ঢাকা, মঙ্গলবার, ৯ মাঘ ১৪২৫, ২২ জানুয়ারি ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ জয়

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
 
     
প্রকাশ: ২০১৮-১২-৩১ ৮:২১:৫০ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০১-১৪ ৪:৫০:১৪ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৯৯টি আসনের মধ্যে ২৯৮টি আসনের ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। এরমধ্যে ২৫৯টি আসনে নিরঙ্কুশ জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। এই জয়ের মাধ্যমে ইতিহাস সৃষ্টি করলেন আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা। চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন তিনি।

সোমবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে আসনভিত্তিক ফলাফল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। ঘোষিত ২৯৮ আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ এককভাবে পেয়েছে ২৫৭টি আসন, আর মহাজোটগতভাবে তাদের আসন সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৮৮টি।

এরশাদের জাতীয় পার্টি পেয়েছে ২২টি আসন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে বিএনপি ৫ আসন এবং গণফোরাম দুটি আসন পেয়েছে। অন্য দলগুলোর মধ্যে স্বতন্ত্র ৩টি, ওয়ার্কার্স পার্টি ৩টি, জাসদ ২টি, বিকল্পধারা ২টি, গণফোরাম ২টি, তরিকত ফেডারেশন ও জেপি পেয়েছে ১টি করে আসন।

তিনটি কেন্দ্রের ভোট স্থগিত হওয়ায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের ফল স্থগিত করা হয়েছে। ওই কেন্দ্রগুলোতে নতুন করে ভোট হওয়ার পর ফল ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছে ইসি।

এর আগে রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৩০০টি সংসদীয় আসনের মধ্যে ২৯৯টি আসনে ৪০ হাজারের বেশি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হয়। এরপর কেন্দ্রে কেন্দ্রে গণনার কাজ শুরু হয়। এক প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে গাইবান্ধা-৩ আসনের ভোট স্থগিত করে নতুন তফসিল ঘোষণা করা হয়। সে অনুযায়ী ওই আসনে ২৭ জানুয়ারি ভোট হওয়ার কথা রয়েছে।

বিজয়ী দলকে অভিনন্দন জানিয়ে নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগকে অভিনন্দন জানাই, তারা বিপুল ভোটে জয়লাভ করেছেন। এই নির্বাচন উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে, যেন গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা বজায় থাকে।’

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করে নির্দলীয় সরকারের অধীনে পুনর্নির্বাচনের দাবি জানিয়েছে। রোববার রাতে রাজধানীর বেইলি রোডের বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনে ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন ফল প্রত্যাখ্যানের কথা বলে এ দাবি জানান।

ঐক্যফ্রন্টের কারচুপির অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো চেয়ারম্যান এইচ টি ইমাম বলেন, ‘কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া নির্বাচন শান্তিপূর্ণ, অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে। দলীয় সরকারের অধীনে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব- সেটা প্রমাণ হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘বিদেশি পর্যবেক্ষকরা এ নির্বাচনের প্রশংসা করেছেন। তারা বলেছেন, অত্যন্ত সুন্দর সুষ্ঠু এবং সুন্দরভাবে এই নির্বাচন পরিচালিত হয়েছে। নির্বাচন কমিশনেরও প্রশংসা করেছেন তারা। সে জন্য আমরা নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।’

প্রসঙ্গত, এর আগে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দুই তৃতীয়াংশের অধিক আসনে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করে। এরপর ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগ দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে ফের সরকার গঠন করে। সেবার বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলো নির্বাচন বর্জন করেছে।

এ ছাড়া ১৯৯৬ সালের ১২ জুন সপ্তম সংসদ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে এবং প্রথমবারের মত প্রধানমন্ত্রী হন শেখ হাসিনা।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/৩১ ডিসেম্বর ২০১৮/মিথুন/ইভা/এনএ/শাহনেওয়াজ

Walton Laptop
 
     
Marcel
Walton AC