাপাশি এক হাজার টাকা পর্যন্ত নগদ ছাড়ও পাওয়া যাবে।

তিনি আরো বলেন, বাসার জন্য মার্সেল ফ্রিজ কেনার সিদ্ধান্ত আগেই নিয়েছিলাম। হাতেও রয়েছে ফ্রিজ কেনার মত টাকা। ভাবলাম, ক্যাম্পেইন চলাকালীন মার্সেল ফ্রিজ কিনলে কিছু টাকা ছাড় পাওয়া যাবে। তাই মার্সেল ফ্রিজ কিনি। এরপর তা রেজিস্ট্রেশন করতেই আরেকটি ফ্রিজ পুরস্কার পেয়ে গেলাম। অপ্রত্যাশিত এই পুরস্কার পাওয়ার কথা কখনোও ভাবিনি।

মার্সেল সূত্রমতে, বিক্রয়োত্তর সেবা কার্যক্রম অনলাইনের আওতায় আনতে গত ১ এপ্রিল থেকে দেশব্যাপী আবারো ডিজিটাল ক্যাম্পেইন শুরু করেছে মার্সেল। ক্যাম্পেইনের আওতায় একজন ক্রেতা প্রতিবার মার্সেলের ফ্রিজ, টিভি কিম্বা এসি কিনে তা রেজিস্ট্রেশন করলেই পেতে পারেন আমেরিকা, রাশিয়া ভ্রমণের সুযোগ কিংবা মার্সেলেরই ফ্রিজ, টিভি ও এসি সম্পূর্ণ ফ্রি। তবে এসব সুযোগ না পেলেও, ক্রেতার জন্য রয়েছে সর্বোচ্চ এক হাজার টাকা পর্যন্ত নিশ্চিত নগদ ছাড়।

ডিজিটাল ক্যাম্পেইনের আওতায় গ্রীষ্মকালীন সময়ের জন্য মার্সেল ফ্রিজ ও এসিতে এবং বিশ্বকাপ ফুটবল উপলক্ষে মার্সেল টিভিতে এসব সুবিধা পাওয়া যাবে আগামী ৩০ জুন ২০১৮ পর্যন্ত।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৭ মে ২০১৮/একরাম হোসেন পলাশ/সাইফ

Walton Laptop
 
     
Walton