ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ মাঘ ১৪২৫, ২২ জানুয়ারি ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ইসি ঠুঁটো জগন্নাথ : মান্না

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১২-২৩ ৫:১০:০৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১২-২৩ ৫:১০:০৬ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা ও বগুড়া-২ আসনের প্রার্থী মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, সারা দেশে বিরোধীদের নির্বাচনী প্রচারে হামলা ও নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করা হলেও নির্বাচন কমিশন (ইসি) কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। ইসি ঠুঁটো জগন্নাথের মতো শুধু কথা শোনে আর বলে, দেখছি।

রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশনে নিজের নির্বাচনী এলাকায় নানা অনিয়মের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে চিঠি দেন মাহমুদুর রহমান মান্না।

পরে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, আমরা আগে বলতাম, নির্বাচনী যুদ্ধ। এখন সত্যিকার অর্থে নির্বাচনের নামে যুদ্ধই হচ্ছে। সরকারপক্ষ তা-ই করছে। আমার এলাকায় গভীর রাতে বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে হামলা হচ্ছে, গ্রেপ্তার করা হচ্ছে নির্বাচনী এজেন্ট ও দলীয় নেতাকর্মীদের। সারা দেশে একই অবস্থা বিরাজ করছে। নির্বাচন কমিশনকে কিছু বললে কাজ হয় না। ঠুঁটো জগন্নাথের মতো শুধু কথা শোনে আর বলে, দেখছি। আজও অভিযোগ নিয়ে এসেছি। ইসি কর্মকর্তারা বলছেন, ডিসিকে পাঠিয়ে দিচ্ছি। এর আগেও অনেক অভিযোগ করা হয়েছে। ফলাফল পাইনি। কোনো অভিযোগের ব্যাপারে অ্যাকশন আমরা দেখিনি।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ঠাকুরগাঁও থেকে চট্টগ্রাম, যেখান থেকেই খবর পাচ্ছি, মানুষের মধ্যে একটা স্বতঃস্ফূর্ততা। এক রকমের ঢল। মানুষের মধ্যে দৃঢ়তা দেখা গেছে। মানুষ ভোট দিতে চায়। কিন্তু মানুষ যাতে ভোট দিতে না পারে, সরকার ও তার দল আওয়ামী লীগ সব ধরনের চেষ্টা করছে। জনগণের ভোট ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা ও সন্ত্রাস করছে। পরাজয়ের গ্লানি ঢাকার জন্য তাদের এই চেষ্টা।

তিনি বলেন, বহু প্রার্থী গ্রেপ্তার হয়েছে। নির্বাচনে প্রার্থিতা নিয়েও নানা নাটক মঞ্চস্থ করা হচ্ছে। সমগ্র বিশ্ব আজ উদ্বিগ্ন। আজ পত্রিকাতে দেখলাম, জাতিসংঘ পর্যন্ত উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এটা একটা নারকীয় পরিবেশ। এটা কোনো নির্বাচনী পরিবেশ নয়। এভাবে যদি নির্বাচন হয়, তাহলে একপাক্ষিকভাবে জোর করে জেতার চেষ্টা করবে। তখন যদি জনগণ ফুঁসে ওঠে, তাহলে এর পরিণতির জন্য এরাই দায়ী থাকবে, যারা ক্ষমতায়। আমি গত ৫/৬ দিন ধরে আমার নির্বাচনী এলাকায় বিভিষীকার রাজত্ব দেখছি। এর আগে দেখিনি। গত ১০ ডিসেম্বর থেকে এসব দেখছি। আমাকে হাইওয়েতে প্রচারণা কর্মসূচি করতে দেওয়া হয়নি বিরোধী পক্ষের কারণে। পুলিশকে আগে জানালেও আমাকেই সরে যেতে অনুরোধ করে পুলিশ। এরপর থেকে যেখানেই যাচ্ছি সেখানে হয়রানি করা হচ্ছে। পোস্টার ছেঁড়া হচ্ছে, কর্মীদের মারধর, অফিসে হামলা করা হচ্ছে। নিরঙ্কুশ সমর্থন দেখে প্রতিপক্ষ এসব করছে। আমার নির্বাচনী কমিটির প্রত্যেক সদস্যকে ধরে ধরে মামলা দেওয়া হচ্ছে। কেউ জামিন পাচ্ছে না। পুলিশ এদের খুঁজছে। গত রাত সাড়ে ৩টায় ৪৪ জনের নামে মামলা নেওয়া হয়েছে। বাড়ির সামনে থেকে গ্রেপ্তার, ফসলি জমি থেকে গ্রেপ্তার, নির্বাচনী অফিস থেকেও গ্রেপ্তার করা হচ্ছে।

চিঠিতে মাহমুদুর রহমান মান্না গ্রেপ্তার হওয়া নেতাকর্মীদের মুক্তি, নতুন মামলা না দেওয়া, গ্রেপ্তার বন্ধ, বিনা বাধায় প্রচারের সুযোগ, পোস্টার ছেঁড়া বন্ধ নিশ্চিত করা এবং পুলিশকে সত্যিকার অর্থে নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালনের দাবি পেশ করেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ ডিসেম্বর ২০১৮/হাসিবুল/রফিক

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC