ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৩ মে ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নেপাল

আমিনুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-০৭ ১০:৫৫:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৯-০৮ ১:০২:১৮ পিএম
নেপালের বিপক্ষের ম্যাচকে সামনে রেখে অনুশীলনে বাংলাদেশ দল || ছবি : বাফুফে
Walton AC

ক্রীড়া প্রতিবেদক : সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বাদশ আসরে প্রথম দুই ম্যাচের দুটিই জিতেছে বাংলাদেশ। ‘এ’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে শনিবার বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নেপাল। সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হবে ম্যাচটি। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম থেকে যা সরাসরি সম্প্রচার করবে চ্যানেল নাইন ও বিটিভি।

নেপাল তাদের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে ২-১ ব্যবধানে হেরে যায়। পরের ম্যাচে অবশ্য ঘুরে দাঁড়ায় তারা। দশজনের ভুটানকে হারায় তারা ৪-০ ব্যবধানে। শনিবার বাংলাদেশের বিপক্ষে জয় পেলে কিংবা ড্র করলে তাদের সামনে সুযোগ থাকবে সেমিফাইনালে যাওয়ার। তবে অপর ম্যাচে ভুটানের বিপক্ষে পাকিস্তান যদি বড় ব্যবধানে জয় পায় তাহলে তাদের সামনেও সুযোগ থাকবে সেমিফাইনালে যাওয়ার। পাকিস্তান প্রতিপক্ষ ভুটানের বিপক্ষে আর নেপাল স্বাগতিক বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতলে নেপাল-বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের সমান ৬ পয়েন্ট করে হবে। সেক্ষেত্রে গোল ব্যবধান, মুখোমুখি লড়াই ও কার্ডের হিসাব করে নির্ধারণ করা হবে কোন দুটি দল যাবে ফাইনালে। এমন সমীকরণ দাঁড়ালে সমীকরণের মারম্যাচে বাংলাদেশের বাদ পড়ারও শঙ্কা আছে।

তবে বাংলাদেশ এতো সমীকরণে যেতে চায় না। তারা নেপালের বিপক্ষে জিতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে সেমিফাইনালে যেতে চায়। তবে নেপালের বিপক্ষের ম্যাচটি কঠিন হবে বলেই মনে করছেন বাংলাদেশের কোচ জিমি ডে, ‘কঠিন একটা ম্যাচ হবে। নেপাল ভাল দল। পাকিস্তানের বিপক্ষে তাদের ভাগ্য সঙ্গে ছিল না বলে শেষ মুহুর্তে গোল হজম করে হেরেছে। ভুটানের বিপক্ষে কিন্তু বড় ব্যবধানে জিতেছে। সব বিভাগ মিলিয়ে তারা সেরা একটা দল। তাদের বিপক্ষে জিততে হলে আমাদের সেরাটা দিয়ে খেলতে হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা সবাই জানি ম্যাচটা কতটা গুরুত্বপূর্ণ। তবে ছেলেরাও প্রস্তুত আছে। আশা করি ভাল একটা ম্যাচ হবে। আসলে চারদিনের মধ্যে তিনটি ম্যাচ খেলা ছেলেদের জন্য অবশ্যই কঠিন। একটা ম্যাচের আগে মাত্র একদিন সময় পেয়েছি। এর মধ্যেই আমাদের সব কিছু করতে হচ্ছে। বিশ্রামের সময়ও পাচ্ছে না। এটা সত্যিই কঠিন। তবে এত কিছুর পরও আমি খুব আশাবাদী আমরা সেমিফাইনালে ওঠব।’



এদিকে বাংলাদেশকে হারিয়ে সেমিফাইনাল খেলতে চায় নেপাল। শেষ ম্যাচে বড় জয় পাওয়ায় তারা আত্মবিশ্বাসী। নেপালের কোচ বাল গোপাল মহারাজন বলেন, ‘সাফে আমাদের শুরুটা যদিও ভালো হয়নি। পাকিস্তানের বিপক্ষে আমরা ভালো খেলেও শেষ মুহূর্তে আমরা গোল খেয়ে হেরেছি। তবে ভুটানের বিপক্ষে দারুণ খেলেছে ছেলেরা। এই খেলাটা ধরে রাখতে পারলে শুধু বাংলাদেশ কেন? যে কোনো দলকেই হারানোর ক্ষমতা রাখে আমার দল। যদিও বাংলাদেশ টুর্নামেন্টের স্বাগতিক দল। তাদের ম্যাচ দেখতে অনেক দর্শক মাঠে আসছে। ভালো সমর্থন পাচ্ছে। তবে এসব নিয়ে আমরা ভাবছি না। আমরা বাংলাদেশকে হারিয়েই সেমিফাইনাল খেলতে চাই।’

নেপালের বিপক্ষে বাংলাদেশের ফুটবল দ্বৈরথ নতুন নয়। ১৯৮৩ সাল থেকে ২০১৩ পর্যন্ত দুই দল ১৮ বার মুখোমুখি হয়েছে। তার মধ্যে বাংলাদেশ জিতেছে ১২ বার। ৫ বার জিতেছে নেপাল। একটি ম্যাচ হয়েছে ড্র। তবে সবশেষ ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে হেরেছে বাংলাদেশ। ২০১৩ এশিয়া কাপে ঘরের মাঠে বাংলাদেশকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়েছে নেপাল। সেই হারের প্রতিশোধ নিতে পারবে তপু বর্মন-সুফিলরা?

জানতে অপেক্ষা করতে হবে শনিবার রাত পর্যন্ত।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮/আমিনুল

Walton Laptop
     
Walton AC
Marcel Fridge