ঢাকা, শনিবার, ১ পৌষ ১৪২৫, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮
Risingbd
সর্বশেষ:

৮৭ রানে শেষ রাজিনের, চ্যাম্পিয়ন হয়ে প্রথম স্তরে ঢাকা

ইয়াসিন : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১১-০৮ ৭:০৫:৫২ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১১-০৮ ১০:৫০:০১ পিএম

ইয়াসিন হাসান : বিকেল ৪টা। পূর্বের সূর্য তখন পশ্চিমে অস্তগামী। পড়ন্ত বিকেলে সমুদ্রের গর্জন মাঠ থেকে শোনা যাচ্ছিল বেশ জোরেশোরে। ঝাউবনে দোলা দিয়ে সমুদ্রের বাতাস মাঠে এসে পড়ছিল। দিচ্ছিল মৃদ্যু হাওয়া। সূর্যের মিষ্টি আলোয় শেখ কামাল স্টেডিয়ামের সবুজের গালিচা চিক চিক করছিল। চিক চিক করছিল ঢাকা বিভাগের খেলোয়াড়দের হাসি।

গতবার প্রথম স্তর থেকে অবনমন হয়েছিল দলটির। এবার দ্বিতীয় স্তর থেকে চ্যাম্পিয়ন হয়ে আবার প্রথম স্তরে তারা। তাইতো মুখে চড়া হাসি নাদিফ চৌধুরীদের। আবার সবুজের ওই গালিচাতেই বিদায়ের সুর। বিষন্ন, বিমর্ষ পরিবেশ। ৩৫ ছুঁইছুঁই রাজিন সালেহ প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দেশের সবথেকে পুরনো ক্রিকেটার।

ওয়ালটন জাতীয় ক্রিকেট লিগের শেষ রাউন্ডের খেলার মধ্য দিয়ে ক্রিকেট জীবনকে বিদায় জানালেন রাজিন সালেহ। শেষটা কতটাই না রঙিন ভাবে রাঙাতো পারত তার। দুটি ইনিংসেই ব্যাটিং করার সুযোগ পেয়েছিলেন এ ডানহাতি। প্রথমটিতে করেছিলেন ৬৭ রান। সেঞ্চুরির দিকে এগিয়ে গিয়েও পারেননি। দ্বিতীয় ইনিংসেও সেই একই চিত্র। ২২ গজে তার ব্যাট থেকে এলো আরও ২০টি রান। এবার ৮৭’এ থামলেন রাজিন। আনলাকি থারটিন!



তবুও আক্ষেপ নেই। মুঠোফোনে কথোপকথনে বললেন,‘আলহামদুল্লিাহ। যেটুকু হয়েছে তাতে খুবই খুশি।’ বিদায়ী ম্যাচে সিলেটের দায়িত্ব পালন করেছেন রাজিন। দলকে জয় দিতে না পারলে দিয়েছেন প্রত্যাশিত ড্র। দ্বিতীয় স্তরে তার দল পয়েন্ট তালিকার নিচে থাকলেও পুরো লিগে দলের পারফরম্যান্স নিয়ে সন্তুষ্ট রাজিন।

‘আমাদের দলটা নতুন। অলোক, এনামুল শুধুমাত্র পুরনো খেলোয়াড়। দলটিকে গড়ে তুলতে সময় লাগবে। আশা করছি শীঘ্রই ওরা ঘুরে দাঁড়াবে।’

৪০ রানে দিন শুরু করেছিলেন রাজিন। সকালেই তুলে নেন ক্যারিয়ারের ৪৪তম হাফ সেঞ্চুরি। তিন অঙ্কের পথেই ছিলেন সিলেটের এ ক্রিকেটার। দলের রানের চাকা ঘুরাচ্ছিলেন। বাড়ছিল তার রানও। দিনের প্রথম দুই ঘন্টায় বেশ সাচ্ছন্দ্য নিয়ে ব্যাটিং করেছেন। ৮৭ রানে অপরাজিত থেকে ফিরেছেন মধ্যাহ্ন বিরতিতে।



৪০ মিনিটির বিরতিই যেন তার আফসোস হয়ে থাকল। বিরতি থেকে এক রানও করতে পারেননি। বোল্ড হয়ে যান শুভাগত হোমের বলে। ২২৪ বলে ৭ চারে বিদায়ী ইনিংসটি সাজান। ঢাকার খেলোয়াড়রা তাকে জানান অভিনন্দন। শেষবারের মতো দীর্ঘপথ পাড়ি দিয়ে ফিরেন সাজঘরে। সেখানে বরণ করে নেয় সতীর্থরা।

দিন শেষে অমীমাংসিত থেকেছে দুই দলের ম্যাচ। সিলেট প্রথম ইনিংসে করেছিল ২৪৬ রান। জবাবে ঢাকা বিভাগ আটকে যায় ৩৪৬ রানে। পিছিয়ে থেকে ব্যাটিংয়ে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে সিলেট তুলে ৬ উইকেটে ৩০৩ রান।  রাজিনের ৮৭ রান বাদে হাফ সেঞ্চুরি পেয়েছেন জাকের আলী ও শাহানুর রহমান। জাকের আলী ৭৭ ও শাহানুর ৭০ রানে অপরাজিত থাকেন। অলোক কাপালির ব্যাট থেকে আসে ৩৯ রান।

বিদায়ী ম্যাচে কোনো ল্যান্ডমার্কে না পৌঁছালেও রাজিন পেয়েছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার। বিসিবি থেকে তাকে তুলে দেওয়া হয় স্মারক পুরস্কার।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/৮ নভেম্বর ২০১৮/ইয়াসিন/আমিনুল

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC